Bharat Jodo Yatra: রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বে আজ শুরু হচ্ছে শতাব্দীর 'দীর্ঘতম পদযাত্রা'

বুধবার বিকালে কন্যাকুমারীর ‘মহাত্মা গান্ধী মন্ডপমে’ এক অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন রাহুল গান্ধী। সেখানে রাহুলের হাতে 'ভারত জোড়ো যাত্রা' শুরুর জন্য জাতীয় পতাকা তুলে দেবেন তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী স্টালিন।
রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বে আজ শুরু হচ্ছে 'ভারত জোড়ো যাত্রা'
রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বে আজ শুরু হচ্ছে 'ভারত জোড়ো যাত্রা'

২০২৪-র লোকসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে 'ভারত জোড়ো যাত্রা' শুরু করছেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী। আজ, এই যাত্রা শুরু হবে কন্যাকুমারী থেকে। প্রায় ১৫০ দিনে ৩৫৭০ কিলোমিটারের দীর্ঘ এই যাত্রা শেষ হবে কাশ্মীরের রাজধানী শ্রীনগরে।

বুধবার সকালে, তামিলনাড়ুর শ্রীপেরুমবুদুরে বাবা রাজীব গান্ধীর স্মৃতিসৌধে যান রাহুল গান্ধী। এখানেই ১৯৯১ সালের ২১ মে আত্মঘাতী হামলায় প্রাণ হারান প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী।

বাবার স্মৃতিসৌধ পরিদর্শনের পর রাহুল গান্ধী টুইট করেন। তিনি লেখেন, ‘ঘৃণা ও বিভাজনের রাজনীতির কারণে আমি আমার বাবাকে হারিয়েছি। তবে আমি প্রিয় দেশকেও এর কাছে হারতে দেবো না। ঘৃণাকে জয় করবে ভালোবাসা। ভয়কে পরাজিত করবে আশা। আমরা একসাথে সবকিছু জয় করব।’

বিজেপির বিরুদ্ধে বিভাজনের রাজনীতি ও ক্ষমতার কেন্দ্রীকরণের অভিযোগ এনে রাহুল গান্ধী আগে জানিয়েছিলেন, দেশকে একত্রিত করার জন্য 'ভারত জোড়ো যাত্রা' তার কাছে 'তপস্যা'র মতো।

জানা যাচ্ছে, বুধবার বিকালে কন্যাকুমারীর ‘মহাত্মা গান্ধী মন্ডপমে’ এক অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী, তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী এম কে স্ট্যালিন, রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট এবং ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল। সেখানে রাহুলের হাতে 'ভারত জোড়ো যাত্রা' শুরুর জন্য জাতীয় পতাকা তুলে দেবেন এম কে স্টালিন।

৩৫৭০ কিলোমিটারের এই যাত্রাকে শতাব্দীর ‘দীর্ঘতম পদযাত্রা’ বলে অভিহিত করেছে কংগ্রেস। জানা যাচ্ছে, বুধবার বিকাল ৫ টা নাগাদ এই যাত্রার সূচনা হবে। এরপর, বৃহস্পতিবার সকাল ৭ টা থেকে এই যাত্রা শুরু হবে।

রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বে, আগামী ১৫০ দিনের মধ্যে ১২ টি রাজ্য এবং দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে যাত্রা করবেন কংগ্রেস নেতা-কর্মীরা। প্রতিদিন সকাল ৭ টা থেকে সন্ধ্যা ৬.৩০ টা পর্যন্ত হাঁটবেন তাঁরা।

দলীয় সূত্রে খবর, যেসকল রাজ্যরে উপর দিয়ে 'ভারত জোড়ো যাত্রা' হবে, সেখানে এই যাত্রার দায়িত্বে থাকবেন দলের রাজ্য সভাপতিবৃন্দ।

কংগ্রেসের তরফে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, এই 'জনসংযোগ কর্মসূচি'তে মূল্যস্ফীতি, মূল্যবৃদ্ধি ও বেকারত্বসহ বিভিন্ন সমস্যার কথা মানুষের কাছে তুলে ধরবে দল।

সিনিয়র কংগ্রেস নেতা জয়রাম রমেশ বলেন, এই যাত্রা ‘ভারতীয় রাজনীতির রূপ পরিবর্তন করবে। দলকে পুনরুজ্জীবিত করতে এটি একটি ঐতিহাসিক মুহূর্ত।’

দলের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী জানান, কংগ্রেস 'ভারত জোড়ো যাত্রা' দিয়ে ‘ইতিবাচক রাজনীতি’ শুরু করছে। এক ভিডিও বার্তায় দেশকে সমৃদ্ধির লক্ষে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে 'ভারত জোড়ো যাত্রায়' যোগ দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বে আজ শুরু হচ্ছে 'ভারত জোড়ো যাত্রা'
'Bharat Jodo Yatra': ভারতের রাজনীতিতে নতুন অধ্যায়ের সূচনা করবে ভারত জোড়ো যাত্রা - জয়রাম রমেশ

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in