IPL 2022: শেষ দু'বলে দুই ছক্কা! গুজরাটের রুদ্ধশ্বাস জয়
ছবি IPL-এর ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

IPL 2022: শেষ দু'বলে দুই ছক্কা! গুজরাটের রুদ্ধশ্বাস জয়

রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে পাঞ্জাবের হাতের মুঠো থেকে জয় ছিনিয়ে নিলেন রাহুল টিওয়াটিয়া। গুজরাটের জয়ের জন্য শেষ দুই বলে প্রয়োজন ছিলো ১২ রান। স্মিথকে পরপর দুটি ছক্কা হাঁকিয়ে জয় ছিনিয়ে নিলেন টিওয়াটিয়া।

রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে পাঞ্জাবের হাতের মুঠো থেকে জয় ছিনিয়ে নিলেন রাহুল টিওয়াটিয়া। গুজরাট টাইটানসের জয়ের জন্য শেষ দুই বলে প্রয়োজন ছিলো ১২ রান। ওডেন স্মিথকে পরপর দুটি ছক্কা হাঁকিয়ে সেই লক্ষ্য অতিক্রম করলেন টিওয়াটিয়া। সেইসঙ্গে শুবমন গিলের ৫৯ বলে ৯৬ রানের লড়াকু ইনিংসকেও ব্যর্থ হতে দিলেন না তিনি। পাঞ্জাবকে হারিয়ে টানা তৃতীয় জয় তুলে নিয়ে এখনও পর্যন্ত অপরাজিত রইলো হার্দিক পান্ডিয়ার গুজরাট টাইটানস।

টসে হেরে প্রথম দফায় ব্যাট করার সুযোগ পায় পাঞ্জাব কিংস। চলতি টুর্নামেন্টে পাঞ্জাবের অধিনায়কত্ব পাওয়া মায়াঙ্ক আগরওয়াল নিজেকে এখনও পর্যন্ত মেলে ধরতে পারেননি। এদিনও মাত্র ৫ রান করে গুজরাট টাইটানসের অধিনায়ক হার্দিক পান্ডিয়ার উইকেটে পরিণত হন কিংসের অধিনায়ক। আবার দলগত স্কোর ৩৪ রানের মাথায় ইংলিশ পাওয়ার হিটার জনি বেয়ারিস্টোকে(৮) হারিয়ে ফেলে পাঞ্জাব।

তবে বেয়ারিস্টো ফিরে যাওয়ার পর আর এক ইংলিশ তারকা লেম লিভিংস্টোন এসে ম্যাচের ছবি বদলে দেন। শিখর ধাওয়ানকে অন্য প্রান্তে রেখে বিধ্বংসী মেজাজে ব্যাট ঘোরাতে থাকেন লিভিংস্টোন। মাত্র ২৭ বলে ৭ টি বাউন্ডারি এবং ৪ টি ওভার বাউন্ডারির মাধ্যমে ৬৪ রানের বড় ইনিংস খেলে দিয়ে যান তিনি।

দলগত স্কোর ৮৬ রানের মাথায় শিখর ধাওয়ান আউট হয়ে যান ৩০ বলে ৩৫ রান করে। এরপর ১২৪ রানের মাথায় পর পর জিতেশ শর্মা(২৩) ও ওডেন স্মিথকে(০) ফিরিয়ে দেন দর্শন নালকান্ডে। লিভিংস্টোন দাঁড়িয়েছিলেন। কিন্তু তিনি ফিরে যাওয়ার সাথে সাথেই ব্যাটিং বিপর্যয়ের মুখে পড়ে যায় পাঞ্জাব। শাহরুখ খান(১৫), রাবাডা(১), বৈভব আরোড়া(২) বেশিক্ষণ দাঁড়াতে পারেননি। ১৮ ওভারের আগেই ১৬২ রানে ৯ উইকেট হারিয়ে ফেলে পাঞ্জাব। এরপর অপরাজিত দশম উইকেটে রাহুল চাহার এবং আর্শদীপ সিং অতি গুরুত্বপূর্ণ এক ইনিংস খেলে পাঞ্জাবের স্কোরকে ১৮৯ রানে নিয়ে যান। রাহুল চাহার ১৪ বলে ২২* রান করে অপরাজিত থাকেন এবং ৫ বলে ১০* রানে অপরাজিত থাকেন আর্শদীপ।

পাঞ্জাবের দেওয়া লক্ষ্যমাত্রা তাড়া করতে নেমে শুরুতেই ম্যাথু ওয়েডকে(৬) হারিয়ে ফেলে লখনউ। তবে এরপর সাই সুদর্শনকে সঙ্গে নিয়ে দুরন্ত ছন্দে ব্যাট করতে থাকেন শুবমন গিল। দ্বিতীয় উইকেটে এই জুটি ১০১ রানের পার্টনারশিপ গড়েন। ১৫ তম ওভারে সাই সুদর্শন ৩০ বলে ৩৫ রান করে ফিরে যাওয়ার পরেই রানের গতি ক্রমশ কমতে থাকে। শুবমনও শেষের দিকে এসে বড় শট খেলতে ব্যর্থ হন। আর্শদীপের শেষ দুই ওভারই গড়ে দিয়েছিলো পার্থক্য। ১৬ নম্বর ওভারে মাত্র ৬ রান এবং ১৮ নম্বর ওভারে মাত্র ৫ রান আর্শদীপের বিপক্ষে সংগ্রহ করতে পেরেছিলেন হার্দিক-গিল জুটি।

১৯ তম ওভারে গিলের ৯৬ রান করে ফিরে যাওয়া এবং পরের ওভারে হার্দিকের(২৭) রান আউট হয়ে ফিরে যাওয়ার পর একপ্রকার জয়ের আশা ছেড়েই দিয়েছিলো গুজরাট। শেষ পাঁচ বলে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিলো ১৮ রান। সেই লক্ষ্য অতিক্রম করে ব্র্যাবোর্নে বাজিমাৎ করলেন রাহুল টিওয়াটিয়া। মাত্র ৩ বলে ১৩* রান করে দলকে এনে দিলেন রুদ্ধশ্বাস জয়।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.