BJP শাসিত NDA জমানায় বিরোধীদের উপর তদন্তে CBI-এর সক্রিয়তা বেড়েছে ৯৫ শতাংশ

বিজেপি নেতৃত্বাধীন NDA জোটের শাসনামলে ১২৪ জন বিশিষ্ট রাজনীতিবিদদের বিরুদ্ধে তদন্ত চালিয়েছে সিবিআই। এর মধ্যে ১১৪ জন বিভিন্ন বিরোধী দলের। সবথেকে বেশি সিবিআই তদন্তের মুখোমুখি হয়েছেন TMC-র নেতারা।
বিরোধীদের উপর তদন্তে CBI-এর সক্রিয়তা বেড়েছে ৯৫ শতাংশ
বিরোধীদের উপর তদন্তে CBI-এর সক্রিয়তা বেড়েছে ৯৫ শতাংশগ্রাফিক্স - সুমিত্রা নন্দন

২০১৪ সালের পর অতি-সক্রিয় হয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই (CBI)। গত ৮ বছরে, বিরোধী দলের নেতানেত্রীদের বিরুদ্ধে তাঁদের তদন্ত বেড়েছে ৯৫ শতাংশ।

সম্প্রতি, একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস। তাতে দেখা যাচ্ছে, বিজেপি নেতৃত্বাধীন NDA জোটের শাসনামলে ১২৪ জন বিশিষ্ট রাজনীতিবিদদের বিরুদ্ধে তদন্ত চালিয়েছে সিবিআই। এর মধ্যে ১১৪ জন বিভিন্ন বিরোধী দলের।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, গত ১৮ বছরে প্রায় ২০০ জনের বেশি রাজনীতিবিদদের বিরুদ্ধে মামলা, গ্রেপ্তার, তল্লাশি অভিযান বা জিজ্ঞাসাবাদ করেছে সিবিআই। এর মধ্যে, ৮০ শতাংশ তদন্ত হয়েছে বিরোধী দলের বিরুদ্ধে।

২০০৪ থেকে ২০১৪ সাল ছিল কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন UPA জোট। এই সময়কালে সিবিআই ৬০ শতাংশ তদন্ত চালিয়েছে বিরোধী রাজনীতিবিদদের বিরুদ্ধে। অন্যদিকে, ২০১৪ থেকে ২০২২ সাল, গত ৮ বছরে সেই মাত্রা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯৫ শতাংশ।

তথ্য অনুসারে, UPA আমলে মোট ৭২ জন গুরুত্বপূর্ণ রাজনীতিবিদের বিরুদ্ধে তদন্ত চালিয়েছে সিবিআই। এর মধ্যে ২৯ জন ছিলেন কংগ্রেস বা UPA জোটের রাজনীতিবিদ। বাকি, ৪৩ জন বিরোধী নেতার মধ্যে ১২ জন ছিলেন বিজেপি’র।

এই তালিকায় ছিলেন - বর্তমান কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং তৎকালীন গুজরাটের মন্ত্রী অমিত শাহ (সোহরাবুদ্দিন এনকাউন্টার মামলা), কর্ণাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বি এস ইয়েদিউরপ্পা, জি জে রেড্ডি, প্রাক্তন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী জর্জ ফার্নান্ডেজ, প্রমোদ মহাজন প্রমুখ।

এরপর, NDA আমলে বিরোধী নেতাদের বিরুদ্ধে সিবিআই তদন্তের সংখ্যা বেড়েছে। মাত্র ছয়জন বিজেপি নেতা তদন্তের মুখোমুখি হয়েছেন। সবথেকে বেশি সিবিআই তদন্তের মুখোমুখি হয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস (TMC)-এর নেতারা। প্রায় ৩০ জন TMC নেতানেত্রীদের বিরুদ্ধে মামলা চালাচ্ছে সিবিআই।

বিরোধী-তদন্তের মধ্যে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে কংগ্রেস। তাদের ২৬ জন নেতার বিরুদ্ধে মামলা চালাচ্ছে সিবিআই। এই তালিকায় রয়েছেন - কংগ্রেসের অন্তর্বর্তীকালীন সভাপতি সোনিয়া গান্ধী, রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট, মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথ৷

TMC এবং কংগ্রেসের পরে রয়েছে লালু প্রসাদ যাদবের দল RJD এবং নবীন পট্টনায়কের BJD। প্রতিটি দলের ১০ জন করে নেতানেত্রী রয়েছেন সিবিআই রাডারে। এরপরে রয়েছে - YSRCP (৬ জন), BSP (৫ জন), TDP (৫ জন), AAP (৪ জন), SP (৪ জন), AIADMK (৪ জন), CPIM (৪ জন), NCP (৩ জন), NC (২ জন), DMK (২ জন), PDP এবং TRS-র ১ জন রাজনীতিবিদ।

With Inputs from NewsClick

বিরোধীদের উপর তদন্তে CBI-এর সক্রিয়তা বেড়েছে ৯৫ শতাংশ
J&K: মোদীর 'চোখের মণি' সাজ্জাদ লোন, বিস্ফোরক মন্তব্য সত্যপাল মালিকের
বিরোধীদের উপর তদন্তে CBI-এর সক্রিয়তা বেড়েছে ৯৫ শতাংশ
কৃষি সংকট মোকাবিলায় আপনি ব্যর্থ, বাধ্য হচ্ছি আত্মহত্যায় - মোদীকে চিঠি লিখে আত্মঘাতী কৃষক

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in