গত এক দশকে দেশের মোট দেশদ্রোহীতার মামলার ৬৫ শতাংশই ২০১৪ সালের পর - রিপোর্ট

গত এক দশকে দেশের মোট দেশদ্রোহীতার মামলার ৬৫ শতাংশই ২০১৪ সালের পর - রিপোর্ট
গ্রাফিক্স - সুমিত্রা নন্দন

কেন্দ্রের বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে সংবাদপত্রের স্বাধীনতা, গণতান্তিক নিয়ন্ত্রণ খর্ব করার পাশাপাশি প্রতিবাদকারীদের উপর হামলার ঘটনা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে আরও দু'টি বিষয়ে নিজেদের ক্ষমতা জাহির করে চলেছে। যার মধ্যে একটি হল, দেশদ্রোহীতার মামলা ও অন্যটি হল ইউএপিএ মামলা। এই দু'টি মামলার মাধ্যমে সরকারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়া আওয়াজগুলো বন্ধ করে দেওয়ার চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

সম্প্রতি নিউজক্লিকে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে আর্টিকল ১৪ মিডিয়াকে উদ্ধৃত করে জানানো হয়েছে - এই ধরণের মামলাগুলো খতিয়ে দেখতে গিয়ে দেখা গেছে, ২০১০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০২০ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ভারতীয় দণ্ডবিধির ১২৪এ ধারায় বহু মামলা দায়ের করা হয়েছে। যা ১৫১ বছরের পুরনো ব্রিটিশ আমলের বর্বরোচিত আইনের সমান।

তথ্য অনুসারে, গত এক দশকে ১০ হাজার ৯৩৮ জন ভারতীয়র বিরুদ্ধে দেশদ্রোহীতার মামলা দায়ের করা হয়েছে। যার মধ্যে ৬৫ শতাংশ মামলা আবার ২০১৪ সালের মে মাসের পর দায়ের করা হয়েছে নরেন্দ্র মোদি সরকার ক্ষমতায় আসার পর। বিশেষ করে বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলোতেই এই দেশদ্রোহীতার মামলা বেশি দায়ের হয়েছে বলে জানানো হয়েছে ওই প্রতিবেদনে।

অন্যদিকে, ইউএপিএ ধারায় ২০১৬ থেকে ২০১৯ সালের মধ্যে করা মামলায় ২.২ শতাংশ ক্ষেত্রে বিচার প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। এই আইনের অধীনে ২০১৯ সালে মোট ১ হাজার ৯৪৮ টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। বেশিরভাগ সময়েই সরকারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ার ফলস্বরূপ এই মামলাগুলো দায়ের করা হয়েছে বলে নিজের রিপোর্টে জানিয়েছেন এক সাংবাদিক।

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in