Mahant Narendra Giri: অখিল ভারতীয় আখাড়া পরিষদ প্রধানের মৃতদেহ উদ্ধার

অখিল ভারতীয় আখাড়া পরিষদ প্রধান মহন্ত নরেন্দ্র গিরিকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হল প্রয়াগরাজ থেকে। সোমবার সন্ধ্যায় দেশের মূল ১৪ আখড়ার শীর্ষ সংগঠন ABAP প্রধানের মৃতদেহ ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।
Mahant Narendra Giri: অখিল ভারতীয় আখাড়া পরিষদ প্রধানের মৃতদেহ উদ্ধার
মহন্ত নরেন্দ্র গিরিফাইল ছবি সংগৃহীত

অখিল ভারতীয় আখাড়া পরিষদের (ABAP) প্রধান মহন্ত নরেন্দ্র গিরিকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হল প্রয়াগরাজ থেকে। সোমবার সন্ধ্যায় দেশের মূল ১৪ আখড়ার শীর্ষ সংগঠন এবিএপি প্রধান নরেন্দ্র গিরির মৃতদেহ ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। প্রয়াগরাজের দারাগঞ্জ এলাকার বাগম্বরী মঠের একটি ঘর থেকে তাঁর দেহ উদ্ধার হয়।

মহন্ত নরেন্দ্র গিরির মৃত্যু সংবাদ পেয়ে দ্রুত সেখানে উপস্থিত হন বিশিষ্ট পুলিশ আধিকারিকরা। তাঁর মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়। প্রাথমিকভাবে পুলিশের অনুমান তিনি আত্মহত্যা করেছেন। যদিও এই বিষয়ে তদন্তের পরেই মৃত্যুর আসল কারণ জানা যাবে বলেও জানিয়েছে পুলিশ।

ঘটনার পরেই বাগম্বরী মঠে সংবাদমাধ্যমের প্রবেশ নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়। গোটা এলাকা কড়া নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয়েছে। মহন্ত নরেন্দ্র গিরির মৃত্যু সংবাদ ছড়িয়ে পড়ার পরেই দলে দলে ভক্তরা সেখানে ভিড় করতে শুরু করেন। যদিও ভক্তদেরও মঠে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছেনা। তাঁর ভক্তরা জোরের সঙ্গে দাবি করেছেন, গুরুদেব আত্মহত্যা করতে পারেননা এবং এর পেছনে অন্য কোনো ঘটনা আছে।

জানা যাচ্ছে, মহন্ত নরেন্দ্র গিরি কয়েক মাস আগে বেশ কিছু সম্পত্তি নিয়ে তাঁর শিষ্য আনন্দ গিরির সঙ্গে বিবাদে জড়িয়ে পড়েছিলেন। যদিও পরে সেই বিষয়ের মীমাংসা হয়ে যায়।

সূত্র অনুসারে, মহন্ত নরেন্দ্র গিরির মৃতদেহের কাছ থেকে পাঁচ পাতার এক সুইসাইড নোট উদ্ধার করা হয়েছে। যেখানে তিনি তাঁরই এক শিষ্যকে তাঁর মৃত্যুর জন্য দায়ী করেছেন। যদিও পুলিশের পক্ষ থেকে এই বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকার করা হয়েছে।

গত ২০১৬ সালের মার্চ মাসে মহন্ত জ্ঞান দাসের জায়গায় মহন্ত নরেন্দ্র গিরিকে আখাড়া পরিষদের প্রধানের পদে বসানো হয়। যদিও এর এক বছর আগে ২০১৫ সালেই এই নির্বাচন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছিলো এবং নির্বাচনের পর মহন্ত জ্ঞান দাস মহন্ত নরেন্দ্র গিরিকে আসন ছাড়তে অস্বীকার করেছিলেন।

অযোধ্যা এবং এলাহাবাদে মহন্ত জ্ঞান দাসের বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টা, ডাকাতি, লুটপাট, আর্থিক দুর্নীতি সহ একাধিক মামলা ছিল। তাঁর অপরাধমূলক কাজকর্ম এবং আপত্তিকর ব্যবহারের জন্য তিনি একাধিকবার অভিযুক্ত হয়েছিলেন। মূলত আখাড়া পরিষদের সাধুরাই তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছিলেন।

আখাড়া পরিষদের প্রধান হিসেবে মহন্ত নরেন্দ্র গিরি উজ্জয়িনী, প্রয়াগরাজ এবং হরিদ্বারের কুম্ভমেলায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন।

(Except for the headline, this story has not been edited by People's Reporter and is translated and published from a syndicated feed.)

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.