Table Tennis: মণিকা বাত্রাকে হারিয়ে টোকিও অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন বাংলার সুতীর্থা মুখোপাধ্যায়ের

দোহায় অনুষ্ঠিত এশিয়ান অলিম্পিক্স কোয়ালিফিকেশনে ভারতের এক নম্বর মণিকা বাত্রাকে হারিয়ে প্রথম বারের মতো অলিম্পিকির টিকিট পেলেন সুতীর্থা।
Table Tennis: মণিকা বাত্রাকে হারিয়ে টোকিও অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন বাংলার সুতীর্থা মুখোপাধ্যায়ের
সুতীর্থা মুখোপাধ্যায়ছবি সৌজন্য কিরণ রিজেজুর ট্যুইটার হ্যান্ডেল

মণিকা বাত্রাকে হারিয়ে টোকিও অলিম্পিকের জন্য যোগ্যতা অর্জন করলেন বাংলার সুতীর্থা মুখোপাধ্যায়। দোহায় অনুষ্ঠিত এশিয়ান অলিম্পিক্স কোয়ালিফিকেশনে ভারতের এক নম্বর মণিকা বাত্রাকে হারিয়ে প্রথম বারের মতো অলিম্পিকির টিকিট পেলেন সুতীর্থা।

মণিকা এবং সুতীর্থার মধ্যে যেই জিততেন তিনিই অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন করতেন। কারণ দক্ষিণ এশিয়ার গ্রুপ থেকে টেবিল টেনিসে কেবলমাত্র ৬২ নম্বর মণিকা বাত্রা এবং ৯৫ নম্বর সুতীর্থা যোগ্যতা অর্জন পর্বে ছিলেন। তাই মুখোমুখিতে জিততেই হতো একজনকে। যেখানে শেষ হাসি হাসলো বাংলার মেয়ে সুতীর্থা। মণিকাকে ৪-২ (৭-১১, ১১-৭, ১১-৪, ৪-১১, ১১-৫, ১১-৪)ফলে হারান তিনি। আর সেইসঙ্গে পেয়ে যান টোকিও অলিম্পিকের ছাড়পত্র।

অন্যদিকে সুতীর্থার কাছে হারলেও খেলরত্ন পুরস্কার জয়ী মণিকার সামনে ভালো সুযোগ রয়েছে অলিম্পিকে সুযোগ পাওয়ার। তার কারণ হলো ভারতের এক নম্বর টেবিল টেনিস তারকার বিশ্ব র‌্যাংকিং সামনের দিকে।

এদিন আগেই টোকিও অলিম্পিকের জন্য যোগ্যতা অর্জন করেছেন ভারতের এক নম্বর টেবিল টেনিস তারকা শরথ কমল। পাকিস্তানের রামিজ মহম্মদকে স্ট্রেট সেটে (১১-৪, ১১-১, ১১-৪, ১১-৫)উড়িয়ে দিয়েছেন শরথ। সেইসঙ্গে ২০০৪ সালে এথেন্স, ২০০৮ সালে বেজিং, ২০১৬ সালে রিওর পর এবার চতুর্থ বার টোকিওর টিকিট পেলেন তিনি।

অন্যদিকে রামিজ মহম্মদকে ৪-০ ফলে হারিয়ে দক্ষিণ এশিয়ার গ্রুপ থেকে শীর্ষস্থান দখল করে টোকিওর টিকিট পেলেন আর এক ভারতীয় সাথিয়ান গণশেখরন।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in