“মরে যান” - করোনা আক্রান্তকে পরামর্শ সরকারি হেল্পলাইনের, ফের বিতর্কে যোগী প্রশাসন
ছবি- প্রতীকী

“মরে যান” - করোনা আক্রান্তকে পরামর্শ সরকারি হেল্পলাইনের, ফের বিতর্কে যোগী প্রশাসন

করোনাভাইরাস কম্যান্ড সেন্টার। সেখান থেকে হোম আইসোলেশনে থাকাকালীন প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেওয়া হয়, পাশাপাধি ওষুধও দেওয়া হয়। করোনায় আক্রান্ত হয়ে লখনউয়ের বাসিন্দা সন্তোষ কুমার সিং সেখানেই ফোন করেছিলেন।

১৭ এপ্রিল, লখনউ- ফের যোগী রাজ্য। ফের উত্তরপ্রদেশ। আবারও এক বিতর্ক। এক করোনা রোগীকে সহযোগিতার বদলে 'মরে যান' শুনতে হল! করোনা আক্রান্তদের জন্য সে-রাজ্যে আগেই চালু হয় করোনাভাইরাস কম্যান্ড সেন্টার। সেখান থেকে হোম আইসোলেশনে থাকাকালীন প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেওয়া হয়, পাশাপাধি ওষুধও দেওয়া হয়। করোনায় আক্রান্ত হয়ে লখনউয়ের বাসিন্দা সন্তোষ কুমার সিং সেখানেই ফোন করেছিলেন। যে অভিজ্ঞতা তাঁর হল, তা হয়ত দুঃস্বপ্নেও ভাবনায় ছিল না।

১০ এপ্রিল সন্তোষ বাবু ও তাঁর স্ত্রী করোনা পরীক্ষা করালে দুজনেরই রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এরপর সেই কম্যান্ড সেন্টারে ফোন করলে তাঁকে পরে ফোন করা হবে বলে জানান হয়। ওইদিনই সকাল ৮.১৪ মিনিটে ফোন আসে। তাঁকে জিজ্ঞাসা করা হয়, 'আপনি কি হোম আইসোলেশন অ্যাপ ডাউনলোড করেছেন?' জবাবে সন্তোষ বাবু জানান, এমন তথ্য তো তাঁকে জানানো হয়নি। এরপরই যিনি ফোন করেছিলেন, তিনি বলেন, 'তাহলে মরে যান।' বিস্মিত সন্তোষবাবু ওই কথোপকথনের রেকর্ডিং দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী ও লখনউয়ের জেলাশাসককে অভিযোগ জানিয়ে চিঠি লিখেছেন।

ছবি- প্রতীকী
টিন দিয়ে ঘেরা হল লখনউ শ্মশান - করোনায় মৃত্যু সংখ্যা লুকানোর অভিযোগ যোগী প্রশাসনের বিরুদ্ধে

শুক্রবার উত্তরপ্রদেশে লকডাউনের কথা ঘোষণা করেছে যোগীর সরকার। নোটিশে জানানো হয়েছে, আগামী রবিবার রাজ্যের সব জেলায় লকডাউন হবে। পাশাপাশি মাস্ক না পরলেই এক হাজার টাকা জরিমানা করা হবে। উত্তরপ্রদেশে প্রতিদিন প্রায় ৭৯.১০ শতাংশ হারে করোনায় আক্রান্তের ঘটনা ঘটছে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in