T 20: বিরাট ইনিংসে ভর করে দ্বিতীয় ম্যাচেই ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সমতা ফেরালো ভারত

T 20: বিরাট ইনিংসে ভর করে দ্বিতীয় ম্যাচেই ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সমতা ফেরালো ভারত
বিসিসিআই ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

ইশান-বিরাটের মারকাটারি ব্যাটিং-এর সৌজন্যে ব্রিটিশদের দেওয়া ১৬৫ রানের লক্ষ্য মাত্রা ১৩ বল বাকি থাকতেই টপকে গেলো ভারত। আমেদাবাদে দ্বিতীয় টি টোয়েন্টি ম্যাচ ৭ উইকেটে জিতে সিরিজে সমতা ফিরিয়েছে বিরাট বাহিনী।

এদিন দ্বিতীয় দফায় ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারায় ভারত। নির্ভরযোগ্য ওপেনার লোকেশ রাহুল ফিরে যান রানের খাতা না খুলেই। তবে তাতে বিশেষ কিছু অসুবিধা হয়নি ভারতের। সঙ্গে সঙ্গেই ম্যাচের হাল ধরেন ইশান কিশান এবং বিরাট কোহলি। অভিষেক ম্যাচেই এদিন ডিনামাইটের মতো ফেটে পড়লেন ইশান। ৫ টি বাউন্ডারি এবং ৪ টি ওভার বাউন্ডারির মাধ্যমে ৩২ বলে ৫৬ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন তিনি। উইকেট কিপার ব্যাটসম্যান ঋষভ পন্থ ১৩ বলে ২৬ রান করে জর্ডনের শিকার হন।

প্রথম ম্যাচে শূন্য রানে ফিরলেও দ্বিতীয় ম্যাচে চলে বিরাট রাজ। ভারত অধিনায়ক ৪৯ বলে ৭৩* রানে অপরাজিত থাকেন। তাঁর ইনিংস সাজানো রয়েছে ৫ টি বাউন্ডারি এবং ৩ টি ওভার বাউন্ডারির মাধ্যমে। শ্রেয়স আয়ার অপরাজিত থাকেন ৮* রানে।

ইংল্যান্ডের হয়ে এদিন একটি করে উইকেট নেয় স্যাম কুরেন, ক্রিস জর্ডন এবং আদিল রাশিদ।

রবিবার প্রথম দফায় ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ধাক্কা লাগে ব্রিটিশ শিবিরে। জস বাটলারকে রানের খাতা না খুলতে দিয়েই প্যাভিলিয়নের রাস্তা দেখান ভুবনেশ্বর কুমার। এরপর অবশ্য ৬৩ রানের পার্টনারশিপ গড়েন জেশন রয় এবং ডেভিড মালান। মালান ২৩ বলে ২৪ রান করে চাহালের শিকার হন। জেশন রয় ৩৫ বলে ৪৬ রান করেন। তাঁর ইনিংস সাজানো রয়েছে চারটি বাউন্ডারি এবং দুটি ওভার বাউন্ডারির মাধ্যমে।

রয় ফিরে যাওয়ার পর জনি বেয়ারিস্টো ১৫ রান করে ফিরে যান। এরপর ইংল্যান্ড অধিনায়ক ইয়ন মর্গ্যান এবং বেন স্টোকস দলকে এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন। মর্গ্যান ২০ বলে ২৮ রান করেন। স্টোকস খেলেন ২১ বলে ২৪ রানের ইনিংস। স্যাম কুরেন অপরাজিত থাকেন ৬* রানে।

ভারতীয় বোলারদের হয়ে এদিন দুটি করে উইকেট নেয় ওয়াশিংটন সুন্দর এবং শার্দুল ঠাকুর। একটি করে উইকেট নেয় ভুবনেশ্বর কুমার এবং যুজবেন্দ্র চাহাল।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in