উজবেকিস্তানে শিশু মৃত্যুর জের, ভারতীয় কফ সিরাপের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি WHO-র

নির্দিষ্ট কারণেই উত্তরপ্রদেশের নয়ডার ম্যারিয়ন বায়োটেকের তৈরি অ্যাম্ব্রোনল (AMBRONOL) ও ডক-১ (DOK-1) সিরাপ দুটি উজবেকিস্তানের শিশুদের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে।
নিষিদ্ধ ভারতীয় কাফ সিরাপ
নিষিদ্ধ ভারতীয় কাফ সিরাপগ্রাফিক্স - সুমিত্রা নন্দন

ভারতের ম্যারিয়ন বায়োটেকের তৈরি করা কাফ সিরাপের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। ওই সংস্থার তৈরি কফ সিরাপ খেয়েই প্রাণ হারিয়েছিল ১৮ জন শিশু।

বুধবার হু-র তরফ থেকে বিবৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, সিরাপ দুটির গুণমান পরীক্ষা করা হয়। তাতে রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। তাই নির্দিষ্ট কারণেই উত্তরপ্রদেশের নয়ডার ম্যারিয়ন বায়োটেকের তৈরি অ্যাম্ব্রোনল (AMBRONOL) ও ডক-১ (DOK-1) সিরাপ দুটি উজবেকিস্তানের শিশুদের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, প্রস্তুতকারক সংস্থা সঠিক পদ্ধতিতে ওষুধ বানায়নি। উজবেকিস্তানের পার্শ্ববর্তী দেশেও এই সিরাপগুলির ব্যবহার হতে পারে। ফলে সকলকেই সতর্ক থাকতে হবে। সিরাপগুলি যদি পুনরায় ব্যবহার হয়ে তাহলে শিশুদের শরীরে ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারে।

গৌতম বুদ্ধ নগরের ড্রাগ ইনসপেক্টর বলেন, উপযুক্ত নথি দেখাতে না পারায় আমরা মারিয়ন বায়োটেকের উৎপাদনের লাইসেন্স বাজেয়াপ্ত করেছি। পরিদর্শনের সময় ওই কোম্পানিকে শো-কজ নোটিশও দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০২২ সালের ডিসেম্বর মাসে উজবেকিস্তানে শিশু মৃত্যুর খবর প্রকাশ্যে এসেছিল। তদন্তের দাবি জানিয়েছিল উজবেকিস্তানের সরকার। প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, মৃত শিশুরা হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার আগে প্রায় এক সপ্তাহ ধরে ডক-১ ম্যাক্স (Doc-1 Max) সিরাপ খেয়েছিল। শুধু তাই নয়, দিনে তিন থেকে চারবার ২.৫ থেকে ৫ মিলিলিটার করে ডোজ নিয়েছিল তারা। যা সাধারণ পরিমাণের থেকেও বেশি।

উজবেক প্রশাসনের অভিযোগ করেছিল, সিরাপের নমুনা পরীক্ষা করে ইথাইল গ্লাইকোল পাওয়া যায়। এই কাফ সিরাপ কোনো চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়াই শিশুদের খাওয়ানো হয়েছিল বলেও জানা যায়।

নিষিদ্ধ ভারতীয় কাফ সিরাপ
Delhi: সরকারি বিজ্ঞাপনের আড়ালে দলীয় প্রচার! AAP-র কাছে ১৬৪ কোটি টাকা চেয়ে নোটিস দিল্লি সরকারের

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
logo
People's Reporter
www.peoplesreporter.in