ইতিহাসে পাতায় 'Orkut' - এবার কী Twitter-এর পালা! মাস্ককে স্মরণ করালেন টুইটার ব্যবহারকারীরা

মাস্ক দাবি করেন, ‘শুধু টুইটার ব্যবহারে সর্বকালের শিখরে পৌঁছেছি আমরা।’ দাবিকেই একহাত নিয়েছেন বিভিন্ন ব্যক্তি। সকলেই টুইটার কর্তার মনোভাব নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম অর্কুট-র কথা মনে করিয়েছেন।
ছবি - প্রতীকী
ছবি - প্রতীকী

'আমরাই বড় (সেরা), কোনদিন কিছু (শেষ) হবে না’- প্রযুক্তি শিল্পে এই ধারণার কোনও স্থান নেই। শুক্রবার, টুইটার (Twitter) কর্তা এলন মাস্ককে একথা বারে বারে স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীরা।

এলন মাস্কের ‘আল্টিমেটাম’ জারির পর গণহারে ইস্তফার দিচ্ছেন টুইটারের কর্মচারীরা। গণ ইস্তফার ধাক্কায় টুইটারের বহু অফিসই কিন্তু বন্ধ করে দিতে হচ্ছে। তারপরেও মাস্ক টুইটারে একটি পোস্টে লিখেছেন, ‘সেরা কর্মীরা রয়ে গিয়েছে। তাই আমি খুব একটা উদ্বিগ্ন নই।’

শুধু তাই নয়, এলন মাস্ক দাবি করেন, ‘শুধু টুইটার ব্যবহারে সর্বকালের শিখরে পৌঁছেছি আমরা।’ আর মাস্কের এই দাবিকেই একহাত নিয়েছেন বিভিন্ন ব্যক্তি। সকলেই টুইটার কর্তার মনোভাব নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম অর্কুট (Orkut)-এর কথা মনে করিয়েছেন।

কারণ, অর্কুট (Orkut) ছিল Google-এর মালিকানাধীন এবং পরিচালিত একটি সামাজিক নেটওয়ার্কিং পরিষেবা। যে পরিষেবাটি চালু হয়েছিল ২০০৪ সালের জানুয়ারি মাসে। আবার, এটি বিলুপ্ত (বন্ধ) হয়ে গিয়েছে ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বর মাসে।

জানা যাচ্ছে, শুরুর দিকে অর্কুটের পরিচালকরা নিজেদের বেশ বড় মনে করতেন। কারণ, কোন নিমন্ত্রণ ছাড়া অর্কুট ব্যবহার করা সম্ভব ছিল না। ২০০৪ সালের জুলাই মাসের শেষে অর্কুটের ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১০ লক্ষ ছাড়িয়ে যায়। সেপ্টেম্বর মাসে এ সংখ্যা বেড়ে দাড়াঁয় ২০ লক্ষের অধিক। ২০১৪ সালে অর্কুট বন্ধ হওয়ার আগে এটি ব্যবহার করতেন প্রায় ৩০০ মিলিয়ন মানুষ।  

এক স্বাধীন প্রযুক্তিবিদ নিন্নাদ কোথাওয়াডে (Ninnad Kothawade) টুইটে লিখেছেন, ‘প্রযুক্তিতে ‘বড়’ বলে কিছু নেই। আপনি (পড়ুন- এলন মাস্ক) আপনার ব্যবহারকারীদের বিচ্ছিন্ন করছেন। তবে, লোকেরা অবশেষে একটি ভাল, নতুন জিনিসের দিকে এগিয়ে যাবে। মনে রাখবেন MySpace, Orkut, Tumblr, Snapchat বিলুপ্ত হয়ে গেছে। আর, Facebook ব্যবহার করেছেন কিছু নির্দিষ্ট সংখ্যক মানুষ।’

এছাড়া, নিনা টারনার নামে এক শিক্ষাবিদ ডুবন্ত টাইটনিক জাহাজের ছবি দিয়ে এলন মাস্ককে ব্যাঙ্গ করে লিখেছেন, 'এটা ডুবছে না! আসলে, আমরা আগের চেয়ে অনেক উপরে আছি।'

প্রসঙ্গত, মার্কিন সংবাদ মাধ্যম সিএনবিসি (CNBC) জানিয়েছে, এলন মাস্কের ‘আল্টিমেটাম’-এর সময়সীমার আগে বৃহস্পতিবার টুইটারের কয়েক’শ কর্মচারী পদত্যাগ করেছেন। এদের মধ্যে রয়েছেন ইঞ্জিনিয়ার সহ অন্যান্য বিভাগের কর্মচারীবৃন্দ।

জানা যাচ্ছে, কোম্পানির বিভিন্ন ইন্টারনাল ম্যাসেজিং (internal chat) গ্রুপে বিদায়ী কর্মচারীদের অভ্যর্থনা জানানো হচ্ছে। অনেকেই স্যালুট ইমোজি (Salute emoji) শেয়ার করছেন। কারণ, এলন মাস্কের আল্টিমেটাম জারির একদিন পরেই পদত্যাগ শুরু করেছেন টুইটারের ইঞ্জিনিয়ার সহ কর্মচারীরা।

ব্লুমবার্গ (Bloomberg) এক রিপোর্টে জানিয়েছে, বিপুল সংখ্যক কর্মচারী টুইটার ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেওয়ায়, সোমবার পর্যন্ত অফিস বন্ধ রাখার কথা জানিয়েছে টুইটার কর্তৃপক্ষ।

এক ইঞ্জিনিয়ার বলেছেন, ‘কোম্পানির গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রের প্রতিনিধিত্বকারী বিভিন্ন দল স্বেচ্ছায় কোম্পানি ছাড়ছেন। কোম্পানি গুরুতর ঝুঁকির মুখে পড়েছে। তাছাড়া, এলন আমাদের মতো দক্ষ পেশাদারদের কোম্পানিতে থাকার কোনও কারণ তুলে ধরেননি।’

ছবি - প্রতীকী
মাস্কের ‘আলটিমেটাম’-এর পরেই টুইটার থেকে পদত্যাগের হিড়িক!

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in