কুস্তিগীর ভিনেশ ভোগতের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলো WFI
ভিনেশ ভোগতছবি- সংগৃহীত

কুস্তিগীর ভিনেশ ভোগতের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলো WFI

ভিনেশ ভোগত, সোনম মালিক এবং দিব্যা সাঁইয়ের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ উঠেছিল। সাময়িক ভাবে নির্বাসিত করা হয়েছিলো ভিনেশকে।

সময়টা একদমই ভালো কাটছিলো না ভিনেশ ভোগতের। এমনিতেই টোকিও অলিম্পিক থেকে খালি হাতে ফিরতে হয়েছে ভারতীয় তারকাকে। তারপর মানসিক স্বাস্থ্যজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন বলেও জানিয়েছিলেন ভিনেশ। তবে এসবের মাঝেও আজ স্বস্তির খবর পেলেন তিনি। ভিনেশ ভোগত সহ তিন কুস্তিগীরের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলো ভারতের কুস্তি ফেডারেশন।

বিশ্ব কুস্তি চ্যাম্পিয়নশিপের ভারতীয় দল গঠনের সিলেকশন ট্রায়ালে অংশ নিতে পারবেন তাঁরা। ভিনেশ ভোগত, সোনম মালিক এবং দিব্যা সাঁইয়ের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ উঠেছিল। সাময়িক ভাবে নির্বাসিত করা হয়েছিল ভিনেশকে। তিনজনকেই শোকজের উত্তর চাওয়া হয়েছিল। ফেডারেশনকে তিনজন যে উত্তর দিয়েছেন তা সন্তোষজনক না হলেও এক বার ভুল ক্ষমা করার সুযোগ দিলো কুস্তি ফেডারেশন।

ভারত টোকিওতে যে সমস্ত তারকার ওপর পদক জয়ের আশায় তাকিয়ে ছিল তাঁদের মধ্যে ভিনেশ অন্যতম। তবে কোয়ার্টার ফাইনালেই 'ফল'-এর মাধ্যমে হেরে যেতে হয় তাঁকে। হারের দুঃখ ভুলতে না ভুলতেই ভিনেশের বিরুদ্ধে তিনটি ধারায় শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ আনা হয়েছিলো। হাঙ্গেরীতে কোচ ওলার অ্যাকোসের কাছে অনুশীলন করে সরাসরি টোকিওতে পৌঁছেছিলেন ভিনেশ।

তবে টোকিওতে পৌঁছে তিনি অন্যান্য ভারতীয় ক্রীড়াবিদদের সাথে গেমস ভিলেজে থাকতে অস্বীকার করেছিলেন। এমনকি অন্য ভারতীয়দের সাথে অনুশীলনও করবেন না বলে জানিয়েছিলেন। করোনা সংক্রমণের ভয়ে সরাসরি ভারত থেকে আসা সোনম, অনশু মালিক ও সীমা বিসলার সঙ্গে থাকতে চাননি তিনি। পাশাপাশি ভারতীয় দলের স্পনসরের জার্সি না পরে তিনি নাইকির সিঙ্গেলেট পরে নিজের বাউট লড়েছিলেন।

ভিনেশকে নির্বাসিত করার পাশাপাশি শোকজ করা হয়েছিলো সোনম মালিককেও। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে পাসপোর্ট সংগ্রহ করতে না পারায় সোনমকে নোটিশ দেওয়া হয়েছিল। দিব্যা সাঁইকে শোকজ করা হয়েছিল তাঁর বাবা একটি ভিডিওর মাধ্যমে কুস্তি ফেডারেশনের সমালোচনা করেছিলেন বলে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in