IPL: দুর্ভেদ্য ক্রিস মরিসের হাতে দিল্লি বধ রাজস্থানের

রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে রাজস্থানকে জয় এনে দিলেন ক্রিস মরিস। কার্যত দুই প্রোটিয়া তারকা ডেভিড মিলার (৬২) এবং ক্রিস মরিসই (৩৬*) রাজস্থানকে জয়ের স্বাদ এনে দিলেন।
IPL: দুর্ভেদ্য ক্রিস মরিসের হাতে দিল্লি বধ রাজস্থানের
রাজস্থান রয়্যালসের ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে রাজস্থানকে জয় এনে দিলেন ক্রিস মরিস। কার্যত দুই প্রোটিয়া তারকা ডেভিড মিলার (৬২) এবং ক্রিস মরিসই (৩৬*) রাজস্থানকে জয়ের স্বাদ এনে দিলেন। রাজস্থানের দাপুটে বোলিংএর পাল্টা জবাব দেয় দিল্লি বোলাররাও। ওকস-আভেস-রাবাডা ত্রয়ীর আগুন ঝরানো বোলিংএর সামনে তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে রাজস্থানের টপ অর্ডার। মিডিল অর্ডারে মিলার এবং শেষে মরিসের দৌলতেই দিল্লির দেওয়া ১৪৮ রানের লক্ষ্য ২ বল বাকি থাকতেই টপকে যায় রাজস্থান। ৩ উইকেটে জয় নিয়ে পয়েন্টের খাতা খোলে স্যামসনরা।

দ্বিতীয় দফায় ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই বড় ধাক্কা খায় রাজস্থান। ১৩ রানের মাথায় দুই ওপেনার মনন ভোরা (৯) ও জস বাটলার আউট হয়ে ফিরে যান। দুজনকেই ফেরান ক্রিস ওকস। এরপর পরপর উইকেট হারাতে থাকে রাজস্থান। অধিনায়ক সঞ্জু স্যামসনকে ৪ রানে ফেরত পাঠান কাগিসো রাবাডা। শিবম দুবে এবং রিয়ান পরাগ দুজনেই ২ রান করে যোগ করেন। দুজনকেই ফেরান আভেস খান।

রাহুল টিওয়াটিয়াকে সঙ্গে নিয়ে রাজস্থানের হয়ে একা লড়াই চালিয়ে যান ডেভিড মিলার। টিওয়াটিয়া ১৭ বলে ১৯ রান করে রাবাডার শিকার হন। আর প্রোটিয়া তারকা ডেভিড মিলার ৪৩ বলে ৬২ রান করেন। তবে মিলার আউট হয়ে যাওয়ার পরেই রাজস্থানের জয়ের স্বপ্ন ক্রমশ ফিকে হয়ে যায়। কিন্তু শেষ মুহূর্তে ত্রাতা হয়ে ওঠেন ক্রিস মরিস। ৪ টি বিশাল ছক্কার মাধ্যমে ১৮ বলে ৩৬* রানের ম্যাচ উইনিং ইনিংস খেলেন তিনি। আর রাজস্থান ৩ উইকেটে জয় ছিনিয়ে নেয়।

দিল্লির হয়ে এদিন তিনটি উইকেট তুলে নেয় আভেস খান। জোড়া উইকেট আসে রাবাডা এবং ক্রিস ওকসের ঝুলিতে।

ওয়াংখেডেতে এদিন টসে জিতে প্রথমে বল করার সিদ্ধান্ত নেয় রাজস্থান রয়্যালস। ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ভরা ডুবির মধ্যে পড়ে দিল্লি ক্যাপিটালস। ৩৭ রানেই তারা হারিয়ে ফেলে চার উইকেট। প্রথম তিন ব্যাটসম্যান পৃথ্বী শ(২),শিখর ধাওয়ান (৯),আজিঙ্কে রাহানেকে (৮) ফেরান জয়দেব উনাদকাট এবং মার্কাস স্টয়নিসকে রানের খাতা না খুলতে দিয়েই ডাগআউটের রাস্তা দেখান মুস্তাফিজুর রহমান।

দিল্লি অধিনায়ক ঋষভ পন্থ একা দাঁড়িয়ে থাকলেও কেউ যোগ্য সঙ্গ দিতে পারেনি। ঋষভ এই ম্যাচে ৩২ বলে ৫১ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেন। এছাড়া ললিত যাদব করেন ২০ রান এবং টম কুরেন ২১ রান স্কোর বোর্ডে যোগ করেন। শেষে ক্রিস ওকস ১৫* রানে এবং কাগিসো রাবাডা ৯* রানে অপরাজিত থাকলেন।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in