IPL: ঋতুরাজ গায়কোয়াড়ের ব্যাটে ভর দিয়ে বিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষা পেল চেন্নাই সুপার কিংস

মুম্বই ইন্ডিয়ানসের দুই কিউই বোলারই তাসের ঘরের মতো ভেঙে ফেললো চেন্নাই সুপার কিংসের টপ অর্ডারকে। শুরুতেই এদিন বোল্ট এবং অ্যাডাম মিলনের মুখোমুখি হয় চেন্নাইয়ের টপ অর্ডার।
IPL: ঋতুরাজ গায়কোয়াড়ের ব্যাটে ভর দিয়ে বিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষা পেল চেন্নাই সুপার কিংস
ঋতুরাজ গায়কোয়াড় ছবি চেন্নাই সুপার কিংসের ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

মুম্বই ইন্ডিয়ানসের দুই কিউই বোলারই তাসের ঘরের মতো ভেঙে ফেললো চেন্নাই সুপার কিংসের টপ অর্ডারকে। শুরুতেই এদিন বোল্ট এবং অ্যাডাম মিলনের মুখোমুখি হয় চেন্নাইয়ের টপ অর্ডার। হলুদ ব্রিগেডের দুই বিশ্বস্ত বিদেশী ফাফ ডু প্লেসি এবং মঈন আলি এদিন রানের খাতা না খুলেই প্যাভিলিয়নের রাস্তা দেখেন।

রানের খাতা খুলতে পারেননি অম্বতি রায়ডুও। সুরেশ রায়না, মহেন্দ্র সিং ধোনিরা কার্যত অসহায় আত্মসমর্পণ করে ড্রেসিংরুমে ফিরে যান। তবে বোল্ট-মিলনের আক্রমণে কোণঠাসা চেন্নাইয়ের হয়ে ব্যাট হাতে প্রতি আক্রমণ করেন ঋতুরাজ গায়কোয়াড। ৫৮ বলে অপরাজিত ৮৮* রানের অনবদ্য ইনিংস খেলে দলকে সম্মানজনক জায়গায় নিয়ে যান এই চেন্নাই ওপেনার। নির্ধারিত ২০ ওভারের শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৫৬ রান সংগ্রহ করেছে চেন্নাই সুপার কিংস।

করোনা পরিস্থিতিতে মাঝপথে বন্ধ হয়ে যাওয়া আইপিএলের দ্বিতীয় পর্ব শুরু হয়েছে অবশেষে। টুর্নামেন্টকে ভারত থেকে উড়িয়ে আনা হয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে। দ্বিতীয় পর্বের প্রথম ম্যাচে রবিবার মুখোমুখি হয়েছে চেন্নাই সুপার কিংস ও মুম্বই ইন্ডিয়ানস। টসে জিতে এই ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় সিএসকে অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। মুম্বইয়ের হয়ে এই ম্যাচে অধিনায়কত্ব করেন কায়রন পোলার্ড। রোহিত শর্মা এই ম্যাচে প্রথম একাদশে খেলেননি।

দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ব্যাটিং বিপর্যয়ের মুখে পড়ে চেন্নাই। মাত্র ৭ রানেই হারিয়ে ফেলে ৩ উইকেট। ফাফ ডু প্লেসি এবং মঈন আলি রানের খাতা না খুলেই ফিরে যান। অম্বতি রায়ডু রান না করেই আহত হয়ে ফিরে যান। সুরেশ রায়না আউট হন ৪ রান করে। চেন্নাইয়ের চতুর্থ উইকেট পড়ে ২৪ রানের মাথায়। দলের অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি মাত্র ৩ রানই স্কোর বোর্ডে যোগ করতে পারেন। প্রথম চার উইকেটের মধ্যে ডু প্লেসি ও রায়নাকে ফেরান বোল্ট এবং মঈন আলি ও ধোনিকে ফেরান মিলনে।

একের পর এক উইকেট পড়তে থাকলেও ব্যাট হাতে একা দাঁড়িয়েছিলেন ঋতুরাজ গায়কোয়াড। কুইন্টন ডিকক গায়কোয়াডের প্রথম দিকেই ক্যাচ হাতছাড়া করলে, চেন্নাই ওপেনার আর সুযোগ দেননি। কার্যত একা হাতেই দলকে সম্মানজনক জায়গায় নিয়ে যান। ৫৮ বলে অপরাজিত ৮৮* রানের অনবদ্য ইনিংস খেললেন তিনি। গায়কোয়াডের পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেললেন রবীন্দ্র জাদেজা (২৬) ও ডোয়েন ব্র্যাভো (২৩)।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.