WB Election 21: ‘যা করার করে নিস’ - ভোট দিতে গিয়ে বাধার মুখে মহিলার পাল্টা জবাব - ভাইরাল ভিডিও
ভাইরাল ভিডিওর স্ক্রিনশট

WB Election 21: ‘যা করার করে নিস’ - ভোট দিতে গিয়ে বাধার মুখে মহিলার পাল্টা জবাব - ভাইরাল ভিডিও

ঘটনাটি দক্ষিণ ২৪ পরগনা বিষ্ণুপুরের পানাকুয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের। তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা ভোটারকে ভোট দিতে যেতে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেছে বলে অভিযোগ।

যা করার করে নিস। ভোট দিতে গিয়ে দুষ্কৃতীদের বাধার মুখে পড়ে রুখে দাঁড়িয়ে এভাবেই পাল্টা জবাব দিলেন এক গ্রাম্য মহিলা। যে ভিডিও আপাতত ভাইরাল। ঘটনাটি দক্ষিণ ২৪ পরগনা বিষ্ণুপুরের পানাকুয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের। তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা ভোটারকে ভোট দিতে যেতে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করছে। এমনটাই অভিযোগ। তবে এই ঘটনা নিতে তৃণমূলের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

ভোট প্রাক্কালে বা ভোটের দিন ভোটারদের ভোটে দিতে বাধাদানের ঘটনা নতুন কিছু নয়। নির্বাচনী সময়ে এই ধরনের ঘটনা প্রায়ই খবরের শিরোনামে আসে। মারধরের ঘটনা ঘটে। অনেকে ভয় পেয়ে ভোটদানে বিরত থাকেন। খুব কম সংখ্যকই প্রতিবাদ জানিয়ে ভোট দেন। হয়তো প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে হামলার শিকার হতে হবে, এই আশঙ্কাও থাকে তাঁদের মনে। এদিন যে ভিডিও ভাইরাল হয়েছে, তাতে কিন্তু এক দুষ্কৃতি দেখে নেওয়ার হুমকি শোনা গিয়েছে। ওই ভোটার মহিলা যে ভাবে প্রতিবাদ জানিয়েছেন, তাকে বাহবা জানিয়েছেন সাধারণ মানুষ। যদিও এই ভিডিওর সত্যতা যাচাই করা হয়নি। অভিযোগ, ওই দুষ্কৃতী তৃণমূলের আশ্রিত।

মঙ্গলবার যে ভিডিওটি প্রকাশ্যে আসে, তাতে দেখা যায়, ভোট দিতে যাওয়ার পথে পাড়ার রাস্তায় এক মহিলার পথ আটকে দাঁড়ায় এক ব্যক্তি। ভোট দিতে না যাওয়ার হুমকি দেয় সে। শুধু তাই নয়, ওই মহিলাকে রীতিমতো ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। ওই ব্যক্তি হুমকি দিয়ে বলেন, ‘ভোটটা কিন্তু বড় কথা নয়। এরপর যা হবে, সামলাতে পারবি তো?' এরপর রুখে দাঁড়ান ওই মহিলা। তাঁর পাল্টা জবাব, ‘কেন আমার বাড়ির অ্যাসবেস্টর্স ভেঙেছিস? তোদের দলের লোকেরা আমার বাড়ি ভেঙেছে’। বিষয়টা অস্বীকার করার চেষ্টা করতে দেখা যায় ব্যক্তিকে। এরপর ওই মহিলা ফের এগোতে গেলে হুমকি আসে, ‘এর যে প্রভাবটা পড়বে সেটা সামলাতে পারবি তো?' তখন মহিলা ফের রুখে দাঁড়িয়ে জবাব দেন, ‘কী করবি? যা করার করে নিস।'

ভিডিওটি প্রকাশ্যে আসতেই নির্বাচন কমিশন জেলা প্রশাসনকে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। ওই ব্যক্তির খোঁজে তল্লাশি চলছে। কমিশনের নির্দেশ, ওই ব্যক্তিকে খুঁজে বের করে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করতে হবে। শুধু তাই নয়, জেলা প্রশাসনকে বিষয়টি খতিয়ে দেখে বিশদে রিপোর্ট দিতে হবে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in