মানবিক পুষ্পা - গরীব ছাত্রীর পড়াশোনার দায়িত্ব নিলেন আল্লু অর্জুন

দীর্ঘদিন ধরে অর্থের অভাবে পড়াশোনা চালানো সম্ভব ছিল না কেরালার এক মেধাবী ছাত্রীর। নার্স হওয়ার ইচ্ছে তাঁর। বিষয়টি শোনা মাত্রই তার হোস্টেল ফি সহ পড়াশোনার সম্পূর্ণ খরচ মেটাতে সম্মত হন অর্জুন।
আল্লু অর্জুন
আল্লু অর্জুন ফাইল চিত্র

রূপোলি পর্দার পাশাপাশি এবার বাস্তবেও একজন মহান ব্যক্তির পরিচয় দিলেন দক্ষিণ ভারতীয় অভিনেতা আল্লু অর্জুন। নার্সিং নিয়ে পড়াশোনা এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে দীর্ঘদিন ধরেই অর্থ সংকটে ভুগছিল কেরালার এক মেধাবী ছাত্রী। এবার তাঁর পড়াশোনা সংক্রান্ত যাবতীয় খরচের দায়িত্ব নিলেন 'পুষ্পা'।

বৃহস্পতিবার এই সংক্রান্ত একটি ফেসবুক পোস্ট করেন আলাপ্পুঝা জেলা কালেক্টর ভি আর কৃষ্ণ তেজা। পোস্টের মাধ্যমে তিনি অর্জুনের এই মহৎ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন। পাশাপাশি তেজা জানিয়েছেন সেই নার্স হওয়ার স্বপ্ন দেখা মেধাবী ছাত্রীটির সংগ্রামের কথা।

তেজার কথায় - ছাত্রীটি তাঁর পড়াশোনা চালিয়ে যাওয়ার জন্য সাহায্য চেয়ে দেখা করতে এসেছিল। যে কোনও উপায় সে চেয়েছিল একজন নার্স হতে। প্লাস টু পরীক্ষায় ৯২ শতাংশ নম্বর পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে মেয়েটি। গত বছর তাঁর বাবা কোভিড ১৯-এ আক্রান্ত হয়ে আত্মহত্যা করেন। এরপর থেকেই চরম আর্থিক সংকটের কারণে পড়াশোনা এগিয়ে নিয়ে যাওয়া তাঁর পক্ষে সম্ভব হয়নি।

অন্ধ্রপ্রদেশের বাসিন্দা তেজা জানান, ছাত্রীটির পড়াশোনা চালিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য সাহায্য চেয়ে তিনি টলিউড সুপারস্টার আল্লু অর্জুনের সাথে যোগাযোগ করেন। পুরো বিষয়টি শোনা মাত্রই এক বছরের পরিবর্তের চার বছরের হোস্টেল ফি সহ পড়াশোনার সম্পূর্ণ খরচ মেটাতে সম্মত হন অর্জুন।

তিনি আরও বলেন, "ছাত্রীটির চোখে আমি আশা এবং আত্মবিশ্বাস দেখতে পেয়েছি। তাই, আলেপ্পি প্রকল্পের অংশ হিসেবে আমরা তাকে সব ধরণের সহায়তা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।" এই বিষয়ে বিভিন্ন কলেজ কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার পর অবশেষে আলাপ্পুঝা জেলার একটি বেসরকারি কলেজে তাকে ভর্তি করা হয়েছে।

মেয়েটির প্রতি আস্থা প্রকাশ করে কালেক্টর বলেন, "আমি নিশ্চিত, সে ভালভাবে পড়াশোনা করবে এবং ভবিষ্যতে একজন ভালো নার্স হয়ে উঠবে। যে তার মা এবং ভাইয়ের যত্ন নেবে। পাশাপাশি সমাজের জন্য ভাল কাজ করবে।"

আল্লু অর্জুন
Twitter: ভেরিফায়েড ট্যুইটার অ্যাকাউন্টে টাকা নেওয়াই উচিত, মাস্কের সিদ্ধান্তে সমর্থন কঙ্গনার

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in