INS Vikrant: আইএনএস বিক্রান্ত ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত সমস্ত সরকারের সম্মিলিত প্রচেষ্টা - জয়রাম রমেশ

ভারতের প্রথম নিজস্ব বিমানবাহী জাহাজ INS Vikrant ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত সমস্ত সরকারের প্রচেষ্টা। সেটা কি নরেন্দ্র মোদী স্বীকার করবেন?
আইএনএস বিক্রান্ত
আইএনএস বিক্রান্তছবি সৌজন্যে রাহুল গান্ধীর ট্যুইটার হ্যান্ডেল

শুক্রবার নরেন্দ্র মোদী যুদ্ধবিমান পরিবহনে সক্ষম ভারতীয় জাহাজ আইএনএস বিক্রান্তের উদ্বোধন করেন। প্রধানমন্ত্রীর এই জাহাজ উদ্বোধন নিয়ে কটাক্ষ করলেন কংগ্রেস নেতা জয়রাম রমেশ। তাঁদের অভিযোগ মোদী নিজের কৃতিত্ব নিচ্ছেন। কিন্তু ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত সমস্ত সরকারের প্রচেষ্টায় এই রণতরী তৈরির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

ভারতীয় প্রযুক্তিতে তৈরি আইএনএস বিক্রান্তের উদ্বোধনের দিন মোদীকে কটাক্ষ করে কংগ্রেস নেতা জয়রাম রমেশ ট্যুইটারে লেখেন, ‘ভারতের প্রথম নিজস্ব বিমানবাহী জাহাজ আইএনএস বিক্রান্ত ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত সমস্ত সরকারের প্রচেষ্টা। সেটা কি নরেন্দ্র মোদী স্বীকার করবেন? এও জানা দরকার আসল আইএনএস বিক্রান্ত ১৯৭১ সালের যুদ্ধে আমাদের পরিষেবা দিয়েছিল। কৃষ্ণ মেনন ইউ কে থেকে বিক্রান্তকে আনার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন’।

শুক্রবার সকালে নরেন্দ্র মোদী জাহাজটি উদ্বোধন করার সময় বলেন, এই জাহাজ সম্পূর্ণ ভারতীয় প্রযুক্তিতে তৈরি হয়েছে। এর সাথে ভারত নিজস্ব পদ্ধতিতে বিমানবাহী জাহাজ তৈরির ক্লাবে ঢুকে গেল। এছাড়াও তিনি বলেন, আইএনএস বিক্রান্ত হল একটি ভাসমান বিমান ঘাঁটি, একটি ভাসমান শহর এবং যখন কেবলগুলি কাশী থেকে কোচি পর্যন্ত বিস্তার লাভ করবে তখন এতে উৎপাদিত বিদ্যুৎ ৫০০০ বাড়িকে আলোকিত করতে পারবে। এই জাহাজের ডেক দু’টি ফুটবল খেলার মাঠের সমান। ভারত যে প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে স্বনির্ভর হচ্ছে তা এটার জ্বলন্ত প্রমাণ।

পাশাপাশি তিনি বলেন, ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের নিরাপত্তার দিকটি খুবই জরুরি। কিন্তু এর আগে সেইদিকে তেমন নজর দেওয়া হয়নি। ভারতীয় নৌ-সেনার পতাকা এতদিন দাসত্বের তকমা বহন করছিল। কিন্তু আজ থেকে সেই পতাকায় ছত্রপতি শিবাজী মহারাজের প্রতীক দেখা যাবে। ছত্রপতি শিবাজীর সিলমোহর থেকে নতুন প্রতীক নেওয়া হয়েছে। এর আকৃতি অষ্টভুজাকার। ভারতীয় নৌ বাহিনীকে আটটি দিক নির্দেশ করবে নতুন প্রতীক।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in