George Floyd হত্যাকান্ডের ১ বছর - ফিরে দেখা ঘটনাক্রম

আজ ২৫ মে সেই ঘটনার এক বছর পূর্ণ হল। শুধু মার্কিন মুলুক নয় এই ঘটনার প্রভাব পড়েছিল সারা বিশ্বে। #Blacklivesmatter আন্দোলনের জেরে আমেরিকা রাজনৈতিক অভিমুখ বদলে যায়।
George Floyd হত্যাকান্ডের ১ বছর - ফিরে দেখা ঘটনাক্রম
জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকান্ডের এক বছরমারগারেট গ্রীর-এর ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

George Floyd, যে কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তির মৃত্যু ঘিরে উত্তাল হয়েছিল মার্কিন মুলুক। আজ ২৫ মে সেই ঘটনার এক বছর পূর্ণ হল। শুধু মার্কিন মুলুক নয় এই ঘটনার প্রভাব পড়েছিল সারা বিশ্বে। #Blacklivesmatter আন্দোলনের জেরে আমেরিকা রাজনৈতিক অভিমুখ বদলে যায়। নির্বাচন চরম দক্ষিণপন্থী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পরাজয়ের এক বড়ো কারণ হিসেবে দেখা এই ঘটনাকে। বিজয়ী হন ডেমোক্র্যাট জো বাইডেন। এই ঘটনার সঙ্গে সঙ্গেই সামনে আসে Darnella Frazier-এর নাম। যিনি প্রায় ১০ মিনিট ধরে জর্জ ফ্লয়েডের হত্যাকান্ডের ঘটনাটি ভিডিও রেকর্ডিং করেছিলেন এবং তাঁর করা এই ভিডিওর কারণেই দোষীরা শাস্তি পায়।

২৫ মে, ২০২০ - মিনেসোটা প্রদেশের মিনিয়াপলিসে অবৈধ মুদ্রা রাখার অভিযোগে জর্জ ফ্লয়েডকে গ্রেফতার করে শেতাঙ্গ পুলিশ অফিসার ডেরেক চৌভিন। গ্রেফতারের আগে ফ্লয়েডের ঘাড়ে প্রায় ৯.৩০ মিনিট ডেরেক চৌভিন হাঁটু গেড়ে বসে ছিলেন। ফ্লয়েডের “আই কান্ট ব্রিথ” আর্তনাদেও ভ্রুক্ষেপ করেননি চৌভিন। অবশেষে হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়।

২৬ মে, ২০২০ - পুলিশের তরফ থেকে প্রথমে শারীরিক নির্যাতনে মৃত্যুর খবর অস্বীকার করা হয়। যদিও ততক্ষণে সেই মর্মান্তিক হত্যা দৃশ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। ডেরেক চৌভিন সহ চার পুলিশ অফিসার থমাস লেন, জে কুয়েং এবং টৌ থাও-কে বরখাস্ত করা হয়।

২৭ মে, ২০২০ - মিনিয়াপলিসের মেয়র জেকব ফ্রে পুলিশ অফিসার ডেরেক চৌভিনের বিরুদ্ধে ক্রিমিনাল চার্জের দাবি তোলেন। দেশ জুড়ে শুরু হয় উত্তাল আন্দোলন। একাধিক শহরে লক্ষাধিক মানুষ রাস্তায় নেমে পড়েন। FBI তদন্ত শুরু করে।

২৮ মে, ২০২০ - মিনেসোটার গভর্নর ন্যাশনাল গার্ড ডেকে পাঠান। আন্দোলনকারীদের দখলে থাকা বেশ কিছু এলাকায় জমায়েত সরানোর চেষ্টা। অগ্নিসংযোগ হয় একাধিক জায়গায়।

২৯ মে, ২০২০ - অভিযুক্ত পুলিশ অফিসার ডেরেক চৌভিন গ্রেফতার। এই সময়েই ট্রাম্পের উস্কানিমূলক ট্যুইট - “যখন লুটপাট শুরু হয়, তখন গুলিও চলে”। এতে আন্দোলনের মাত্রা আরও বাড়তে থাকে।

৩০ মে, ২০২০ - ট্রাম্পের উস্কানিমূলক ট্যুইট জারি। আন্দোলন আরও তীব্রতর হতে থাকে। সারা মার্কিন মুলুকে ছড়িয়ে পড়ে আন্দোলন।

৩১ মে, ২০২০ - জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকান্ডে বিচার প্রক্রিয়া শুরু হয়।

১ জুন, ২০২০ - ময়নাতদন্তের পর মেডিক্যাল অফিসারদের রিপোর্ট - ফ্লয়েড ঘাড়ে আঘাতপ্রাপ্ত হওয়ায় হৃৎপিণ্ড স্তব্ধ হয়ে মৃত্যু হয়েছে।

২ জুন, ২০২০ - মিনেসোটা প্রদেশের মানবাধিকার কমিশন মিনিয়াপলিস পুলিশের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে।

৩ জুন, ২০২০ - পুলিশ অফিসার ডেরেক চৌভিন এর বিরুদ্ধে থার্ড ডিগ্রি মার্ডার চার্জ আনা হয়। অভিযুক্ত হয় আরও তিন পুলিশ অফিসার।

৪ জুন, ২০২০ - মিনিয়াপলিস জুড়ে ফ্লয়েডের স্মরণসভা।

৫ জুন, ২০২০ - ঘাড় চেপে ধরে গ্রেফতার নিষিদ্ধ।

৬ জুন, ২০২০ - পুলিশের সংস্কারের দাবিতে উত্তাল সারা দেশ।

৭ জুন, ২০২০ - মিনিয়াপলিস সিটি কাউন্সিলের বেশিরভাগ সদস্য পুলিশ বিভাগকে ভেঙে ফেলার দাবি তোলেন।

৯ জুন, ২০২০ - ফ্লয়েডকে সমাধিস্থ করা হয়।

১৫ জুলাই, ২০২০ - ফ্লয়েডের পরিবার ৪ পুলিশ অফিসারের বিরুদ্ধে মামলা শুরু করে।

৭ অক্টোবর, ২০২০ - অভিযুক্ত পুলিশ অফিসার ডেরেক চৌভিন ১ মিলিয়ন ডলার বন্ডের বিনিময়ে জেল থেকে মুক্তি পায়। আন্দোলন এর ফলে আরো তীব্রতর হতে থাকে।

৯ মার্চ, ২০২১ - ডেরেক চৌভিনের মুক্তি পাওয়া নিয়ে বিচারক মহলে প্রথম প্রশ্ন ওঠে

১২ মার্চ, ২০২১ - মিনিয়াপলিস কর্তৃপক্ষ ফ্লয়েড পরিবারকে ২৭ মিলিয়ন বলার ক্ষতিপূরণ দিতে বাধ্য হয়।

১৯ মার্চ, ২০২১ - বিচারপতিরা জর্জ ফ্লয়েড মামলা পিছিয়ে দিতে অথবা অন্য জায়গায় নিয়ে যাওয়ার আবেদন খারিজ

২৩ মার্চ, ২০২১ - ১২ জন বিচারপতির বেঞ্চ গঠন

১৫ এপ্রিল, ২০২১ - শুনানি শেষ

২০ এপ্রিল, ২০২১ - ডেরেক চৌভিন দোষী সাব্যস্ত।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in