১৪৪ ধারা উপেক্ষা করে তিন কৃষি আইন বাতিলের দাবীতে সাহারানপুরে মহাপঞ্চায়েত

এদিন প্রিয়াঙ্কা বলেন – ১৬ হাজার কোটি দিয়ে দুটো এরোপ্লেন কেনা যায়, ২০ হাজার কোটি দিয়ে সংসদের সৌন্দর্যায়ন করা যায়, কিন্তু কৃষকদের ১৫ হাজার কোটি টাকা পাওনা মেটানো যায় না।
১৪৪ ধারা উপেক্ষা করে তিন কৃষি আইন বাতিলের দাবীতে সাহারানপুরে মহাপঞ্চায়েত
সাহারানপুরে কৃষকদের মহাপঞ্চায়েতস্পিরিট অফ কংগ্রেস ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

কেন্দ্রের তিন কৃষি আইন বাতিলের দাবীতে উত্তরপ্রদেশ হরিয়ানা জুড়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে একের পর এক মহাপঞ্চায়েত। যার প্রতিটিতেই সাধারণ মানুষের ভিড় ক্রমশ বাড়ছে। বুধবার সাহারাণপুরের মহাপঞ্চায়েতে কৃষকদের বড়ো জমায়েত আরও একবার জোরদার করলো কৃষি আইন বাতিলের দাবী। উল্লেখযোগ্য ভাবে এদিনও ১৪৪ ধারা উপেক্ষা করে হাজারে হাজারে মানুষ এই মহাপঞ্চায়েতে যোগ দেন। এদিনের মহাপঞ্চায়েতে উল্লেখযোগ্য বক্তাদের মধ্যে ছিলেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বঢরা।

উত্তরপ্রদেশের সাহারানপুরের মহাপঞ্চায়েতের আগেই এদিন ওই অঞ্চলে আগামী ৫ এপ্রিল পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি করা হয়। জেলাশাসক অখিলেশ সিং এই প্রসঙ্গে জানান – কোভিড পরিস্থিতিতে আইন শৃঙ্খলা রক্ষার জন্যই ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

যদিও ১৪৪ ধারা উপেক্ষা করেই এদিনের মহাপঞ্চায়েত অনুষ্ঠিত হয়। কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বঢরা এদিন ওই সমাবেশে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন – প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং অন্যান্য বিজেপি নেতারা যে কৃষকরা কৃষি আইনের বিরোধিতায় আন্দোলনরত তাঁদের অপমান করছেন।

তিনি আরও বলেন – এই তিন আইন দানবের মত। কংগ্রেস যদি ক্ষমতায় আসে তাহলে এই তিন আইন বাতিল করা হবে। কংগ্রেস এই তিন আইন বাতিল না হওয়া পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যাবে।

এদিন কংগ্রেস নেত্রী বলেন – প্রধানমন্ত্রী আমেরিকা যাচ্ছে, পাকিস্তান যাচ্ছেন, চীন যাচ্ছেন। কিন্তু তিনি যে শহরে থাকেন, সেই দিল্লি সীমান্তে গিয়ে আন্দোলনরত কৃষকদের সঙ্গে দেখা করতে পারছেন না। সেখানে কৃষকরা গত ৭৮ দিন ধরে আন্দোলন করছেন।

এদিন প্রিয়াঙ্কা বলেন – ১৬ হাজার কোটি দিয়ে দুটো এরোপ্লেন কেনা যায়, ২০ হাজার কোটি দিয়ে সংসদের সৌন্দর্যায়ন করা যায়, কিন্তু কৃষকদের ১৫ হাজার কোটি টাকা পাওনা মেটানো যায় না।

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in