কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর স্ত্রীর সুইজারল্যান্ডের ফ্ল্যাট নিয়ে প্রশ্ন - ট্যুইট মোছার নির্দেশ আদালতের

সম্প্রতি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরীর স্ত্রীর বিরুদ্ধে তাঁদের সুইজারল্যান্ডের ফ্ল্যাট নিয়ে কিছু অভিযোগ এনেছিলেন সাকেত গোখলে। এই সংক্রান্ত বিষয়ে তিনি একটি ট্যুইটও করেন। যা নিয়ে বিবাদের সূত্রপাত।
কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর স্ত্রীর সুইজারল্যান্ডের ফ্ল্যাট নিয়ে প্রশ্ন - ট্যুইট মোছার নির্দেশ আদালতের
সাকেত গোখলে ও লক্ষ্মী পুরীফাইল ছবি সংগৃহীত

ট্যুইটারে অবমাননাকর মন্তব্য করার দায়ে সাকেত গোখলেকে ট্যুইট মুছে দেবার নির্দেশ দিলো দিল্লি হাইকোর্ট। মঙ্গলবার দিল্লি হাইকোর্টের পক্ষ থেকে এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সম্প্রতি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরীর স্ত্রীর বিরুদ্ধে তাঁদের সুইজারল্যান্ডের ফ্ল্যাট নিয়ে কিছু অভিযোগ এনেছিলেন সাকেত গোখলে। এই সংক্রান্ত বিষয়ে তিনি একটি ট্যুইটও করেন। যা নিয়ে বিবাদের সূত্রপাত।

এদিন বিচারপতি সি হরিশঙ্কর আদালতে জানান, যদি সাকেত গোখলে এই ট্যুইট না তুলে নেন, তাহলে ট্যুইটারকে এই ট্যুইট মুছে দেবার নির্দেশ দেওয়া হবে। এছাড়াও সাকেত গোখলেকে হরদীপ সিং পুরী এবং তাঁর স্ত্রীর সম্পর্কে এই ধরণের অবমাননাকর ট্যুইট করা থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

সাকেত গোখলে হরদীপ পুরীর স্ত্রী লক্ষ্মী পুরীর বিরুদ্ধে সুইজারল্যান্ডে ফ্ল্যাট কেনার অভিযোগ আনার পর তিনি বিখ্যাত আইনী সংস্থা করঞ্জাওয়ালা অ্যান্ড কোং-এর মাধ্যমে দিল্লি হাইকোর্টে সাকেত গোখলের বিরুদ্ধে অবমাননার অভিযোগ আনেন। প্রাক্তন ইউ এন অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারী জেনারেল লক্ষ্মী পুরীর বক্তব্য অনুসারে, তাঁর নাম করে যে ট্যুইট করা হয়েছে তা অবমাননাকর, এবং ভুয়ো তথ্যের ভিত্তিতে করা।

তাঁর করা আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত সাকেত গোখলেকে আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে এই বিষয়ে উত্তর দেবার জন্য সময় দিয়েছে। আগামী ১০ সেপ্টেম্বর ফের আদালতে এই মামলার শুনানি হবে।

এদিন আদালত জানিয়েছে, যে কোনো কারোর ইচ্ছা হলেই কারোর বিরুদ্ধে ইন্টারনেটে অবমাননাকর কিছু লিখে দেওয়া যায় না। লক্ষ্মী পুরীর পক্ষে সওয়াল করতে দাঁড়িয়ে আইনজীবী মণিন্দর সিং বলেন – সাকেত গোখলের কোনো বোধ নেই। আমরা ৩০ বছরের বেশি সময় সরকারকে সেবা দিয়েছি এবং তার বিনিময়ে এই পেয়েছি।

এই অবমাননার মামলায় ট্যুইট মুছে দেওয়া ছাড়াও সাকেত গোখলের বিরুদ্ধে ৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করেছেন লক্ষ্মী পুরী। যদিও গত ৮ জুলাই আদালতে সাকেত গোখলে জানান – তিনি সাময়িক ভাবে কোনো ট্যুইট প্রত্যাহার করবেন না।

উল্লেখ্য, গত ২৩ জুন সাকেত গোখলে 'মোদীর মন্ত্রী এবং তাঁর সুইজারল্যান্ডের বাড়ি' – শিরোনাম দিয়ে করা তাঁর এক ট্যুইটে জানান – প্রাক্তন আইএফএস অফিসার হরদীপ পুরী মোদী মন্ত্রীসভায় দুটি দপ্তরের মন্ত্রীত্ব করেছেন। তাঁর স্ত্রী লক্ষ্মী পুরীও একজন প্রাক্তন আইএফএস অফিসার। কিন্তু তাঁদের সম্পর্কে এখন সবথেকে বড়ো রহস্য হল সুইজারল্যান্ডে তাঁদের ২.৫ মিলিয়ন ডলারের বাড়ি।

ওইদিনই এই ঘটনা নিয়ে পরপর ৯টি ট্যুইট করেন সাকেত গোখলে। যেখানে ধাপে ধাপে ২০০৬ সালে লক্ষ্মী পুরীর কেনা সুইজারল্যান্ডের এই ফ্ল্যাটের বিষয়ে একাধিক প্রশ্ন তোলেন সাকেত গোখলে।

- with inputs from IANS

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in