'বাক স্বাধীনতা হনন হবে' - সলমন খুরশিদের বই বিক্রি বন্ধ করার আবেদন খারিজ আদালতের
ছবি সৌজন্যেঃ - Live Law

'বাক স্বাধীনতা হনন হবে' - সলমন খুরশিদের বই বিক্রি বন্ধ করার আবেদন খারিজ আদালতের

পাটিয়ালা হাউস আদালত সেই আবেদন খারিজ করে জানিয়েছে, এই ধরনের নির্দেশ দেওয়ার অর্থ লেখকের বাক-স্বাধীনতার অধিকারে আঘাত করা। তা হতে দেওয়া যায় না।

সম্প্রতি কংগ্রেসের প্রাক্তন মন্ত্রী সলমন খুরশিদ তাঁর বইয়ে উগ্র হিন্দুত্ববাদকে বোকো হারাম ও আইসিসের সঙ্গে তুলনা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছিল। তা নিয়ে বিতর্কের ঝড় বয়ে যায়। সেই বই প্রকাশনা, বিক্রি, বিলি বন্ধ করার নির্দেশ দেওয়ার আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন এক ব্যক্তি। কিন্তু পাটিয়ালা হাউস আদালত সেই আবেদন খারিজ করে জানিয়েছে, এই ধরনের নির্দেশ দেওয়ার অর্থ লেখকের বাক-স্বাধীনতার অধিকারে আঘাত করা। তা হতে দেওয়া যায় না।

বিচারক প্রীতি পারেয়া জানিয়েছেন, অভিযোগকারী নিজের পক্ষে যথেষ্ট তথ্য দিতে পারেননি। তাই আবেদন খারিজ করা হয়েছে। অভিযোগকারী বইটি বা বইটির 'আপত্তিকর' অংশগুলির কী অসুবিধা সৃষ্টি করতে পারে তাঁর, সে সম্পর্কে যথেষ্ট ব্যাখ্যা দিতে পারেননি। তাছাড়া, লেখকের একইরকমভাবে বই লেখার কিংবা ছাপানোর অধিকার রয়েছে। বইটির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি হলে, প্রকাশকদের জন্য তা সমস্যার সৃষ্টি করবে।

উল্লেখ্য, মামলাকারী জানিয়েছেন, বইটির উদ্ধৃতাংশ পড়ে তিনি চমকে উঠেছেন। সেখানে হিন্দুত্বকে আইসিস এবং বোকো হারামের সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে। এটি শুধু হিন্দুদের আবেগকেই উস্কে দিচ্ছে, বিপুল সংখ্যক হিন্দু ধর্মাবলম্বী মানুষের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করছে। বিচারক উদ্ধৃতাংশ দেখে জানিয়েছেন, শুধুমাত্র একটি উদ্ধৃতাংশ দেখে কোন প্রেক্ষাপটে ওই কথাগুলি লেখা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি সলমন খুরশিদের লেখা বই প্রকাশিত হয়েছে। বইটির নাম 'সানরাইজ ওভার অযোধ্যা: নেশনহুড ইন আওয়ার টাইমস'। ওই বইয়ের এক জায়গায় বলা হয়েছে, 'সনাতন ধর্ম বা সনাতন হিন্দু ধর্ম'ও উগ্র হিন্দুত্ববাদের হাতে আক্রান্ত হয়েছে। সবদিক থেকেই উগ্র হিন্দুত্ব আইসিস বা বোকো হারামের মতো উগ্র জেহাদি সংগঠনের সমার্থক।

'বাক স্বাধীনতা হনন হবে' - সলমন খুরশিদের বই বিক্রি বন্ধ করার আবেদন খারিজ আদালতের
বইতে উগ্র হিন্দুত্ববাদের সমালোচনা - কংগ্রেস নেতা সালমন খুরশিদের বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in