করোনা আবহে ২৭ লক্ষ টাকা দান করেছিলেন, ভারত তাঁর 'দ্বিতীয় ঘর' বললেন প্যাট কামিন্স

ইন্সটাগ্রামে তিনি লেখেন, “১২ মাস আগে কোভিডের কারণে আমার 'দ্বিতীয় ঘর' ভারতের অবস্থা দেখে অবাক হয়ে গিয়েছিলাম। দেখেছিলাম কী ভাবে অক্সিজেনের অভাবে মানুষ মারা যাচ্ছে।”
করোনা আবহে ২৭ লক্ষ টাকা দান করেছিলেন, ভারত তাঁর 'দ্বিতীয় ঘর' বললেন প্যাট কামিন্স
প্যাট কামিন্সফাইল চিত্র - সংগৃহীত

করোনার দ্বিতীয় ঢেউতে গত বছর এই সময় কার্যত বেকায়দায় ছিল দেশ। ঠিক তখনই কেকেআর-র তারকা পেসার প্যাট কামিন্স প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে অর্থ প্রদান করেছিলেন। যার জেরে বহু মানুষের অক্সিজেন সমস্যাও দূর হয়েছিল।

গত বছর আইপিএল বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর অস্ট্রেলিয়ার রাষ্ট্রদূত কামিন্স নিজের দেশে ফিরলেও ভারতের মানুষের জন্য তিনি বিশাল অঙ্কের অর্থ দান করেছিলেন। নিজে থেকে উদ্যোগী হয়ে ৫০ হাজার অস্ট্রেলীয় ডলার যার ভারতীয় মূল্য ২৭ লক্ষের বেশী দান করেছিলেন ‘পিএম কেয়ার্স’ ফান্ডে।

সূত্রের খবর, সেই অর্থ দিয়ে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে অক্সিজেন সিলিন্ডার, পিসিআর মেশিন, আপৎকালীন চিকিৎসার যন্ত্রপাতি কেনা হয়। কেকেআর এর এই পেসারের প্রশংসায় কলকাতাবাসীরা পঞ্চমুখ। তিনি এই প্রসঙ্গে নিজের ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্টে একটি পোস্টও করেন।

তিনি লেখেন, “১২ মাস আগে কোভিডের কারণে আমার দ্বিতীয় ঘর ভারতের অবস্থা দেখে অবাক হয়ে গিয়েছিলাম। বিশেষ করে যেভাবে অক্সিজেনের অভাবে মানুষ মারা যাচ্ছে তা দেখে। আমি এখনই ইউনিসেফ ভারতের সঙ্গে একটি বৈঠক শেষ করলাম। এখন আমি খুবই খুশি। জানতে পেরেছি কী ভাবে সেই অর্থের সাহায্যে মানুষের জীবন বাঁচানো গিয়েছে। অক্সিজেন তৈরির প্ল্যান্ট, পোর্টেবল অক্সিজেন জেনারেটর, পিসিআর মেশিন এবং টন টন নিরাপত্তার যন্ত্রপাতি কেনা হয়েছে এবং হাসপাতাল ও স্থানীয় ক্লিনিকে সেগুলি বিতরণ করা হয়েছে।”

প্যাট কামিন্স
PM Cares: কোভিড কালে সংগ্রহ প্রায় ১১ হাজার কোটি, খরচ হয়নি ৬৪ শতাংশই

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.