“পরে গড়বি সোনার বাংলা, আগে দেশকে সামলা” - করোনার ওষুধ কালোবাজারি প্রসঙ্গে সেলিমের কটাক্ষ

"করোনার ওষুধ নিয়ে মহারাষ্ট্রে কালোবাজারি করছে বিজেপি। দেশের মানুষ ওষুধ না পেয়ে করোনায় মারা যাচ্ছেন আর ওরা ব্যস্ত প্রচারে।"
“পরে গড়বি সোনার বাংলা, আগে দেশকে সামলা” - করোনার ওষুধ কালোবাজারি প্রসঙ্গে সেলিমের কটাক্ষ
মহঃ সেলিমফাইল ছবি

১৯ এপ্রিল, কলকাতা- পরে সোনার বাংলা গড়বে। আগে দেশকে সামলাক। প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদি এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর বিরুদ্ধে এভাবেই তোপ দাগলেন সিপিআইএমের পলিটব্যুরো সদস্য মহম্মদ সেলিম। রবিবার কেতুগ্রামে সংযুক্ত মোর্চার নির্বাচনী সমাবেশে জোট প্রার্থীদের সমর্থনে সভা করেন তিনি। সেখানে বলেন, করোনার ওষুধ নিয়ে মহারাষ্ট্রে কালোবাজারি করছে বিজেপি। দেশের মানুষ ওষুধ না পেয়ে করোনায় মারা যাচ্ছেন আর ওরা ব্যস্ত প্রচারে। বাংলায় ক্ষমতা দখল করতেই ব্যস্ত। সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন দেখাচ্ছে ওরা। আগে দেশকে সামলাক, তারপর সোনার বাংলা গড়বে।

নরেন্দ্র মোদিকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, সাত বছর পর তিনি সোনার বাংলা গড়তে এসেছেন। বাংলা তো দেশের অংশ। সোনার দেশ গড়লে তো বাংলা এমনিতেই সোনার হয়ে যেত। ক্ষমতায় আসার জন্য বিদেশ থেকে কালো টাকা এনে সবার একাউন্টে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। দু'কোটি বেকারকে চাকরি দেবেন বলে কথা দিয়েছিলেন। এখন বাংলার ভোটে জেতার জন্য বাসে ট্রেনে মেয়েদের ফ্রিতে যাতায়াতের ব্যবস্থা করবেন বলছেন। এদিকে রেলকে বেসরকারিকরণ করতে চাইছেন। তাহলে ফ্রি হবে কোত্থেকে?

তাঁর অভিযোগ, মোদি-দিদি দু'জনেই লুটেরা সম্প্রদায়ভুক্ত। তাদের দুজনের মধ্যে সেটিং করা আছে। এই লুটেরাদের বিরুদ্ধে সাধারণ মানুষকে লড়তে হবে। ওরা বলেছিল, লাল হটাও, দেশ বাঁচাও। কিন্তু দেশ বা বাংলার কোনও উন্নতি হয়নি। সেলিমের কথায়, বামেরা ছিল বলেই রাজ্যে গরিব কৃষকেরা জমি পেয়েছিলেন। কিন্তু এখন কৃষকদের আত্মহত্যা করতে হচ্ছে। বেকাররা কাজ পাচ্ছেন না, ঘুষ দিতে হচ্ছে। সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে তাঁর বার্তা, ভোটের দিন কোনও বুথে ভূত ঢুকতে দেবেন না। একসঙ্গে বিজেমূলকে বাংলা ছাড়া করতে হবে। বামেদের প্রথম লক্ষ্য হল হিন্দু-মুসলিম ঐক্য তৈরি করা। আর ওরা বিভাজন তৈরি করছে। আজ বিজেপি যে সব কথা বলছে, যে বাড়বাড়ন্ত হয়েছে, সবটাই তৃণমূলের সৌজন্যে। বামেরা থাকলে বাংলায় জায়গাই পেত না বিজেপি।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in