IPL: কাজে এলোনা কামিন্স-কার্তিকের লড়াই, নাইটদের বিরুদ্ধে শেষ হাসি ধোনি বাহিনীর
কলকাতা নাইট রাইডারসের ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

IPL: কাজে এলোনা কামিন্স-কার্তিকের লড়াই, নাইটদের বিরুদ্ধে শেষ হাসি ধোনি বাহিনীর

কামিন্সের ৩৪ বলে ৬৬* রানের মারকাটারি ইনিংসও জয় এনে দিতে পারলো না নাইটদের। ৫ বল বাকি থাকতেই অল আউট হয়ে যায় তারা। চেন্নাইয়ের দেওয়া ২২১ রানের লক্ষ্য মাত্রা তাড়া করতে নেমে ২০২ রানে শেষ কলকাতার ইনিংস

টান টান উত্তেজনার ম্যাচে শেষ হাসি হাসলো ধোনি বাহিনীই। ৩১ রানে ৫ উইকেট হারানোর পর নাইটদের মোমেন্টাম এনে দিয়েছিলেন আন্দ্রে রাসেল (৫৪)। এরপর ব্যাট হাতে তান্ডব চালালেন অজি পেসার প্যাট কামিন্স। তবে কামিন্সের ৩৪ বলে ৬৬* রানের মারকাটারি ইনিংসও জয় এনে দিতে পারলো না নাইটদের। ৫ বল বাকি থাকতেই অল আউট হয়ে যায় তারা। চেন্নাইয়ের দেওয়া ২২১ রানের লক্ষ্য মাত্রা তাড়া করতে নেমে ২০২ রানে শেষ হয় কলকাতার ইনিংস। ১৮ রানে ম্যাচ জিতে নেয় হলুদ বাহিনী।

এদিন নাইটদের শুরুতেই ব্যাক ফুটে ঠেলে দেন দীপক চাহার। টপ অর্ডারে শুবমন গিল (০), নীতিশ রানা (৯), মর্গ্যান(৭), সুনীল নারিনকে (৪)দাঁড়াতেই দেননি তিনি। রাহুল ত্রিপাঠি ৮ রান করে লুঙ্গি এনগিডির শিকার হন। মাত্র ৩১ রানেই পাঁচ উইকেট হারিয়ে যায় নাইট রাইডার্সের।

এরপর অবশ্য দীনেশ কার্তিক এবং রাসেল দলকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। আন্দ্রে রাসেল এদিন ২২ বলে ৫৪ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলেন। তার ইনিংস সাজানো রয়েছে ৩ টি বাউন্ডারি এবং ৬ টি বিশাল ওভার বাউন্ডারির মাধ্যমে। রাসেলকে স্যাম কুরেন ফিরিয়ে দেওয়ার পরে দিনেশ কার্তিক ২৪ বলে ৪০ রান করে এনগিডির শিকার হন।

রাসেল-কার্তিক ফিরে যাওয়ার পর ব্যাট হাতে দলকে ভরসা জোগায় প্যাট কামিন্স। শেষ পর্যন্ত লড়াই চালালেও অন্য প্রান্তে সঙ্গ দিতে পারেনি কোনো ব্যাটসম্যান। কামিন্স ৪ টি বাউন্ডারি এবং ৬ টি ওভার বাউন্ডারির মাধ্যমে ৩৪ বলে ৬৬* রানে অপরাজিত থাকেন। কলকাতা ৫ বল বাকি থাকতেই ২০২ রানে অল আউট হয়ে যায়। ১৮ রানে ম্যাচ জিতে নেয় চেন্নাই সুপার কিংস।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in