দেশবাসীর জীবন বাঁচাতে PM Cares-এর টাকা স্বচ্ছতার সঙ্গে বরাদ্দ করুন - প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি ইয়েচুরির

ইয়েচুরি লিখেছেন, যেকোনও মূল্যে সংগ্রহ করে সারাদেশে হাসপাতাল ও রোগীদের জন্য অক্সিজেন সরবরাহের ব্যবস্থা করুন। বিনা খরচে টিকাকরণ সর্বজনীন করার জন্য সব রাজ্যের কাছে পৌঁছে দিন।
দেশবাসীর জীবন বাঁচাতে PM Cares-এর টাকা স্বচ্ছতার সঙ্গে বরাদ্দ করুন - প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি ইয়েচুরির
সীতারাম ইয়েচুরি ও নরেন্দ্র মোদীফাইল ছবি ন্যাশনাল হেরাল্ডের সৌজন্যে

যত দ্রুত সম্ভব দেশের সব হাসপাতালের রোগীদের জন্য অক্সিজেন সরবরাহের ব্যবস্থা করতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদিকে এই মর্মে কড়া চিঠি দিলেন সিপিআইএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। তাঁর দাবি, বিনামূল্যে দেশের সবার জন্য টিকাকরণের ব্যবস্থা করা হোক। এর জন্য প্রয়োজন জরুরিভিত্তিতে টাকা সংগ্রহ করা সেটা কিভাবে করা যেতে পারে, সে ব্যাপারে প্রস্তাব পেশ করেছেন। দেশের মানুষের এই মর্মান্তিক মৃত্যু প্রতিহত হওয়া দরকার। তা সম্ভব না হলে তার দায় কিন্তু আপনার ঘাড়েই বর্তাবে।

চিঠিতে ইয়েচুরি লিখেছেন, অনেক মানসিক কষ্ট এবং যন্ত্রণা নিয়ে এই চিঠি লিখছি। কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউয়ে স্বাস্থ্য ও মানবিক ক্ষেত্রে বিপর্যয় সুনামির আকার নিয়েছে। কেন্দ্রের ভূমিকা ও আচরণে পরিস্থিতি আরও জটিল হয়ে উঠেছে। তবে এসব নিয়েও আলোচনার সময় নেই এখন। আমাদের প্রিয় হাজার হাজার দেশবাসীর মৃত্যুর জন্য শোকসন্তপ্ত। এই অবস্থাকে নিশ্চিত ভাবে প্রতিরোধ করা যেত। এই পরিস্থিতিতে আমার অনুরোধ সবার আগে অগ্রাধিকার দিয়ে দু'টি কাজ অবশ্যই করুন। প্রথমত, যেকোনও মূল্যে সংগ্রহ করে সারাদেশে হাসপাতাল ও রোগীদের জন্য অক্সিজেন সরবরাহের ব্যবস্থা করুন। বিনা খরচে টিকাকরণ সর্বজনীন করার জন্য সব রাজ্যের কাছে পৌঁছে দিন। এর জন্য ভারতীয় ভ্যাকসিনের উৎপাদনকে জরুরি সংস্থানের আওতায় আনুন এবং প্রাপ্যতা অনুযায়ী সব জায়গা থেকে ভ্যাকসিন আমদানি করুন।

এই পদক্ষেপ বাস্তবায়িত করতে অনেক টাকা দরকার, সেটা মেনে নিয়েই ইয়েচুরি কীভাবে খরচ করতে হবে, তারও একটি প্রস্তাব পেশ করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, বরাদ্দ বাজেটে ৩৫ হাজার কোটি টাকা ভ্যাকসিন কর্মসূচির জন্য লাগানো হোক। দিল্লিতে বিপুল খরচে নতুন সংসদ ভবন তৈরির কাজ বন্ধ করুন। এরকম অপচয়মূলক অন্যান্য খরচ বন্ধ করুন। পিএম কেয়ার্সের টাকা স্বচ্ছতার সঙ্গে বরাদ্দ করুন। যদি আপনি দেশবাসীর মৃত্যু রুখতে না পারেন, তাহলে আপনার সরকার ক্ষমতায় থাকার নৈতিক অধিকার হারিয়ে ফেলবে।

এদিকে, মোদি সরকার বিনামূল্যে টিকাকরণের প্রক্রিয়া ঝেড়ে ফেলতে চাইছে। তার প্রতিবাদ জানিয়েছে সিটু, এআইকেএস, এসএফআই।

প্রসঙ্গত, কোভিড ভ্যাকসিনের উৎপাদক সংস্থা সেরাম ইনস্টিটিউটের এক কর্তা জানিয়েছেন, একটি ডোজ টিকার দাম নাকি হাজার টাকা হওয়া উচিত। অথচ ইউরোপে এক ডোজের দাম ১৬০ টাকা এবং আমেরিকায় ৩০০ টাকা। এই বৈষম্যমূলক নীতির প্রতিবাদ জানিয়ে আগামী ৩০ এপ্রিল প্রতিবাদ দিবস পালন করার ডাক দিয়েছে এসএফআই।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in