Afghanistan: শিক্ষা, চাকরির অধিকার নেই - তালিবানি ফতোয়ার বিরুদ্ধে কাবুলে মহিলাদের বিক্ষোভ

Afghanistan: শিক্ষা, চাকরির অধিকার নেই - তালিবানি ফতোয়ার বিরুদ্ধে কাবুলে মহিলাদের বিক্ষোভ

তালিবানিদের ভারচু অ্যান্ড ভাইস মন্ত্রক মহিলাদের উদ্দেশ্যে একটি নতুন নির্দেশ জারি করেছে। ওই নির্দেশে বলা হয়েছে, মহিলারা কোনো দীর্ঘ দূরত্বে যাতায়াত করলে তাঁদের সঙ্গে একজন পুরুষ আত্মীয় অবশ্যই থাকতে হবে।

আফগানিস্তানে তালিবান-নেতৃত্বাধীন সরকার কর্তৃক আরোপিত বেশ কয়েকটি নতুন বিধিনিষেধের পরিপ্রেক্ষিতে, বহু সংখ্যক মহিলা তাঁদের শিক্ষা, কর্মসংস্থান এবং সামাজিক স্বাধীনতার অধিকার রক্ষার দাবি জানিয়ে কাবুলে বিক্ষোভ দেখালেন।

সাম্প্রতিক সময়ে, তালিবানিদের ভারচু অ্যান্ড ভাইস মন্ত্রক মহিলাদের উদ্দেশ্যে একটি নতুন নির্দেশ জারি করেছে। টোলো নিউজের প্রতিবেদন অনুসারে, ওই নির্দেশে বলা হয়েছে, মহিলারা কোনো দীর্ঘ দূরত্বে যাতায়াত করলে তাঁদের সঙ্গে একজন পুরুষ আত্মীয় অবশ্যই থাকতে হবে এবং তাঁদের মাথা ও মুখ ঢেকে হিজাব পরতে হবে। এই নির্দেশিকায় যানবাহনে গান বাজানোও নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

এই নির্দেশে বিভিন্ন শো-রুমে মহিলা পুতুলের মাথা না দেখানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, এটি ইসলামী শরিয়া আইনের পরিপন্থী।

মঙ্গলবার বিক্ষোভ চলাকালীন, অংশগ্রহণকারী মহিলারা শ্লোগান তোলেন "আমরা ক্ষুধার্ত মানুষের কণ্ঠস্বর" এবং "আমরা জেগে আছি, আমরা বৈষম্যকে ঘৃণা করি।" বিক্ষোভকারীরা বলেন, তালিবানিরা এই ধরনের বিধিনিষেধ আরোপ করে মহিলাদের সমাজ থেকে দূরে রাখছে।

এক মহিলা বিক্ষোভকারী উইদা টোলো নিউজকে জানান, "আমরা জরুরী মুহূর্তে বাইরে যাওয়ার জন্য একজন আত্মীয়কে কীভাবে খুঁজে পাব? তাঁরা আরও বলেন, 'আপনাদের খাবারের জন্য আমরা দায়ী নই', তাই আমাদের বেতন দিন এবং আমরা খেতে পারি, আমরা দুই দশক আগের মহিলা নই, আমরা থাকব না। নীরব," টোলো নিউজ প্রতিবাদী উইদাকে উদ্ধৃত করে বলেছে।

শায়েস্তা নামের এক বিক্ষোভকারী বলেন, "আমরা মহিলাদের উপর আরোপিত বিধিনিষেধের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ার জন্য একত্রিত হয়েছিলাম; আমাদের স্কুল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে, কাজের সুযোগ কেড়ে নেওয়া হয়েছে। এখন তারা আমাদেরকে একা ঘর থেকে বের না হওয়ার নির্দেশ দিচ্ছে, তারা ইসলাম বর্ণিত অধিকারের কথা বলছে। ইসলাম কি এমন আদেশ দেয়? একটা জাতিকে ক্ষুধার্ত থাকতে হবে, ইসলাম কি মেয়েদের শিক্ষা বন্ধ করতে বলে?

বিক্ষোভকারীরা আফগান মহিলাদের অবহেলা না করার জন্যও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান। বিক্ষোভকারী জাহরা টোলো নিউজকে বলেন, "আমরা সমাজের অর্ধেক, আমরা মানুষ, আমাদের শিক্ষা এবং কাজ করার অধিকার আছে, আমি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এই সরকারকে স্বীকৃতি না দেওয়ার জন্য বলছি।"

তালেবান বাহিনী বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে বাতাসে গুলি চালানোয় এই বিক্ষোভ বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি।

- with Agency Inputs

Afghanistan: শিক্ষা, চাকরির অধিকার নেই - তালিবানি ফতোয়ার বিরুদ্ধে কাবুলে মহিলাদের বিক্ষোভ
Afghanistan: শিক্ষা থেকে বঞ্চিত ১ কোটি শিশু, হুমকির মুখে মানবাধিকার - উদ্বিগ্ন রাষ্ট্রসংঘ

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in