একাডেমিক নয়, রাজনৈতিক কারণে NCERT-র ইতিহাস পাঠ্যবই সংশোধন হচ্ছে: ইন্ডিয়ান হিস্ট্রি কংগ্রেস

IHC জানায়, পাঠ‍্যবইয়ে যে পরিবর্তনের কথা বলা হয়েছে, জাতীয় অথবা আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত ইতিহাসবিদদের কোনো সংগঠনের পরামর্শের ভিত্তিতে এই পরিবর্তন হচ্ছে না।
একাডেমিক নয়, রাজনৈতিক কারণে NCERT-র ইতিহাস পাঠ্যবই সংশোধন হচ্ছে: ইন্ডিয়ান হিস্ট্রি কংগ্রেস
ছবি প্রতীকীগ্রাফিক্স সুমিত্রা নন্দন

স্কুলস্তরের ইতিহাস বই নতুন করে লেখার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে NCERT, তাতে তীব্র আপত্তি জানিয়েছে ইন্ডিয়ান হিস্ট্রি কংগ্রেস (IHC)। তাদের মতে, অ্যাকাডেমিক কারণে এই পরিবর্তন করা হচ্ছে না। সম্পূর্ণভাবে 'রাজনৈতিক কারণে' ইতিহাসের পাঠ্যবই নতুন করে লেখা হচ্ছে।

জুলাই মাসে রাজ‍্যসভার সচিবালয় থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে বলা হয়, সংসদের শিক্ষা সংক্রান্ত স্ট‍্যান্ডিং কমিটি NCERT-র পাঠ‍্যপুস্তক ও পাঠ‍্যক্রমের পরিবর্তন নিয়ে আলোচনা করেছে। ইতিহাসের সাথে সামঞ্জস্য নেই এমন তথ‍্য বই থেকে সরিয়ে দেওয়া হবে। জাতীয় বীরদের সম্পর্কে থাকা বিকৃত তথ‍্যও সরিয়ে দেওয়া হবে। ভারতীয় ইতিহাসের বিভিন্ন সময়কালকে সমান গুরুত্ব দিয়ে তুলে ধরা হবে এবং নারীদের ঐতিহাসিক ভূমিকাকে প্রাধান্য দেওয়া হবে।

রাজ‍্যসভার এই সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে গত ১৪ জুলাই এক চিঠিতে দেশের বৃহত্তম পেশাদারী ইতিহাসবিদদের সংগঠন IHC জানায়, পাঠ‍্যবইয়ে যে পরিবর্তন আনার কথা বলা হয়েছে, জাতীয় অথবা আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত ইতিহাসবিদদের কোনো সংগঠনের পরামর্শের ভিত্তিতে এই পরিবর্তন আনা হচ্ছে না। বরং শিক্ষার সাথে যুক্ত নন, ভোটারদের দ্বারা সমর্থিত একটি রাজনৈতিক দলের নির্দেশের ভিত্তিতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

চিঠিতে আরো লেখা হয়েছে, "সংস্কার আনার নামে যে NCERT-র বর্তমান পাঠ‍্যপুস্তকে যে ভুল তথ্য ও পক্ষপাতদুষ্ট ধারণা ঢুকিয়ে দেওয়া হচ্ছে তাতে ইন্ডিয়ান হিস্ট্রি কংগ্রেস খুব বিচলিত।" এই চিঠিতে স্বাক্ষর করেছেন সংস্থার সভাপতি অধ্যাপক অমিয় বাগচী এবং সম্পাদক অধ্যাপক মহালক্ষ্মী রামকৃষ্ণান।

বর্তমান পাঠ‍্যপুস্তকে জাতীয় বীরদের বিষয়ে অবাস্তব ও বিকৃত তথ‍্য রয়েছে। এই কারণে পাঠ‍্যপুস্তক পরিবর্তন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে সংসদীয় কমিটি। IHC চিঠিতে জানিয়েছে, প্রস্তাবিত পরিবর্তনের জন্য কমিটি যে কারণগুলো উল্লেখ করেছে তা ভিত্তিহীন, সম্পূর্ণ মিথ্যা।

NCERT-র স্কুল পাঠ‍্যপুস্তকগুলি রোমিলা থাপার, সতীশ চন্দ্র বিপান চন্দ্রের মতো দেশের খ‍্যাতনামা ইতিহাসবিদরা লিখেছেন। ২০০২ সালে এঁদের লেখা বইগুলো সরিয়ে স্পষ্টভাবে সাম্প্রদায়িক, সংখ‍্যাগুরুদের মতামত পূর্ণ বই চালু করা হয়েছিল। দেশজুড়ে প্রবল সমালোচনার মুখে পড়ে এক বছর পরে সেই বই বাতিল করতে হয়েছিল। IHC-র চিঠিতে এই ঘটনার উল্লেখ করে ফের ইতিহাস বিকৃতির আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in