Tokyo Olympics: গেমস ভিলেজে ফের করোনা হানা, দক্ষিণ আফ্রিকার দুই ফুটবলারের সংক্রমণ

টোকিও অলিম্পিক ভিলেজে করোনা হানা চলছেই। রবিবার দুই দক্ষিণ আফ্রিকান ফুটবলার রাইট ব্যাক থাবিসো মনিইয়ানে এবং মিডফিল্ডার কামেহেলো মাহালটসির করোনা সংক্রমিত হবার খবর পাওয়া গেছে।
Tokyo Olympics: গেমস ভিলেজে ফের করোনা হানা, দক্ষিণ আফ্রিকার দুই ফুটবলারের সংক্রমণ
দক্ষিণ আফ্রিকার দুই ফুটবলারের করোনা সংক্রমণছবি স্পোর্ট আফ্রিকা ফুটবল ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

টোকিও অলিম্পিক ভিলেজে করোনা হানা চলছেই। রবিবার দুই দক্ষিণ আফ্রিকান ফুটবলার রাইট ব্যাক থাবিসো মনিইয়ানে এবং মিডফিল্ডার কামেহেলো মাহালটসির করোনা সংক্রমিত হবার খবর পাওয়া গেছে।

এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকা দলের ভিডিও অ্যানালিস্ট মারিও মাসার সংক্রমণ ধরা পড়েছিলো। টোকিও বিমানবন্দরে নামার সময় পরীক্ষাতে তাঁর করোনা সংক্রমণ ধরা পরে। এরপরেই পুরো দক্ষিণ আফ্রিকা দলকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়। আগামী ২২ জুলাই জাপানের বিরুদ্ধে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম ম্যাচ।

দক্ষিণ আফ্রিকা দলের টিম ম্যানেজার মোক্সিলিসি শিবম দ্য গার্ডিয়ান পত্রিকাকে জানিয়েছেন, আমাদের ক্যাম্পে তিনজনের করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে। যার মধ্যে দুজন খেলোয়াড় এবং একজন অফিসিয়াল। প্রতিদিন খেলোয়াড়দের স্ক্রিনিং চলছে। মাসা এবং মনিইয়ানের জ্বর আছে এবং স্যালিভা টেস্ট পজিটিভ এসেছে। মাহালটাসির সংক্রমণ সবশেষে ধরা পড়েছে। আমরা চিকিৎসার মধ্যে আছি।

শিবম আরও জানিয়েছেন, আগামী রবিবার চূড়ান্ত টেস্টের রিপোর্ট আসার পর খেলোয়াড়রা অনুশীলন করতে পারবে। তার আগে পুরো দলকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। আমাদের দলের পক্ষে এই ঘটনা খুবই দুর্ভাগ্যজনক। যার ফলে আমরা অনুশীলন করতে পারছি না।

উল্লেখ্য, করোনা সংক্রমণের কারণে ২০২০ সালে টোকিও অলিম্পিক্স পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিলো। এবছর অলিম্পিক্স শুরু হতে আর মাত্র পাঁচদিন বাকি। যার মাঝে অলিম্পিক ভিলেজে একাধিক করোনা সংক্রমণের ঘটনা উদ্বেগ বাড়িয়েছে।

করোনা সংক্রমণ আটকাতে এবারের অলিম্পিক্স দর্শকশূন্য হতে চলেছে এবং অলিম্পিক্স শুরুর আগেই টোকিও এবং সংলগ্ন অঞ্চলে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। এই জরুরি অবস্থা জারি থাকবে আগামী আগস্টের প্যারা অলিম্পিক্সের আগে পর্যন্ত।

- with inputs from IANS

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in