RS Criminal Cases: রাজ্যসভার ৪০ শতাংশ সাংসদের নামে চলছে ফৌজদারি মামলা - ADR রিপোর্ট

যে ২৩ জনের বিরুদ্ধেই ফৌজদারি মামলা রয়েছে, তাতে বিজেপি’র ৯ জন সাংসদ, কংগ্রেসের ৪ জন সাংসদ রয়েছেন। বাকিরা অন্যান্য রাজনৈতিক দলের সদস্য।
RS Criminal Cases: রাজ্যসভার ৪০ শতাংশ সাংসদের নামে চলছে ফৌজদারি মামলা - ADR রিপোর্ট
গ্রাফিক্স - সুমিত্রা নন্দন

সম্প্রতি রাজ্যসভার ৫৭ জন সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে ৪০ শতাংশের নাম রয়েছে ‘অপরাধীদের তালিকায়’। মোট ২৩ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চলছে ফৌজদারি মামলা। নির্বাচন কমিশনে জমা দেওয়া হলফনামায় উঠে এসেছে এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য।

সম্প্রতি, অ্যাসোসিয়েশন ফর ডেমোক্রেটিক রিফর্মস (Association for Democratic Reforms) এবং ন্যাশনাল ইলেকশন ওয়াচ (National Election Watch) একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। সেখানে জানা গেছে, যে ২৩ জনের বিরুদ্ধেই ফৌজদারি মামলা রয়েছে, তাতে বিজেপি’র ৯ জন সাংসদ, কংগ্রেসের ৪ জন সাংসদ রয়েছেন। বাকিরা অন্যান্য রাজনৈতিক দলের সদস্য।

রিপোর্টে জানানো হয়েছে, নবনির্বাচিত রাজ্যসভার সংসদদের মধ্যে উত্তরপ্রদেশ থেকে ৬ জন, মহারাষ্ট্র এবং বিহার থেকে যথাক্রমে ৪ জন, তামিলনাড়ু থেক ৩ জন, তেলেঙ্গানা থেকে ২ জন এবং অন্ধ্রপ্রদেশ, ছত্তিশগড়, রাজস্থান এবং হরিয়ানা থেকে ১ জন করে সাংসদের নামে ফৌজদারি মামলা রয়েছে। সকলেই কমিশনকে দেয়া নির্বাচনী হলফনামায় নিজেদের নামে মামলার কথা জানিয়েছেন।

চলতি মাসে বিজেপির মোট ২২ জন রাজ্যসভার সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে ৯ জন বিরুদ্ধে রয়েছে ফৌজদারি মামলা। আবার কংগ্রেসের ৯ জন নতুন রাজ্যসভার সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন। এদের মধ্যে ৪ জন নিজেদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলার কথা স্বীকার করেছেন।

শুধু তাই নয়, তেলেঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সমিতি (TRS) ও রাষ্ট্রীয় জনতা দল (RJD)-এর ২ করে সাংসদ, যুবজনা শ্রমিকা রাইথু কংগ্রেস পার্টি (YSRCP), দ্রাবিদা মুননেত্রা কাজগম (DMK), সর্বভারতীয় আন্না দ্রাবিড় মুনেত্র কাজগম (AIADMK), সমাজবাদী পার্টি (SP), শিবসেনা (Shiv Sena), প্রতিটি দল থেকেই ১ জন করে সাংসদের নামে ফৌজদারি মামলা আছে।

এরমধ্যে আবার ১২ জনের নামে রয়েছে ‘গুরুতর ফৌজদারি মামলা’ (Serious Criminal Cases)। যাদের মধ্যে রয়েছেন-

১) YSRCP-এর ভেনুম্বাকা বিজয়া সাই রেড্ডি (Venumbaka Vijaya Sai Reddy)। তাঁর নামে ১১ টি গুরুতর ফৌজদারি মামলা (Serious IPC) আছে। মোট মামলার সংখ্যা- ১৯ টি।

২) Shiv Sena-র সঞ্জয় রাজারাম রাউত (Sanjay Rajaram Rau)। তাঁর নামে ৬ টি গুরুতর ফৌজদারি মামলা (Serious IPC) আছে। মোট মামলার সংখ্যা- ১২ টি।

৩) BJP-র ড. অনিল সুখদেওরাও বন্ডে (Dr. Anil Sukhdeorao Bonde)। তাঁর নামে ৫ টি গুরুতর ফৌজদারি মামলা (Serious IPC) আছে। মোট মামলার সংখ্যা- ৩২ টি।

৪) BJP-র ড. রাধা মোহন দাস আগরওয়াল (Dr. Radha Mohan Das Agarwal)। তাঁর নামে ৫ টি গুরুতর ফৌজদারি মামলা (Serious IPC) আছে।

৫) BJP-র ড. ধনঞ্জয় ভীমরাও মহাদিক (Dhananjay Bhimrao Mahadik)। তাঁর নামে ৩ টি গুরুতর ফৌজদারি মামলা (Serious IPC) আছে। মোট মামলার সংখ্যা- ৯ টি।

৬) Congress-এর রঞ্জিত রঞ্জন (Ranjeet Ranjan)। তাঁর নামে ৩ টি গুরুতর ফৌজদারি মামলা (Serious IPC) আছে। মোট মামলার সংখ্যা- ৮ টি।

৭) AIADMK-র থিরু সি ভি শানমুগাম (C. V. Shanmugam)। তাঁর নামে ২ টি গুরুতর ফৌজদারি মামলা (Serious IPC) আছে। মোট মামলার সংখ্যা- ৮ টি।

8) Congress-এর মহম্মদ ইমরান খান (Mohd. Imaran Khan)। তাঁর নামে ২ টি গুরুতর ফৌজদারি মামলা (Serious IPC) আছে। মোট মামলার সংখ্যা- ৪ টি।

৯) Congress-এর পি চিদম্বরম (P. Chidambaram)। তাঁর নামে ১ টি গুরুতর ফৌজদারি মামলা (Serious IPC) আছে। মোট মামলার সংখ্যা- ৪ টি।

১০) RJD-র মিশা ভারতী (Misha Bharti)। তাঁর নামেও ১ টি গুরুতর ফৌজদারি মামলা (Serious IPC) আছে। মোট মামলার সংখ্যা- ৪ টি।

১১) BJP- র বাবু রাম নিশাদ (Babu Ram Nishad)। তাঁর নামেও ১ টি গুরুতর ফৌজদারি মামলা (Serious IPC) এবং মোট ২ টি মামলা আছে।

১২) SP-র জাভেদ আলি খান (Javed Ali Khan)। তাঁর নামেও ১ টি গুরুতর ফৌজদারি মামলা (Serious IPC) আছে।

রাজ্যসভা- ভারতীয় সংসদের উচ্চকক্ষ। সেখানে প্রতিনিধিত্ব করার জন্য বিভিন্ন রাজনৈতিক দল যাদেরকে নির্বাচিত করেছে- তাঁদের মধ্যে বেশিরভাগই কোটিপতি।

জানা যাচ্ছে, ৫৭ জন সাংসদের মধ্যে ৫৩ জন কোটিপতি (millionaire)। সম্পদের তালিকায় সকলের শীর্ষে রেখেছেন TRS সাংসদ বান্দি পার্থ সারধি (Bandi Partha Saradhi)। তাঁর মোট স্থাবর এবং অস্থাবর সম্পত্তির মূল্য ৫ হাজার ৩০০ কোটি টাকা।

দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন, সমাজবাদী পার্টির সমর্থনে নির্দল প্রার্থী কপিল সিবাল (Kapil Sibal)। তাঁর মোট স্থাবর এবং অস্থাবর সম্পত্তির মূল্য ৬০৮ কোটি টাকা।

তৃতীয় স্থানে রয়েছেন পাঞ্জাব থেকে নির্বাচিত রাজ্যসভার সাংসদ, আম আদমি পার্টির (AAP) বিক্রমজিৎ সিং সাহনি (Aam Aadmi Party)। তাঁর মোট স্থাবর এবং অস্থাবর সম্পত্তির মূল্য ৪৯৮ কোটি টাকা।

এছাড়া, রাজ্যসভার ৮ জন সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন, যাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা অষ্টম থেকে দাদ্বশ শ্রেণীর মধ্যে। সাধারণ গ্রাজুয়েট পাশ ১১ জন, প্রফেশনাল গ্রাজুয়েট পাশ ১২ জন। এছাড়া, পোস্ট গ্রাজুয়েট ১৭ জন এবং ডক্টরেট ৭ জন সাংসদ।

RS Criminal Cases: রাজ্যসভার ৪০ শতাংশ সাংসদের নামে চলছে ফৌজদারি মামলা - ADR রিপোর্ট
TMC: ২০২০-২১ সালে তৃণমূলের আয়ের থেকে ব্যয় বেশি - ADR রিপোর্ট

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in