'অন্তর্বাস খুলতে বাধ্য করা' মহিলা নিট পরীক্ষার্থীদের ফের পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত এনটিএ-র

এজেন্সির তরফে জানানো হয়েছে, ক্ষতিগ্রস্ত মেডিকেল প্রার্থীরা যদি পুনরায় পরীক্ষা দিতে ইচ্ছুক হন তাহলে আগামী ৪ সেপ্টেম্বর তাঁরা অবশ্যই পরীক্ষা কেন্দ্রে উপস্থিত থাকবেন।
অন্তর্বাস খুলতে বাধ্য করা মহিলা নিট পরীক্ষার্থীদের ফের পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত এনটিএ-র
অন্তর্বাস খুলতে বাধ্য করা মহিলা নিট পরীক্ষার্থীদের ফের পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত এনটিএ-রপ্রতীকী ছবি

কেরালার কোল্লাম শহরে ন্যাশনাল এলিজিবিলিটি এন্ট্রাস পরীক্ষা (NEET)-র সময় একটি পরীক্ষাকেন্দ্রে প্রবেশের মুখে ছাত্রীদের অন্তর্বাস খুলতে বাধ্য করার অভিযোগ উঠে নিরাপত্তারক্ষীদের বিরুদ্ধে। যা নিয়ে তোলপাড় হয়েছিল কেরল সহ গোটা দেশ। এই ঘটনার পর পুনরায় পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নিল ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সি।

এজেন্সির তরফে জানানো হয়েছে, নির্যাতিত মেডিক্যাল প্রার্থীরা যদি পুনরায় পরীক্ষা দিতে ইচ্ছুক হন তাহলে তাঁদের পরীক্ষা নেওয়া হবে। আগামী ৪ সেপ্টেম্বর এই পরীক্ষা হবে। এ প্রসঙ্গে পড়ুয়াদের ই-মেল পাঠিয়েছে এনটিএ।

চলতি বছরের জুলাই মাসে কেরলের কোল্লামের চথামঙ্গলমের একটি পরীক্ষাকেন্দ্রে এই অভিযোগ উঠেছিল। যা ঘিরে অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে পরিস্থিতি। ছাত্রীদের অভিভাবকরা নিরাপত্তারক্ষীদের বিরুদ্ধে তীব্র আওয়াজ তোলেন। এক ছাত্রীর বাবা পুলিশে অভিযোগ দায়ের করে জানান যে, তাঁর মেয়ে-সহ কয়েক জন মহিলা নিট পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষাকেন্দ্রে ঢোকার আগে অন্তর্বাস খুলতে বলা হয়েছে। অভিযোগ, পরীক্ষাকেন্দ্রে ঢোকার আগে জোর করে তাঁদের অন্তর্বাস খোলানো হয়।

এই ঘটনায় ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫৪ (একজন মহিলাকে তাঁর শালীনতা ক্ষুন্ন করার অভিপ্রায়ে অপরাধমূলক বলপ্রয়োগ) এবং ৫০৯ (কোনও মহিলার শালীনতাকে অবমাননা করার উদ্দেশ্যে শব্দ, অঙ্গভঙ্গি বা কাজ) ধারায় মামলা রুজু করা হয়। অভিযুক্ত সাত জনকে গ্রেফতার করে কেরালা পুলিশ।

ঘটনার অন্যতম অভিযুক্ত ছিলেন মার থোমা ইনস্টিটিউট অফ আইটি-র ভাইস প্রিন্সিপাল (যে কলেজে গত মাসে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছিল) এবং NEET পরীক্ষা কেন্দ্রের সুপারিনটেনডেন্ট প্রিজি কুরিয়ান ইসাক এবং এনটিএ পর্যবেক্ষক ডঃ শামনাদ। এছাড়াও ধৃতদের মধ্যে কলেজের দুই মহিলা কর্মী এবং স্টার ট্রেনিং টেস্টিং এজেন্সি একাডেমির তিনজন কর্মী ছিলেন। যদিও পরে সকল অভিযুক্ত জামিন পেয়েছেন।

অভিযোগ খতিয়ে দেখতে NEET-এর সাথে যুক্ত তিন সদস্যের বিশেষ কমিটি গঠন করেছিল এনটিএ। চূড়ান্ত অবমাননার শিকার হওয়া মেয়েরা যে মানসিক যন্ত্রণা ভোগ করেছে সেই বিষয়ে তাঁদের রিপোর্ট জমা দিতে বলেন তদন্তকারীরা। সেই রিপোর্টের উপর ভিত্তি করেই পুনরায় কোল্লাম জেলার একটি নতুন কেন্দ্রে ঐচ্ছিক প্রার্থীদের পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এনটিএ।

অন্তর্বাস খুলতে বাধ্য করা মহিলা নিট পরীক্ষার্থীদের ফের পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত এনটিএ-র
BJP শাসিত কর্ণাটকের শিক্ষা দফতরে ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ, শিক্ষামন্ত্রীকে সরানোর দাবিতে চিঠি মোদীকে

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in