Tirupati: করোনার জেরে দর্শনার্থী কমলো ভেঙ্কটেশ্বর মন্দিরে, আদায় কমে ২৪ লক্ষ

সোমবার মন্দিরে এসেছিলেন ২,৪০০ দর্শনার্থী। মাথা ন্যাড়া করেছেন ১,৩৭৫ জন। এই মন্দিরে প্রতিদিন গড়ে ৩ থেকে ৫ কোটি টাকা প্রণামী জমা পড়ে সেখানে সোমবার প্রণামী জমা পড়েছে ২৪ লক্ষ টাকা। যা এযাবতকালের সর্বনিম্ন।
Tirupati: করোনার জেরে দর্শনার্থী কমলো ভেঙ্কটেশ্বর মন্দিরে, আদায় কমে ২৪ লক্ষ
তিরুপতির ভেঙ্কটেশ্বর মন্দিরফাইল ছবি সংগৃহীত

করোনার ধাক্কা এসে লাগলো তিরুপতির ভেঙ্কটেশ্বর মন্দিরে। অন্ধ্রপ্রদেশে করোনা বাড়বার সঙ্গে সঙ্গেই তিরুপতির এই বিখ্যাত মন্দিরে দর্শনার্থীদের সংখ্যা কমছে। মন্দির কমিটির পক্ষ থেকে গত কয়েকদিনের যে হিসেব সামনে আনা হয়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে সোমবার মন্দিরে এসেছিলেন ২,৪০০ দর্শনার্থী। এদিন মাথা ন্যাড়া করেছেন ১,৩৭৫ জন। যেখানে এই মন্দিরে প্রতিদিন ৩ থেকে ৫ কোটি টাকা প্রণামী জমা পড়ে সেখানে সোমবার প্রণামী জমা পড়েছে ২৪ লক্ষ টাকা। যা এযাবতকালের সর্বনিম্ন প্রণামী আদায়।

মন্দির ট্রাস্টের হিসেব অনুসারে এপ্রিল মাসের প্রথম সপ্তাহে গড়ে ৫০ হাজার দর্শনার্থী মন্দিরে এসেছিলেন। এপ্রিলের ১২ তারিখের পর থেকে গড়ে ২০ হাজার করে দর্শনার্থী আসছিলেন। যা আরও কমে যায় এপ্রিলের ২৯ তারিখে। যেদিন মন্দিরে এসেছিলেন ৯,৬৪০ জন। ৩০ এপ্রিল আসেন ৬,৪৩১ জন। এপ্রিলের ২৯ তারিখ মন্দিরে প্রণামী জমা পড়ে ৬২ লক্ষ টাকা।

গতবছর করোনা প্রকোপের সময় দীর্ঘদিন তিরুপতির ভেঙ্কটেশ্বর মন্দির বন্ধ ছিলো। মন্দির দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেওয়া হয় ১১ জুন ২০২০। এরপর মন্দিরে মাসিক প্রণামীর পরিমাণ দাঁড়িয়েছিলো প্রায় ৮৫ কোটি টাকা। যদিও এপ্রিল ২০২১ থেকে এই প্রণামীর পরিমাণ আবার কমেছে।

প্রসঙ্গত তিরুপতির এই মন্দিরে স্থায়ী অস্থায়ী মিলিয়ে প্রায় ২২ হাজার কর্মী আছেন। গত বছর মন্দিরের প্রণামী আদায় কমে যাওয়ায় এক সময় অর্থাভাবে পড়েছিলো এই মন্দির। যদিও মন্দিরের সঞ্চয়ে আছে প্রায় ৯ টন সোনা এবং ১৪ হাজার কোটি টাকার ফিক্সড ডিপোজিট। যা বিভিন্ন ব্যাঙ্কে সঞ্চিত থাকলেও তা খরচ করা হয়না। মন্দিরের ট্রাস্টি বোর্ড মনে করে এই অর্থ জনগণের, তাই এই অর্থ খরচ না করে বাঁচিয়ে রাখা হয়।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in