Rave Party: কর্ডেলিয়াতে এনসিবি তল্লাশির সময় এক বিজেপি নেতা সহ দুই বহিরাগত কেন? প্রশ্ন এনসিপি নেতার
ছবি সুমিত কাশ্যপের ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

Rave Party: কর্ডেলিয়াতে এনসিবি তল্লাশির সময় এক বিজেপি নেতা সহ দুই বহিরাগত কেন? প্রশ্ন এনসিপি নেতার

কর্ডেলিয়া ক্রুইজে তল্লাশি চালানোর সময় নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর আধিকারিকদের সঙ্গে দু’জন বহিরাগত ছিলেন। যাদের মধ্যে একজন বিজেপি ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং অন্যজন এক প্রাইভেট গোয়েন্দা।

কর্ডেলিয়া ক্রুইজে তল্লাশি চালানোর সময় নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর আধিকারিকদের সঙ্গে দু’জন বহিরাগত ছিলেন। যাদের মধ্যে একজন বিজেপি ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং অন্যজন এক প্রাইভেট গোয়েন্দা। বুধবার চাঞ্চল্যকর এই দাবি তুলেছে এনসিপি মুখপাত্র এবং রাজ্যের মন্ত্রী নবাব মালিক।

এদিন এনসিবি তল্লাশি প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে নবাব মালিক বলেন, এই তল্লাশির সময় বিজেপি নেতা মণীশ ভানুশালী এবং একজন বেসরকারি গোয়েন্দা কিরণ পি গোসাভি এনসিবি দলের সঙ্গে ছিলেন। ছবিতে যাদের অভিযুক্তদের টেনে নিয়ে যেতে দেখা গেছে। যাদের মধ্যে ছিলেন শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খান এবং অন্য এক অভিযুক্ত আরবাজ মার্চেন্ট।

নবাব মালিকের বক্তব্য অনুসারে, দাড়িওয়ালা, চশমা পরিহিত ভানুশালী একটি মেরুন শার্ট পরে ছিলেন এবং তিনি আরবাজ মার্চেন্টকে টানতে টানতে নিয়ে যাচ্ছিলেন। কিরণ পি গোসাভি আরিয়ান খানকে ধরে নিয়ে যাচ্ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে মণীশ ভানুশালী
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে মণীশ ভানুশালীছবি মণীশ ভানুশালীর ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

মালিক জানিয়েছেন, ভানুশালী বিভিন্ন সময় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সাথে, বিজেপি প্রেসিডেন্ট জে পি নাড্ডার সাথে, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর সাথে, এবং মহারাষ্ট্র বিধানসভার বিরোধী দলনেতা দেবেন্দ্র ফড়নবীশের সাথে ছবি পোস্ট করেছেন। এছাড়াও বর্তমান এবং প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও রাজ্যের বিভিন্ন প্রাক্তন মন্ত্রীর সাথে এবং বিজেপির বহু বিশিষ্ট নেতার সাথে তিনি ছবি পোস্ট করেছেন।

এনসিপি মুখপাত্রর দাবি, বিজেপি এবং এনসিবির স্পষ্টভাবে বিষয়টি জানানো উচিত যে এই দুই ব্যক্তি কারা এবং কেন তারা এই তল্লাশিতে অংশ নিয়েছিলেন। এই দুই ব্যক্তিই ভুয়ো এবং এনসিবি তল্লাশি একটি জালিয়াতি, যা শুধুমাত্র প্রচার পাওয়ার জন্য করা হয়েছে। বিজেপির সঙ্গে এই দুজনের সম্পর্ক কী তাও জানতে চেয়েছেন মালিক।

তিনি আরও বলেন, গত একবছর ধরে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর গত একবছর ধরে এনসিবি শুধুমাত্র চিত্র জগতের হাই প্রোফাইল মানুষজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে, তল্লাশি চালাচ্ছে। যা শুধুমাত্র প্রচার পাবার জন্য। এর আসল উদ্দেশ্য মহা বিকাশ আঘাদি সরকারকে বদনাম করা এবং বলিউডের মানুষের মনে ভয় ঢুকিয়ে দেওয়া।

নবাব মালিকের এই দাবির পরেই রাজ্য বিধানসভার বিরোধী বিজেপি নেতা প্রবীণ ডারেকার মালিকের দাবি খারিজ করে জানান তিনি হতাশা থেকে এইধরনের অভিযোগ আনছেন। কারণ গত জানুয়ারী ২০২১-এ এনসিবি তাঁর জামাই সমীর খানকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে।

(Except for the headline, this story has not been edited by People's Reporter and is translated and published from a syndicated feed.)

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.