Racism: বর্ণবিদ্বেষের অভিযোগ থেকে মুক্তি পেলেন ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার প্রাক্তন অধিনায়ক গ্রেইম স্মিথ

জাস্টিস এন্ড নেশন বিল্ডিং বোর্ড দক্ষিণ আফ্রিকার বেশ কয়েকজন প্রাক্তন ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে বর্ণবাদের অভিযোগ তোলে। বর্তমান কোচ মার্ক বাউচারের সঙ্গে ক্রিকেট বোর্ডের শীর্ষকর্তা গ্রেইম স্মিথের নাম ছিলো।
Racism: বর্ণবিদ্বেষের অভিযোগ থেকে মুক্তি পেলেন ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার প্রাক্তন অধিনায়ক গ্রেইম স্মিথ
গ্রেম স্মিথফাইল ছবি সংগৃহীত

বর্ণবিদ্বেষের অভিযোগ থেকে মুক্তি পেলেন ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার প্রাক্তন অধিনায়ক তথা পরিচালক গ্রেইম স্মিথ। জাস্টিস এন্ড নেশন বিল্ডিং বোর্ড দক্ষিণ আফ্রিকার বেশ কয়েকজন প্রাক্তন ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে বর্ণবাদের অভিযোগ তোলে। যার মধ্যে বর্তমান কোচ মার্ক বাউচারের সঙ্গে দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট বোর্ডের শীর্ষকর্তা গ্রেইম স্মিথের নামও ছিলো। দু’সদস্যের নিরপেক্ষ কমিটি তদন্তের পর স্মিথকে অভিযোগ থেকে মুক্তি দিয়েছে।

ডুমিসা এনটাসেবাজার নেতৃত্বাধীন জাস্টিস এন্ড নেশন বিল্ডিং বোর্ড গত বছরের ডিসেম্বর মাসে ২৩৫ পৃষ্ঠার এক প্রতিবেদনে বাউচার এবং স্মিথের ওপর বর্ণবিদ্বেষের অভিযোগ আনে। সামাজিক ন্যায়বিচার এবং জাতি গঠন ন্যায়পালের কাছে তাঁরা অভিযোগ জানিয়েছিলেন, কর্মীদের মধ্যে বর্ণের ভিত্তিতে বিভাজন করে সে দেশের এই জাতীয় ক্রীড়া সংস্থা। স্মিথ কৃষ্ণাঙ্গ খেলোয়াড়দের জাতীয় দলে নির্বাচন না করে তাদের প্রতি বৈষম্য করেছেন বলে অভিযোগ করেন তাঁরা। এরপর ন্যায়পালের তরফ থেকে এই বিষয়ে আরও তদন্ত করার সুপারিশ দেওয়া হয়। এরপরেই সিএসকে আনুষ্ঠানিক ভাবে তদন্ত শুরু করে।

দক্ষিণ আফ্রিকার প্রাক্তন ক্রিকেটার টামি সোলেকিলেও অভিযোগ করেন সিএসএ-র শাসন ক্ষমতায় কোনও কালো রঙের ব্যক্তিকে চান না স্মিথ। ইনখ কুইয়ের বদলে মার্ক বাউচারকে জাতীয় দলের প্রধান কোচ করার পিছনেও স্মিথের এই মানসিকতাই কাজ করেছে বলে জানান তিনি। তবে দুই সদস্যের নিরপেক্ষ কমিটি উভয় পক্ষের বক্তব্য শোনার পর স্মিথের বিরুদ্ধে কোনও প্রমাণ পায়নি।

দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ডের তরফ থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে সভাপতি লসন নাইডু বলেছেন, "স্বচ্ছতার সঙ্গে গোটা বিষয়টি বিবেচনা করা হয়েছে। অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে সিএসএ স্পর্শকাতর এই বিষয় নিয়ে কাজ করেছে। প্রতিটি পদক্ষেপে এবং স্তরে সতর্কতার সঙ্গে স্বচ্ছতা বজায় রাখা হয়েছে। সমস্ত প্রক্রিয়ার শেষে স্মিথ নির্দোষ প্রমাণিত হয়েছেন। এখন দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেটে ওর অবদানকে স্বীকৃতি দেওয়া প্রয়োজন। ২০১৯ সাল থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকার ডিরেক্টর অফ ক্রিকেট হিসেবে দারুণ কাজ করেছে স্মিথ।"

অন্য দিকে বাউচারের বিরুদ্ধে বর্ণবিদ্বেষের অভিযোগ করেন জাতীয় দলের প্রাক্তন সতীর্থ পল অ্যাডামস এবং জাতীয় দলের প্রাক্তন সহকারী কোচ কুই। বাউচার অবশ্য দুই অভিযোগই অস্বীকার করেছেন। আগামী মাসে ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার একটি প্যানেলের মুখোমুখি হবেন বাউচার। এরপরেই শুনানি হবে দুই অভিযোগের।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.