EPL-এ নিজেদের রেকর্ডই আবার ছুঁলো Man U - সাউদাম্পটনকে নিয়ে ছেলেখেলা, ৯-০ গোলে জয়

গতরাতে ম্যান ইউর হয়ে মোট ৭ জন গোল করেন। একমাত্র জোড়া গোল করেন মার্শিয়াল। বাকি ছয় ফুটবলারের পা থেকে আসে একটি করে গোল। ৯ জনের সাউদাম্পটনকে ৯ গোলের মালা পরিয়েই বিদায় জানায় রাশফোর্ড, ফার্নান্দেজরা।
EPL-এ নিজেদের রেকর্ডই আবার ছুঁলো Man U - সাউদাম্পটনকে নিয়ে ছেলেখেলা, ৯-০ গোলে জয়
ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

সাউদাম্পটনকে নিয়ে কার্যত ছেলেখেলা করে প্রিমিয়ার লীগের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় জয়ের রেকর্ডে আবারও ভাগ বসালো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ১৯৯৫ সালে ইপসউইচ টাউনকে ৯ গোল খাইয়ে ছিলো ম্যান ইউ। গতরাতে নিজেদের রেকর্ডের পাশে নিজেদের নাম আরো একবার লিখলো রেড ডেভিলরা।

চলতি মরশুমে দুরন্ত ছন্দে রয়েছে ওলে গানার সোলশারের দল। ২২ ম্যাচে ৪৪ পয়েন্ট নিয়ে লীগ টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে তারা। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে গতরাতে কাঙ্খিত জয়ের উদ্দেশ্যে মাঠা নামা ম্যান ইউ মাঠ ছাড়ে ইতিহাস রচনা করে।

এদিন প্রথমার্ধের ২ মিনিটেই বড় ধাক্কা খায় সাউদাম্পটন।লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়তে হয় আলেকজান্দ্রে জেনকুইথকে। এরপরেই ১০ জনের প্রতিপক্ষকে নিয়ে ছেলেখেলা শুরু করে সোলশারের দল। ১৮ মিনিটে অ্যারন-ওয়ান বিসাকা, ২৫ মিনিটে মার্কাস রাশফোর্ড, ৩৪ মিনিটে জেন বেডনারেকের আত্মঘাতী গোল এবং ৩৯ মিনিটে এডিনসন কাভানির গোলে প্রথমার্ধেই ৪-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় রেড ডেভিলরা।

দ্বিতীয়ার্ধের ৬৯ মিনিট এবং ৯০ মিনিটে ম্যান ইউর হয়ে জোড়া গোল করেন অ্যান্থনি মার্শিয়াল। ৭১ মিনিটে গোল করেন স্কট ম্যাক টমিনে। ৮৭ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করেন পর্তুগীজ তারকা ব্রুনো ফার্নান্দেজ। যোগ করা অতিরিক্ত সময়ে সাউদাম্পটন কফিনে শেষ পেরকটি পুঁতে দেন ড্যানিয়েল জেমস।

এদিন ৮৬ মিনিটে আত্মঘাতী গোল করা জেন বেডনারেককেও লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়তে হয়। শেষে ৯ জনের সাউদাম্পটনকে ৯ গোলের মালা পরিয়েই বিদায় জানায় রাশফোর্ড, ফার্নান্দেজরা। গতরাতে ম্যান ইউর হয়ে মোট ৭ জন গোল করেন। একমাত্র জোড়া গোল করেন মার্শিয়াল। বাকি ছয় ফুটবলারের পা থেকে আসে একটি করে গোল।

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in