‘রাজাপক্ষে, তোমাদের দিন শেষ’, হুংকার শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন ক্রিকেটার সনৎ জয়সূর্য, সাঙ্গাকারার

জয়সূর্য লিখেছেন, ‘কখনও ভাবিনি যে এই ধরনের গুণ্ডামি করা হবে নিরপরাধ বিক্ষোভকারীদের উপর। পুলিশকে অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে তারা দুর্নীতিবাজ রাজনীতিবিদদের নয়, এই দেশের জনসাধারণকে রক্ষা করার জন্য রয়েছে।’
‘রাজাপক্ষে, তোমাদের দিন শেষ’, হুংকার শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন ক্রিকেটার সনৎ জয়সূর্য, সাঙ্গাকারার
সনৎ জয়সূর্য , সঙ্গকারাফাইল চিত্র - সংগৃহীত

হিংসার আগুনে পুড়ছে দেশ। নিহত ও আহতের সংখ্যা দ্রুত গতিতে বাড়ছে। আর তা দেখে নিরব থাকতে পারেননি শ্রীলঙ্কা-র প্রাক্তন ক্রিকেটার সনৎ জয়সূর্য, কুমার সঙ্গকারা এবং মাহেলা জয়বর্ধনে।। শাসকদল ও পুলিশ প্রশাসনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন তাঁরা। সোমবার রাতেই নিজেদের টুইট বার্তায় তাঁরা রাজাপক্ষে পরিবারকে ‘গুণ্ডা’ বলে তোপ দেগেছেন।

জানা যাচ্ছে, শ্রীলঙ্কা প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপক্ষে এবং ইস্তফা দেওয়ার পরও প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপক্ষের বিরুদ্ধে টুইট করেছেন প্রাক্তন ক্রিকেটার সনৎ জয়সূর্য। তিনি লিখেছেন, ‘আমি কখনও ভাবিনি যে এই ধরনের গুণ্ডামি করা হবে নিরপরাধ বিক্ষোভকারীদের উপর। পুলিশকে অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে তারা দুর্নীতিবাজ রাজনীতিবিদদের নয়, এই দেশের জনসাধারণকে রক্ষা করার জন্য রয়েছে।’ তিনি আরও লিখেছেন, ‘রাজপক্ষে, তোমাদের দিন শেষ।’

এদিন সরকারের পাশে দাঁড়ানো বিক্ষোভকারীদের ‘গুণ্ডা’ বলেও অভিহিত করেছেন জয়সূর্যের সতীর্থ সঙ্গকারা এবং জয়বর্ধনেও। এক টুইট বার্তায় জয়বর্ধনে বিক্ষোভকারীদের তোপ দেগে লিখেছেন, ‘এই গুণ্ডারা আজ সকালে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনে জমায়েত হয়। নিরপরাধ শান্তিপূর্ণ সরকারবিরোধী বিক্ষোভকারীদের আক্রমণের জন্যই বড় সংখ্যায় এসেছিল তারা। এটি কীভাবে হতে পারে? পুলিশ এবং অন্যরা দাঁড়িয়ে এই গুন্ডামি দেখছিল।’

অন্য এক টুইটে সঙ্গকারা লিখেছেন, ‘আপনার (মাহিন্দা রাজাপক্ষে) সমর্থকরাই হিংসা ছড়িয়েছে। শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীদের আক্রমণ করার আগে আপনার অফিসে এসেছিল গুণ্ডারা।’

কয়েক মাস আগে থেকেই শ্রীলঙ্কায় প্রায় অন্ধকার নেমে এসেছে। তেলের অভাবে প্রতিদিন প্রায় ১৩ ঘণ্টার জন্য বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ ছিল শ্রীলঙ্কায়। সঙ্গে যুক্ত হয়েছিল খাদ্য পণ্য ও ওষুধ সঙ্কট। এই অবস্থায় ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে রাস্তায় নেমেছে শ্রীলঙ্কার সাধারণ মানুষ।

সূত্রের খবর, সোমবার রাতে রাজাপক্ষের বিরোধী শিবিরের সমর্থকেরা প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনের সামনে বিক্ষোভ দেখায়। বাসভবনের ভিতরে ঢোকার চেষ্টা করে তাঁরা। পরে এই বিক্ষোভকারীদের উপর আক্রমন শানায় মাহিন্দা রাজাপক্ষের সমর্থকেরা। দুই পক্ষের মধ্যে তুমুল সংঘর্ষ বাঁধে। ধীরে ধীরে এই সংঘর্ষ অন্যত্রও ছড়িয়ে পড়ে। এতে শ্রীলঙ্কার এক সাংসদসহ ৫ জন প্রান হারান। আহত হন দুই শতাধিক মানুষ। আর এই পরিস্থিতি নিয়ে নিজেদের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন ক্রিকেটারা।

সনৎ জয়সূর্য , সঙ্গকারা
Sri Lanka: হিংসার আগুনে পুড়ছে শ্রীলঙ্কা, নিহত ৫, আহত ২০০-র বেশি

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.