T-20 World Cup: বিদায় বেলায় ব্যর্থ ছাত্রদের পাশে রবি শাস্ত্রী

ভারতকে T-20 বিশ্বকাপের শিরোপা জেতাতে চেয়েছিলেন শাস্ত্রী। টুর্নামেন্টের অন্যতম ফেভারিট দল ছিলো ভারত। যদিও শেষ তিনটি ম্যাচ জিতেও প্রথম দুই ম্যাচ হারের খেসারত দিতে হয় টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে গিয়ে।
T-20 World Cup: বিদায় বেলায় ব্যর্থ ছাত্রদের পাশে রবি শাস্ত্রী
রবি শাস্ত্রী ও বিরাট কোহলী ফাইল ছবি, আরসিবি ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

সোমবার চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শেষ ম্যাচ খেলে নিয়েছে টিম ইন্ডিয়া। নামিবিয়ার বিরুদ্ধে ওই ম্যাচ ভারতীয় দলের কোচ হিসেবে রবি শাস্ত্রীরও শেষ ম্যাচ ছিলো। শেষ পর্যায়ে ভারতকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শিরোপা জেতাতে চেয়েছিলেন শাস্ত্রী। টুর্নামেন্টের অন্যতম ফেভারিট দলও ছিলো ভারত। তবে তা সম্ভব হয়নি। শেষ তিনটি ম্যাচ জিতেও প্রথম দুই ম্যাচ হারের খেসারত দিতে হলো টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে গিয়ে। বিরাটরা ব্যর্থ হলেও শেষ বেলায় ছাত্রদের পাশে দাঁড়ালেন রবি শাস্ত্রী। মুখ খুললেন বায়ো বাবল নিয়ে। তিনি বলেন, 'নাম ব্র্যাডম্যান হলেও বাবলে থাকলে গড় কমতো।'

নামিবিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের পর সাংবাদিক সম্মেলনে শাস্ত্রী বলেন, "একটা কথাই বলবো, এটা কোনো অজুহাত নয়, এটা বাস্তব। যখন আপনি একটি বাবলে ছয় মাস থাকেন, এই দলে অনেক খেলোয়াড়ই রয়েছে যারা তিনটি ফরম্যাটেই খেলে। গত ২৪ মাসে তারা ২৫ দিন বাড়িতে থেকেছে। আপনি কে তা আমি চিন্তা করি না, যদি আপনার নাম ব্র্যাডম্যান হয়, আপনি যদি বাবলে থাকেন, তাহলে আপনার গড় কমে আসবে কারণ আপনি মানুষ। "

এ প্রসঙ্গে শাস্ত্রী আরও বলেন," এটা এমন কিছু নয় যেখানে আপনি পেট্রল ঢেলে আশা করেন যে সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়া যাবে। এটি সেভাবে ঘটেনা। তাই আমি মনে করি এটি কঠিন সময়। এজন্যই আমি বলি আপনি কি অর্জন করেছেন সেটি বিষয় নয়। আপনি কোন প্রতিকূলতা কাটিয়ে উঠেছেন সেটি দেখার বিষয়। দল সেটাই করে দেখিয়েছে। তাদের কোনো অভিযোগ ছিলো না। তারা টিকে থাকার মানসিকতা দেখিয়েছে। কিন্তু এখনই হোক বা পরে এই বাবল ফেটে যাবে, তাই আপনাকে সতর্ক থাকতে হবে।"

২০১৪ সালে ভারতীয় দলের ডিরেক্টর পদে ছিলেন রবি শাস্ত্রী। ২০১৭ সালে দলের প্রধান কোচের গুরু দায়িত্ব কাঁধে তুলে নেন তিনি। শাস্ত্রীর অধীনে ভারত ৪৩ টি টেস্টের মধ্যে ২৫ টি ম্যাচ, ৭৬ টি একদিনের ম্যাচের মধ্যে ৫১ টি ম্যাচ এবং ৬৫ টি-টোয়েন্টি ম্যাচের মধ্যে ৪৩ টি ম্যাচ জিতেছ ভারত।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in