Tokyo Olympics বন্ধ করার আবেদন জানিয়ে পিটিশনে ২ লক্ষ ৩০ হাজার সই

জনসাধারণের উদ্বেগের কথা মাথায় রেখে অলিম্পিক বন্ধ করার আর্জি জানিয়েছে একাংশ। দু দিনের মধ্যে ২,৩০,০০০ এরও বেশি মানুষ অলিম্পিক বন্ধের এক পিটিশনে স্বাক্ষর করেছে।
Tokyo Olympics বন্ধ করার আবেদন জানিয়ে পিটিশনে ২ লক্ষ ৩০ হাজার সই
অলিম্পিক্স ডট কমের সৌজন্যে

করোনার প্রকোপে ২০২০ সালে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও টোকিও অলিম্পিককে স্থগিত করে নিয়ে যাওয়া হয় ২০২১ সালে। তবে আবারও অনিশ্চয়তার পথে অলিম্পিক। করোনার চতুর্থ ঢেউয়ে জর্জরিত জাপান। টোকিও সহ অন্যান্য শহরে জরুরি অবস্থার মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে অলিম্পিক কমিটি নির্ধারিত সময়ে অলিম্পিক শুরু করতে চাইলেও অনিশ্চয়তার কালো মেঘ ঢেকে রয়েছে।জনসাধারণের উদ্বেগের কথা মাথায় রেখে অলিম্পিক বন্ধ করার আর্জি জানিয়েছে একাংশ। দু দিনের মধ্যে ২,৩০,০০০ এরও বেশি মানুষ অলিম্পিক বন্ধের এক পিটিশনে স্বাক্ষর করেছে।

২০২০ সালের স্থগিত অলিম্পিকের উদ্বোধন হবার কথা আগামী ২৩ শে জুলাই। হাতে আর মাত্র ১১ সপ্তাহ। কিন্তু জাপানে করোনার সংক্রমণ অবিরত। এই পরিস্থিতিতে বিশ্বব্যাপী সমাবেশ কিছুতেই মেনে নিচ্ছেন না দেশটির একাংশ। কিভাবে স্বেচ্ছাসেবক, ক্রীড়াবিদ, কর্মকর্তা এবং জাপানী জনগণকে COVID-19 থেকে নিরাপদে রাখা হবে, সে প্রশ্ন উঠছে বারবার। টোকিওর আইনজীবী কেনজি উতসুনোমিয়া আয়োজিত "স্টপ টোকিও অলিম্পিকস" আবেদনে ২৩০,০০০ এরও বেশি মানুষ স্বাক্ষর করেছেন।

আইনজীবী কেনজি উতসুনোমিয়া বলেন, "জাপানি জনগণ আমাদের মতামত স্বীকার করার প্রবণতা দেখাচ্ছেন না, তবে এখন অনেকেই কথা বলছেন। বিদেশীরাও কথা বলছেন। আশাকরি অলিম্পিক বাতিল করা হবে।"

তবে অলিম্পিকের আয়োজক সংস্থা এবং জাপান সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে মহামারীর মধ্যে বিশ্বজয়ের প্রতীক হিসেবে এই ইভেন্টটি এগিয়ে যাওয়া দরকার। তাছাড়া অংশগ্রহণকারীদের জন্য বিশদ COVID-19 প্রোটোকল প্রকাশ করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

কিন্তু জাপানে চতুর্থ ঢেউ ছড়িয়ে পড়ার পরে চিকিৎসা ব্যবস্থাতেও চাপ পড়েছে। এই পরিস্থিতিতে মতামতের জরিপে দেখা গেছে অধিকাংশই অলিম্পিক বিরোধী। সাধারণ মানুষেরাও অলিম্পিক বন্ধের জন্য কথা বলছেন। টোকিও সহ একাধিক শহরে জরুরি অবস্থার মেয়াদ মে মাসের শেষ পর্যন্ত নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে অলিম্পিক কি অনুষ্ঠিত হবে?

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in