PM-Kisan: ৩ বছরে বঞ্চিত ৮ কোটি কৃষক! 'মোদীর নিষ্ঠুর নির্বাচনী জুমলা', কটাক্ষ ইয়েচুরির

AIKS সভাপতি ধাওলে বলেন, বোঝা যাচ্ছে ধীরে ধীরে এই প্রকল্পটি তুলে দেওয়ার মতলবে আছে মোদী সরকার। আসলে কৃষকদের আসল সমস্যা থেকে নজর ঘোরাতেই এই প্রকল্প আনা হয়েছিল। কিন্তু এটি একটি জুমলা ছাড়া আর কিছুই না।
PM-Kisan প্রকল্পে ৩ বছরে বঞ্চিত ৮ কোটি কৃষক
PM-Kisan প্রকল্পে ৩ বছরে বঞ্চিত ৮ কোটি কৃষকফাইল ছবি

২০১৯ থেকে ২০২২, গত তিন বছরে কেন্দ্রের 'প্রধানমন্ত্রী কিষান সম্মান নিধি প্রকল্প' (PM-KISAN)-এর সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয়েছেন দেশের প্রায় ৮ কোটি কৃষক। মোদী সরকার ব্যাপকহারে অর্থ বরাদ্দ কমিয়ে দেওয়ায় এই ঘটনা ঘটেছে। কংগ্রেস নেতা কানাইয়া কুমারের RTI-এর মামলার জবাবে আদালতে হলফনামা দিয়ে একথা জানিয়েছে কেন্দ্রীয় কৃষি মন্ত্রক (The Agriculture Ministry)।

কেন্দ্রীয় কৃষি মন্ত্রক জানিয়েছে, ২০১৯ সালে ফেব্রুয়ারি মাসে PM-KISAN চালু করে কেন্দ্র। সেসময় সারা দেশের প্রায় ১১ কোটি ৮৪ লক্ষ কৃষক পরিবার এই প্রকল্পের প্রথম কিস্তির টাকা পান। তারপর থেকে এখনও পর্যন্ত ১১ টি কিস্তির টাকা টাকা পেয়েছেন কৃষকেরা।

শুধু তাই নয়, কৃষি মন্ত্রকেরই দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ২০২২ সালের মে-জুন মাসে পিএম কিষান প্রকল্পের তহবিল থেকে দেওয়া ১১ তম কিস্তির অর্থ প্রাপক কৃষক পরিবারের সংখ্যা ৬৭ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ৮৭ লক্ষতে।

২০১৯ সালের লোকসভা  নির্বাচনের আগে এই প্রকল্প চালুর সময় প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, দেশের সমস্ত প্রকৃত কৃষকদের এই প্রকল্পের আওতায় নিয়ে আসা হবে। বছরে ৩ টি কিস্তিতে মোট ৬০০০ হাজার টাকা দেওয়া হবে কৃষক পরিবারগুলিকে। অর্থাৎ প্রতিটি কিস্তিতে ২ হাজার টাকা। অথচ, ভোট মেটার ৩ বছরের মধ্যে দেখা যাচ্ছে বরাদ্দকৃত অর্থের পরিমাণ ধাপে ধাপে কমিয়ে দিয়েছে মোদী সরকার।

কৃষি মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুসারে জানা যাচ্ছে, যষ্ঠ কিস্তিতে এই প্রকল্পের টাকা পেয়েছিল ৯ কোটি ৮৭ লক্ষ কৃষক পরিবার। ৭ ম কিস্তিতে এই সংখ্যা নেমে দাঁড়ায় ৯ কোটি ৩০ লক্ষতে। ৮ ম কিস্তিতে আরও কমে হয় ৮ কোটি ৫৯ লক্ষ। নবম কিস্তিতে হয় ৭ কোটি ৬৬ লক্ষ। দশম কিস্তিতে এই প্রকল্পের প্রাপকদের সংখ্যা আরও নেমে দাঁড়ায় ৬ কোটি ৬৪ লক্ষতে।

বঞ্চনার এই তথ্য সামনে আসার পরেই তীব্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে বিভিন্ন মহলে। সিপিআই (এম) সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি টুইটারে জানিয়েছেন, 'এটাই হলো নির্বাচনের নিষ্ঠুর 'জুমলা'। ২০১৯ সালের ভোটের আগে মোদী ঘোষণা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী কিষান প্রকল্পে তিন কিস্তিতে ৬ হাজার টাকা দেওয়া হবে। চমকের রাজনীতিতে অভ্যস্ত মোদী ভোটারদের মন জয় করতে এমনই প্রকল্পের কথা ঘোষণা করেন। কিন্তু ২০১৯ থেকে ২০২২ সালের জুন মাসের মধ্যে ৬৭ শতাংশ কমে যায় গ্রাহকের সংখ্যা।'

একইসঙ্গে, ইয়েচুরি দাবি করেন, 'এখনও ফসলের ন্যুনতম সহায়ক মূল্যের (MSP) আইনি অধিকারের বিষয়ে কোনও কথা বলেননি মোদী। অবিলম্বে, মোদী সরকারকে সি২+৫০ শতাংশ হারে ফসলের এমএসপি চালু করার ক্ষেত্রে আইনি অধিকার দেওয়ার বিষয়টি ঘোষণা করতে হবে।'

এদিকে, দেশের কৃষকদের প্রতি মোদী সরকারের এই আচরণের তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন সারা ভারত কৃষক সভার (AIKS) সভাপতি অশোক ধাওলে।

তিনি বলেন, কৃষকদের প্রতি সরকারের এই আচরণ অত্যন্ত হতাশাজনক। ধাওলে বলেন, ২০২২ সালের তথ্য অনুযায়ী দুই তৃতীয়াংশ কৃষক পরিবারই এই প্রকল্পের টাকা পায়নি। এই প্রকল্পের সুবিধাপ্রাপ্ত পরিবারগুলির সংখ্যা কেনও কমে গেল তার পিছনে যুক্তিযুক্ত কারণও দেখাতে পারছে না কেন্দ্রীয় সরকার।

ধাওলে আরও বলেন, এর থেকেই বোঝা যাচ্ছে ধীরে ধীরে এই প্রকল্পটি তুলে দেওয়ার মতলবে আছে মোদী সরকার। এই প্রকল্প কখনই এমএসপি (MSP) আইনি অধিকারের বিকল্প নয়। আসলে কৃষকদের আসল সমস্যা থেকে নজর ঘোরাতেই প্রকল্প এনেছিল মোদী সরকার। কিন্তু তা আরও একটি জুমলা ছাড়া আর কিছুই না।

PM-Kisan প্রকল্পে ৩ বছরে বঞ্চিত ৮ কোটি কৃষক
Karnataka: চিকমাগালুরে গ্রামবাসীদের হাতে প্রহৃত বিজেপি বিধায়ক, গ্রেপ্তার ১০
PM-Kisan প্রকল্পে ৩ বছরে বঞ্চিত ৮ কোটি কৃষক
Gujarat Assembly Polls 22: দলীয় নির্দেশ অমান্য করে নির্দল প্রার্থী, সাসপেন্ড ৭ বিদ্রোহী বিজেপি নেতা

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in