টেস্টের পর T-20 সিরিজও ৩-২ ব্যবধানে ঘরে তুললো টিম ইন্ডিয়া

ভারতের দেওয়া ২২৫ রানের বিরাট লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৮৮ রানই সংগ্রহ করতে পেরেছে ব্রিটিশরা। আমেদাবাদে সিরিজের শেষ ম্যাচে ৩৬ রানে দুরন্ত জয় অর্জন করে বিরাট বাহিনী।
টেস্টের পর T-20 সিরিজও ৩-২ ব্যবধানে ঘরে তুললো টিম ইন্ডিয়া
বিসিসিআই ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

ভারতের দেওয়া ২২৫ রানের বিরাট লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৮৮ রানই সংগ্রহ করতে পেরেছে ব্রিটিশরা। আমেদাবাদে সিরিজের শেষ ম্যাচে ৩৬ রানে দুরন্ত জয় অর্জন করে বিরাট বাহিনী। আর এই জয়ের সঙ্গেই টেস্টের পর টি টোয়েন্টি সিরিজও ৩-২ ব্যবধানে নিজেদের ঘরে তুললো টিম ইন্ডিয়া।

দ্বিতীয় দফায় ব্যাট করতে নেমে রানের খাতা না খুলেই জেশন রয়ের ফিরে যাওয়ার পর প্রাথমিক ধাক্কা কাটায় জস বাটলার এবং ডেভিড মালান জুটি। এই জুটি সুন্দর ভাবে দলকে এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন। দ্বিতীয় উইকেটে তাঁরা যোগ করেন ১৩০ রান। তবে বাটলার ৩৪ বলে ৫২ রানের ইনিংস খেলে ফিরে যাওয়ার পরেই ধস নামে ব্রিটিশ শিবিরে। জনি বেয়ারিস্টো মাত্র ৭ রান করেই ফিরে যান। এরপর দুরন্ত ছন্দে থাকা মালানও ৪৬ বলে ৬৮ রান করে ফিরে যান।

মালানের উইকেট হারানোর পর আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি ইংল্যান্ড। একে একে মর্গ্যান(১), স্টোকস (১৪), জর্ডান (১১), জোফরা আর্চাররা(১) সবাই আউট হয়ে ফিরে যান। স্যাম কুরেন ৩ বলে ১৪* রানে অপরাজিত থাকেন।

ভারতের হয়ে এদিন তিনটি উইকেট তুলে নিলেন শার্দুল ঠাকুর। জোড়া উইকেট আসে ভুবনেশ্বর কুমারের ঝুলিতে। একটি করে উইকেট নেয় টি নটরাজন এবং হার্দিক পান্ডিয়া।

আমেদাবাদে টসে জিতে প্রথমে বল করার সিদ্ধান্ত নেয় ইংল্যান্ড অধিনায়ক ইয়ন মর্গ্যান। আর প্রথমে ব্যাট করার সুযোগ পেয়ে শুরুটা দুরন্ত করে দুই ভারতীয় ওপেনার রোহিত শর্মা এবং বিরাট কোহলি। কোহলি একদিকে ধরে রাখেন, অন্যদিকে মারকাটারি ব্যাটিং শুরু করেন রো-হিটম্যান। প্রথম উইকেটে ৯৪ রান যোগ করেন এই জুটি। যার মধ্যে রোহিত ৩৪ বলে ৬৪ রানের এক ঝোড়ো ইনিংস খেলেন। তাঁর ইনিংস সাজানো রয়েছে ৪ টি বাউন্ডারি এবং ৫ টি বিশাল ওভার বাউন্ডারির মাধ্যমে।

রোহিত ফিরে যাওয়ার পর বিরাট এবং সূর্যকুমার জুটি একই ছন্দে দলকে এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন। কেরিয়ারের দ্বিতীয় টি টোয়েন্টি ম্যাচে সূর্যকুমার যাদব তিনটি চার এবং দুটি ছক্কার মাধ্যমে ১৭ বলে ৩২ রান করেন। রোহিত ও যাদব ফিরে যাওয়ার পর আর উইকেট খোয়াতে হয়নি ভারতকে। বিরাট কোহলি এবং হার্দিক পান্ডিয়া নির্ধারিত ২০ ওভার শেষ করেই মাঠ ছাড়েন। ভারত অধিনায়ক এদিন অপরাজিত থাকলেন ৫২ বলে ৮০* রানের অনবদ্য এক ইনিংস খেলে। বিরাটের ইনিংসে রয়েছে ৭ টি বাউন্ডারি এবং ২ টি ওভার বাউন্ডারি। অন্যদিকে হার্দিক পান্ডিয়া ৪ টি বাউন্ডারি এবং ২ টি ওভার বাউন্ডারির মাধ্যমে ১৭ বলে ৩৯* রানে অপরাজিত থাকেন।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in