প্রথম ভারতীয় অ্যাথলিট হিসেবে বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশীপে লং জাম্পের ফাইনালে শ্রীশঙ্কর

প্রথম ভারতীয় লং জাম্পার হিসেবে ২০০৩ সালে লং জাম্পের ফাইনালে উঠেছিলেন অঞ্জু ববি জর্জ। ওই প্রতিযোগীতায় ব্রোঞ্জও জিতেছিলেন তিনি। এবার প্রথম ভারতীয় পুরুষ লং জাম্পার হিসাবে ফাইনালে গেলেন মুরলী।
মুরলী শ্রীশঙ্কর
মুরলী শ্রীশঙ্করছবি সৌজন্যে অনুরাগ ঠাকুরের ট্যুইটার হ্যান্ডেল

প্রথম ভারতীয় অ্যাথলিট হিসেবে বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশীপে পুরুষদের লং জাম্পের ফাইনালে পৌঁছে গেলেন মুরলী শ্রীশঙ্কর। যুক্তরাষ্ট্রে ওরিগানে অনুষ্ঠিত এই প্রতিযোগীতায় ৮.০০ মিটার লম্বা লাফ দিয়ে সরাসরি ফাইনালের যোগ্যতা অর্জন করেন তিনি। যোগ্যতা অর্জন পর্বে গ্রুপ 'বি'তে দ্বিতীয় এবং সব মিলিয়ে সপ্তম স্থানে শেষ করেন কেরালার ২৩ বর্ষীয় এই লং জাম্পার।

ফাইনালের যোগ্যতা অর্জনের জন্য নির্ধারিত ৮.১৫ মিটার দূরত্ব অতিক্রম করতে পারেননি মুরলী। তা সত্ত্বেও সেরা ১২ জন পারফর্মারদের মধ্যে একজন হিসেবে ফাইনালে উঠেছেন তিনি। যোগ্যতা অর্জন পর্বে ১৮.১৫ মিটার দূরত্ব অতিক্রম করতে পেরেছেন কেবল দু'জন প্রতিযোগী। জাপানের ইউকি হাশিওকা লাফিয়েছেন ৮.১৮ মিটার এবং যুক্তরাষ্ট্রের মারকুইস ডেন্ডি লাফ দিয়েছেন ৮.১৬ মিটার।

প্রথম ভারতীয় লং জাম্পার হিসেবে ২০০৩ সালে লং জাম্পের ফাইনালে উঠেছিলেন অঞ্জু ববি জর্জ। প্রথম ভারতীয় হিসেবে প্যারিসে অনুষ্ঠিত ওই প্রতিযোগীতায় ব্রোঞ্জও জিতেছিলেন তিনি। এবার প্রথম ভারতীয় পুরুষ লং জাম্পার হিসাবে ফাইনালে নামার যোগ্যতা অর্জন করেছেন মুরলী। তাঁর হাত ধরে লং জাম্পে ফের পদক জয়ের স্বপ্ন দেখছে দেশবাসী।

লং জাম্পে মুরলী ফাইনালে পৌঁছালেও জেসউইন আলদ্রিন ও মহম্মদ আনিস ফাইনালের যোগ্যতা অর্জন করতে পারেননি। আলদ্রিন ও আনিস যথাক্রমে ৭.৭৯ মিটার এবং ৭.৭৩ মিটারের লাফ দেন। তাঁরা যোগ্যতাঅর্জন পর্বের গ্রুপ 'এ'তে ৯ এবং ১১ নম্বর স্থানে শেষ করেন।

এখনও পর্যন্ত বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশীপের ফাইনালের যোগ্যতা অর্জন করেছেন ভারতের দুই তারকা। লং জাম্পে মুরলীর পাশাপাশি ৩০০০ মিটার স্টিপেলচেজের ফাইনালে প্রবেশ করেছেন অবিনাশ সাবলে। ৮:১৮.৭৫ সময়ে দৌড় শেষ করে ফাইনালের যোগ্যতা অর্জন করেছেন অবিনাশ।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in