Online Game: অনলাইন গেমে আসক্তি, প্রচুর লোকসানের মুখে পড়ে আত্মঘাতী পুলিশকর্মী

অনলাইন গেম খেলতে গিয়ে চূড়ান্ত ক্ষতির মুখে পড়ে আত্মহত্যা করলেন এক পুলিশ কনস্টেবল। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা ঘটেছে তামিলনাড়ুর কোয়াম্বাটুরে। মৃতের আত্মীয়দের অভিযোগ তিনি অনলাইন গেমস ‘রামি’-তে আসক্ত ছিলেন।
ছবি প্রতীকী
ছবি প্রতীকীছবি সংগৃহীত

অনলাইন গেম খেলতে গিয়ে চূড়ান্ত ক্ষতির মুখে পড়ে আত্মহত্যা করলেন এক পুলিশ কনস্টেবল। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা ঘটেছে তামিলনাড়ুর কোয়াম্বাটুরে। মৃতের আত্মীয়দের অভিযোগ তিনি অনলাইন গেমস ‘রামি’-তে আসক্ত ছিলেন।

জানা যাচ্ছে, কালিমুথু (২৯) নামের ওই ব্যক্তি তাঁর আত্মীয় এবং বন্ধুবান্ধব সহ তার পরিচিত ব্যক্তিদের কাছ থেকে ২০ লক্ষ টাকারও বেশি ধার নিয়েছিলেন এবং অনলাইন রামি গেম খেলছিলেন। যাতে তিনি প্রচুর ক্ষতির মুখে পড়েন এবং তাঁর বহু টাকা ঋণ হয়ে যায়। ওই পুলিশ কনস্টেবল তার ঋণদাতাদের যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তার পাওনা টাকা পরিশোধ করার প্রতিশ্রুতি দিলেও তিনি সময়মত তাঁদের ঋণ পরিশোধ করতে পারেননি।

পুলিশ আধিকারিকরা আইএএনএসকে জানিয়েছে, ৩২টি সরকারী বিভাগ তাদের পণ্য এবং প্রকল্পগুলি নিয়ে কোয়েম্বাটোরের গান্ধীপুরমে একটি প্রদর্শনীতে তাদের স্টল খুলেছে। প্রদর্শনীতে থাকা পুলিশ স্টলে অস্ত্র প্রদর্শন করা হচ্ছে এবং কালিমুথু সেখানে ডিউটিতে ছিলেন। শুক্রবার বিকেলে তিনি একা ডিউটিতে থাকার সময় ডিসপ্লে থেকে একটি এসএলআর বন্দুক নিয়ে নিজের পেটে গুলি করেন।

কোয়েম্বাটোর সিটি পুলিশের সাথে যুক্ত একজন সিনিয়র পুলিশ অফিসার আইএএনএসকে জানিয়েছেন, বুলেটটি তাঁর পেটের মধ্য দিয়ে গিয়ে পিঠ দিয়ে বেরিয়ে আসে। গুলির শব্দ শুনে ঘটনাস্থলে ছুটে আসা তার সহকর্মীরা কালিমুথুকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন এবং তাঁকে দ্রুত কোয়েম্বাটুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই চিকিৎসকরা তাঁর অস্ত্রোপচার করেন।

জানা গেছে, বুলেটটি তাঁর কিডনিকে ক্ষতিগ্রস্ত করেছিল এবং তিনি ওষুধে সাড়া দেননি। শুক্রবার সকালে তাঁর মৃত্যু হয়। তামিলনাড়ুর বিরুধুনগর জেলার বাসিন্দা কালিমুথু, তাঁর স্ত্রী সালাই থিল্লানাইকাই সহ চার ও তিন বছর বয়সী দুই সন্তানকে রেখে গেছেন।

উল্লেখ্য, অনলাইন রামি নিষিদ্ধ করার জন্য রাজনৈতিক দল এবং সামাজিক সংগঠনগুলির পক্ষ থেকে আহ্বান জানানো হয়েছে। অভিযোগ এখনও পর্যন্ত বেশ কয়েকজনের মৃত্যুর কারণ হয়েছে এই অনলাইন গেম। রামি বিরোধী আন্দোলনের সামনের সারিতে আছে পিএমকে। দলের রাজ্য সভাপতি ডাঃ আম্বুমণি রামদাস অনলাইন রামি গেম নিষিদ্ধ করার জন্য অবিলম্বে সরকারের পদক্ষেপ দাবি করেছেন। তিনি আরও জানিয়েছেন এই দাবি মানা না হলে কঠোর আন্দোলনের পথে যাবে পিএমকে।

- with inputs from IANS

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in