কাজের বাজার ও চাকরি তৈরির দাবী এবং পরিসংখ্যান

কাজের বাজার ও চাকরি তৈরির দাবী এবং পরিসংখ্যান
ছবি প্রতীকী সংগৃহীত

চাকরি? আসছে, অনেক চাকরি! অনেকটা এভাবেই দেশের কোটি কোটি চাকরিপ্রার্থীকে লোভ দেখানোর চেষ্টা করা হল সোমবার। যদিও আদৌ তা কতটা বাস্তবায়িত হবে, তা নিয়ে ধন্দ্বে এইসব চাকরিপ্রার্থীরা।

সোমবার ২০২১-২২ এর কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ করতে গিয়ে আড়াই ঘণ্টার ভাষণে অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ ৩ গুণ বেশি কাজের বাজার ও ৬ গুণ বেশি চাকরি তৈরির দাবি করেছেন। কীভাবে বস্ত্র, যানবাহন, বন্দর, কৃষিক্ষেত্রে প্রচুর কাজের সুযোগ তৈরি করা হবে, তার কথা বলেছেন। কিছু দ্রব্যের উপর শুল্ক কমিয়ে দেওয়ার ফরে শিল্পক্ষেত্রেও আরও কাজের বাজার তৈরি হবে স্বচ্ছ কর ব্যবস্থার মাধ্যমে, তা তুলে ধরেছেন। তিনি ভাবছেন হয়তো, এগুলোই কাজের বাজার ও চাকরি তৈরি করার পক্ষে যথেষ্ট!

ভারতে ৫০ কোটি মানুষ কর্মসক্ষম রয়েছেন। যার মধ্যে কেউ কেউ হয়তো চাকরি করছেন, বা কেউ কেউ এখনও চাকরিপ্রার্থী। এই তালিকায় শিশু, বৃদ্ধ, ছাত্র, যারা চাকরি খুঁজছেন না বা চাকরি করতে সক্ষম নন এমন মানুষদের ধরা হয়নি। এদের মধ্যে অনেকেই পড়াশোনা করছেন, কেউ আবার বাড়িতে কাজ করা মহিলা রয়েছেন। যাদের বাইরে গিয়ে কাজ করতে দেওয়া হয়না।

সেন্টার ফর মনিটরিং ইন্ডিয়ান ইকনমির সাম্প্রতিক হিসাব অনুসারে এই ৫০ কোটি মানুষের মধ্যে ৪০.১ কোটি মানুষ কর্মরত। ১০ কোটি মানুষ চাকরিপ্রার্থী। যাদের মধ্যে সকলেই প্রায় যুবক-যুবতী। এই সংখ্যাটা অনেক বেশি, যারা কাজের জন্য অপেক্ষা করে রয়েছে। উল্লেখযোগ্যভাবে সিএমআইই-র সমীক্ষা অনুসারে গত দুবছরে কর্মরত মানুষের সংখ্যা এক জায়গায় দাঁড়িয়ে আছে। অর্থাৎ দু বছরে দেশে নতুন চাকরির কার্যত কোনো সুযোগ সৃষ্টি হয়নি।

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in