দেশের বিভিন্ন প্রান্তের জলে মিশছে মাত্রাতিরিক্ত বিষাক্ত রাসায়নিক 'Nonylphenol' - রিপোর্ট

দেশে পানীয় জলে Nonylphenol-র মাত্রা ২৯.১ থেকে ৮০.৫ পিপিবি বৃদ্ধি পেয়েছে। টক্সিক্স লিঙ্কের সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে ভারতের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মোট ১৫ ধরণের জলের নমুনা পরীক্ষা করা হয়।
ছবি - প্রতীকী
ছবি - প্রতীকী

ভারত জুড়ে সংগ্রহ করা জলের নমুনাতে মাত্রাতিরিক্ত বিষাক্ত রাসায়নিক Nonylphenol পাওয়া গেছে। Toxics Link-র একটি সমীক্ষায় সেই তথ্য উঠে এসেছে। ২৮ জুন প্রকাশিত ‘Toxic Chemical “Nonylphenol”: A Barrier to Safe Drinking Water’ - শীর্ষক প্রতিবেদনটি যথেষ্ট উদ্বেগ বাড়িয়েছে।

সেখানে বলা হয়েছে দেশে পানীয় জলে Nonylphenol-র মাত্রা ২৯.১ থেকে ৮০.৫ পিপিবি বৃদ্ধি পেয়েছে। Toxics Link-র সমীক্ষায় জানা যাচ্ছে - ভারতের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মোট ১৫ ধরণের জলের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তার মধ্যে ১২ টি নমুনা ছিল ট্যাপের জল ও ৩ টি নমুনা পানীয় জলের। সবগুলিতেই ক্ষতিকর রাসায়নিকটির উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। প্রতিটি নমুনা দিল্লির শিরাম ইন্সটিটিউটে পাঠানো হয়েছিল।

সমীক্ষায় আরও বলা হয়েছে, জলের নমুনায় নোনেলফেলনের ঘনত্ব বিআইএস-র নির্ধারিত সীমার চেয়ে ২৯ থেকে ৮১ গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। যেখানে বলা হয়েছে পানীয় জলে পিপিবি মাত্রা ১ থাকা উচিৎ। তিনটি পানীয় জলের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল উত্তরপ্রদেশ, গোয়া ও পাঞ্জাব থেকে। যার মধ্যে উত্তরপ্রদেশ ও গোয়ার নমুনাটির মধ্যে নোনেলফেলনের মাত্রা পাওয়া গেছে ৬১.৫ পিপিবি ও ৫৮.৮ পিপিবি। পাঞ্জাবের জলের নমুনাটি পাওয়া গেছে ৬১.১ পিপিবি।

Toxics Link-র কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, নোনেলফেলন একটি বিষাক্ত রাসায়নিক। যা পানীয় জলে মিশে মানুষের শরীরে গেলে ক্ষতিকর প্রভাব পড়বে। এইভাবে জলের মধ্যে যে নোনেলফেলন মিশছে তার জন্য দেশের কঠোর নিয়মের অভাবে। দেশে ডিটারজেন্ট ও অন্যান্য পণ্যগুলিতে এনপিই পরিমাপের জন্য যে নিয়ম আছে তা পালন করা হচ্ছে না। যার ফলে জলাশয়ের জলে তা অনায়াসে মিশে যাচ্ছে।

Toxics Link-র প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে, নোনেলফেলন মানুষের অন্তঃস্রাব সিস্টেমকে ব্যাহত করতে পারে। এর পাশাপাশি জলজ জীবন ও বন্যপ্রাণীকেও প্রভাবিত করতে পারে। জাতিসংঘের পক্ষ থেকেও এই নোনেলফেলনকে বিষাক্ত রাসায়নিক হিসাবে চিহ্নিত করেছে।

- Inputs From NewsClick

ছবি - প্রতীকী
Covid-19: দেশে হানা দিল ওমিক্রনের নতুন রূপ BA.2.75 - জানালো WHO, সংক্রমণের সাথে বাড়ল মৃত্যু

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in