ছবি প্রতীকী
ছবি প্রতীকী গ্রাফিক্স - আকাশ

Lok Sabha Polls 24: রাজ্য ভোটদানের হার ৭৫.৬৬ শতাংশ, শীর্ষে বোলপুর

People's Reporter: চতুর্থ দফায় পশ্চিমবঙ্গের আটটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ। সোমবার সকাল ৭টা থেকে ভোট চলছে - বোলপুর, বীরভূম, বর্ধমান পূর্ব, বর্ধমান দুর্গাপুর, কৃষ্ণনগর, রানাঘাট, বহরমপুর এবং আসানসোলে।

বিকাল ৫টা পর্যন্ত রাজ্যে ভোটদানের হার ৭৫.৬৬ শতাংশ

চতুর্থ দফার নির্বাচনে রাজ্যের আটটি লোকসভা কেন্দ্রের বিকেল ৫টা পর্যন্ত সামগ্রিক ভোটদানের হার ৭৫.৬৬ শতাংশ। নির্বাচন কমিশন সূত্রে খবর, সব থেকে বেশি ভোট পড়েছে বোলপুরে, ৭৭.৭৭ শতাংশ। এরপর রয়েছে রানাঘাট, সেখানে ভোট পড়েছে ৭৭.৪৬ শতাংশ। বহরমপুরে ৭৫.৩৬ শতাংশ ভোট পড়েছে। বীরভূমে ৭৫.৪৫ শতাংশ, বর্ধমান দুর্গাপুরে ৭৫.০২ শতাংশ, কৃষ্ণনগরে ৭৭.২৭ শতাংশ, বর্ধমান পূর্বে ৭৭.৩৬ শতাংশ এবং আসানসোলে ৬৯.৪৩ শতাংশ ভোট পড়েছে।

বহরমপুরে কান কাটল তৃণমূল কর্মীর, অভিযুক্ত কংগ্রেস

বহরমপুরের নওদায় কংগ্রেসের হামলায় এক তৃণমূল কর্মীর কান কাটল বলে অভিযোগ উঠেছে। আহত তৃণমূল কর্মীর নাম মোহাম্মদ হাসিবুল। নওদার মাড্ডা গ্রাম পঞ্চায়েতের দলুয়া গ্রামের বাসিন্দা তিনি। তৃণমূলে ভোট দেওয়ার ‘অপরাধে’ তাঁর উপর হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ। বর্তমানে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

ছাপ্পার অভিযোগ তুলে কমিশনকে চিঠি কংগ্রেসের

বহরমপুরে কোন কোন বুথে ছাপ্পা হয়েছে জানিয়ে কমিশনকে চিঠি দিয়েছে কংগ্রেস। সেই বুথে পুনর্নির্বাচনের দাবি জানানো হয়েছে।

বহরমপুরের সালারে প্রিসাইডিং অফিসারকে সরাল কমিশন

ভরতপুরের শেখ পাড়ার সালার ইস্ট প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১৬১ নম্বর বুথে প্রিসাইডিং অফিসারকে সরাল নির্বাচন কমিশন। প্রিসাইডিং অফিসারের সামনেই দেদার ছাপ্পা দিচ্ছিলেন তৃণমূল এজেন্ট। সংবাদমাধ্যমের ক্যামেরাতে ধরা পড়ে সমস্ত ঘটনা। কংগ্রেসের অভিযোগের ভিত্তিতে প্রিসাইডিং অফিসারকে সরিয়েছে কমিশন। (বিস্তারিত পড়ুন)

মন্তেশ্বরের পর কালনাতে ফের দিলীপ ঘোষের কনভয়ে হামলা 

মন্তেশ্বরের পর কালনাতে ফের দিলীপ ঘোষের কনভয়ে হামলার ঘটনা ঘটলো। তাঁর গাড়ি লক্ষ্য করে ইট ছোড়া হয়েছে। ভাঙচুর করা হয় গাড়ির কাচ। ইটের আঘাতে দিলীপ ঘোষের দুই নিরাপত্তা রক্ষী গুরুতর জখম হয়েছেন। অভিযুক্ত তৃণমূল।

দুপুর ১টা পর্যন্ত রাজ্যে ভোটদানের হার ৫১.৮৭ শতাংশ

চতুর্থ দফার নির্বাচনে রাজ্যের আটটি লোকসভা কেন্দ্রের দুপুর ১টা পর্যন্ত সামগ্রিক ভোটদানের হার ৫১.৮৭ শতাংশ। নির্বাচন কমিশন সূত্রে খবর, বহরমপুরকে ছাপিয়ে সব থেকে বেশি ভোট পড়েছে বর্ধমান পূর্বে, ৫৫.৮৭ শতাংশ। বোলপুরে ভোট পড়েছে ৫৪.৮১ শতাংশ। বীরভূমে ৪৯.৬৩ শতাংশ, বহরমপুরে ৫২.২৭ শতাংশ, বর্ধমান দুর্গাপুরে ৫০.৩০ শতাংশ, কৃষ্ণনগরে ৪৯.৭২ শতাংশ, রানাঘাটে ৫২.৭০ শতাংশ এবং আসানসোলে ৪৯.৫৫ শতাংশ ভোট পড়েছে।

মন্তেশ্বরে বাঁশ উঁচিয়ে দিলীপ ঘোষকে বাধা তৃণমূলের

রণক্ষেত্র মন্তেশ্বর। তৃণমূলের বিক্ষোভের মুখে পড়লেন বিজেপি প্রার্থী দিলীপ ঘোষ। কেউ কেউ গাড়ির সামনে শুয়ে পড়েন। তাঁর কনভয়ে কিছু গাড়ির কাচ ভাঙা হয়েছে। এলাকায় বিশাল পুলিশ বাহিনী। রিপোর্ট চাইল কমিশন।

পূর্ব বর্ধমানের মেমারিতে ভোট বয়কট

ভোট বয়কট করেছেন পূর্ব বর্ধমানের মেমারির বাগিলা গ্রাম পঞ্চায়েতের দিলালপুর গ্রামের বাসিন্দারা। পাকা সেতু এবং রাস্তার দাবিতে ভোট বয়কট করেছেন তাঁরা। ভোট ঘোষণা হওয়ার পরই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। কোনও রাজনৈতিক দলকে প্রচার করতেও দেওয়া হয়নি সেখানে। 

শান্তিনিকেতনে এক ঘণ্টা ধরে বন্ধ ভোটগ্রহণ

শান্তিনিকেতনের লোহারগ্রামে ভুয়ো ভোট দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। পোলিং এজেন্ট বিষয়টি ধরে ফেলার পর গোলমাল হয়। এক ঘণ্টা ধরে বন্ধ রয়েছে ভোটগ্রহণ। এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশবাহিনী।

বীরভূমে ভোট চলাকালীন প্রিসাইডিং অফিসারকে সরাল কমিশন

ভোট চলাকালীন বীরভূমের ইলামবাজারের ২৫ নম্বর বুথ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল প্রিসাইডিং অফিসারকে। ওই বুথে তৃণমূলের বিরুদ্ধে ভোটারদের প্রভাবিত করার অভিযোগ ওঠে। ওয়েব কাস্টিং ব্যবস্থায় তা দেখে নির্বাচন কমিশনও। এক ব্যক্তিকে বারবার বুথে ঢুকে ভোটারদের প্রভাবিত করতে দেখা যায়। প্রিসাইডিং অফিসার কোনও বাধা না দেওয়ায় তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিল কমিশন। (বিস্তারিত পড়ুন)

বহরমপুরে পরিস্থিতি সামাল দিতে তৃণমূল কর্মীকে সপাটে চড় পুলিশের!

বহরমপুরের বড়ঞার হরিবাটি শিশুশিক্ষা কেন্দ্রের ৫১ ও ৫২ নম্বর বুথে কংগ্রেস এজেন্টদের বসতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই দলের মধ্যে ধস্তাধস্তি শুরু হয়। পরিস্থিতি সামাল দিতে এক তৃণমূল কর্মীকে সপাটে চড় মারেন এক পুলিশ আধিকারিক বলে জানা গেছে। (বিস্তারিত পড়ুন)

বেলা ১১টা পর্যন্ত রাজ্যে ভোটদানের হার ৩২.৭৮ শতাংশ

চতুর্থ দফার নির্বাচনে রাজ্যের আটটি লোকসভা কেন্দ্রের বেলা ১১'টা পর্যন্ত সামগ্রিক ভোটদানের হার ৩২.৭৮ শতাংশ। নির্বাচন কমিশন সূত্রে খবর সব থেকে বেশি ভোট পড়েছে বহরমপুরে, ৩৫.৫৩ শতাংশ। বোলপুরে ভোট পড়েছে ৩৫.২২ শতাংশ। বীরভূমে ৩০.৪৫ শতাংশ, বর্ধমান পূর্বে ৩৩.৮২ শতাংশ, বর্ধমান দুর্গাপুরে ৩১.৪১ শতাংশ, কৃষ্ণনগরে ৩২.৫৯ শতাংশ, রানাঘাটে ৩৩.২৩ শতাংশ এবং আসানসোলে ২৯.৯৯ শতাংশ ভোট পড়েছে।