IPL: ১১১ রানে অল আউট মুম্বাই ইন্ডিয়ানস, বড়ো জয় আরসিবির
মুম্বাইকে হারানোর পর আরসিবিছবি আইপিএল ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

IPL: ১১১ রানে অল আউট মুম্বাই ইন্ডিয়ানস, বড়ো জয় আরসিবির

রোহিত শর্মার মুম্বই ইন্ডিয়ানসকে ১১১ রানে অল আউট করে ৫৪ রানে বড় জয় রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের। অনবদ্য ব্যাটিং-এর পর বল হাতেও আরসিবির হয়ে দুরন্ত প্রদর্শন অজি অলরাউন্ডার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল।

অবশেষে জয় এলো বিরাট শিবিরে। রোহিত শর্মার মুম্বই ইন্ডিয়ানসকে ১১১ রানেই অল আউট করে ৫৪ রানে বড় জয় তুলে নিয়েছে রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর। অনবদ্য ব্যাটিং-এর পর বল হাতেও আরসিবির হয়ে দুরন্ত প্রদর্শন করলেন অজি অলরাউন্ডার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। সেইসঙ্গে দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বল হাতে আগুন ঝরালেন হার্শেল পাটেল এবং ঘূর্ণিতে নাস্তানাবুদ করলেন যুজবেন্দ্র চাহাল।

হার্শেল ৩ ওভার ১ বলে মাত্র ১৭ রান দিয়ে তুলে নিলেন ৪ টি উইকেট। যুজবেন্দ্র চাহাল ৪ ওভারে মাত্র ১১ রান খরচ করে তুলেছেন ৩ টি গুরুত্বপূর্ণ উইকেট। এই জয়ের ফলে আইপিএলের ইতিহাসে প্রথমবার এক মরশুমে দুটি ম্যাচই মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে জিতেছে আরসিবি।

রান তাড়া করতে নেমে ব্যাট হাতে ডিকক-রোহিত জুটি শুরুটা ভালো করলেও মিডিল অর্ডারে ব্যাটিং ব্যর্থতা মুম্বইকে হতাশ করেছে। প্রথম উইকেটে ৫৭ রান যোগ করেন ওপেনিং জুটি। কুইন্টন ডিকক ২৩ বলে ২৪ রান করে ফিরে যান। ডিকককে ফেরান যুজবেন্দ্র চাহাল। এরপর দলের স্কোর যখন ৭৯ রানে, তখন ২৮ বলে ৪৩ রান করে আউট হয়ে যান দুরন্ত ব্যাট করতে থাকা মুম্বই অধিনায়ক রোহিত শর্মা।

রোহিতের উইকেট পতনের সাথে সাথে মুম্বইও ব্যাটিং বিপর্যয়ের মুখে পড়ে। খেলায় রাশ টেনে আনে আরসিবি। মিডিল অর্ডারে ইশান কিশান(৯),সূর্যকুমার যাদব(৮), ক্রুনাল পান্ডিয়া (৫), হার্দিক পান্ডিয়া (৩), কায়রন পোলার্ডরা (৭)সম্পূর্ণ রূপে ব্যর্থ হন। হার্শেল পাটেল, যুজবেন্দ্র চাহালের সামনে টেল এন্ডাররা দাঁড়াতেই পারেননি। ১১১ রানেই অল আউট হয়ে যায় মুম্বই ইন্ডিয়ানস।

এদিন প্রথম দফায় ব্যাট করতে নেমে প্রথম থেকেই দলকে টানেন ব্যাঙ্গালোর অধিনায়ক বিরাট কোহলি। দেবদূত পাড়িক্কেল এদিন শূন্য রানে আউট হয়ে ফিরে যান। তিন নম্বরে ব্যাট করতে নেমে শ্রীকার ভরত ২৪ বলে ৩২ রান করেন। বিরাট কোহলি এদিন টানা দ্বিতীয় অর্ধশতরান করেছেন। ৪২ বলে ৫১ রান করেছেন তিনি। মিডল অর্ডারে আরসিবিকে বড় রানের দিকে এগিয়ে নিয়ে যান অজি অলরাউন্ডার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। ৬ টি বাউন্ডারি এবং ৩ টি ওভার বাউন্ডারির মাধ্যমে ৩৭ বলে ৫৬ রানের ইনিংস খেলেন ম্যাক্সওয়েল। তবে এবি ডিভিলিয়ার্স এদিন বিধ্বংসী রূপ নিয়েও বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে পারেননি। একটি বাউন্ডারি এবং একটি ওভার বাউন্ডারি মেরে ১১ রান করেন। সবমিলিয়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটের বিনিময়ে ১৬৫ রান সংগ্রহ করে বিরাটরা।

মুম্বইয়ের হয়ে চার ওভার বল করে ৩৬ রান দিয়ে ৩ টি উইকেট তুলে নিয়েছেন জসপ্রীত বুমরাহ। এছাড়াও ৪ ওভারে মাত্র ১৭ রান দিয়ে একটি উইকেট নিয়েছেন কিউই পেসার ট্রেন্ট বোল্ট। একটি করে উইকেট নিয়েছেন অ্যাডাম মিলনে এবং রাহুল চাহার।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.