একসঙ্গে 'দুটি' জায়গায় কাজ করা চলবে না, কর্মীদের সতর্কবার্তা ইনফোসিসের!

ইনফোসিস তাদের কর্মীদের যেভাবে লোভনীয় অফার দিচ্ছে, প্রতিযোগিতার বাজারে টিকে থাকার জন্য স্টার্ট-আপ সংস্থাগুলি চিন্তিত। অনেকেই মনে করছেন, এই পরিস্থিতি স্টার্ট-আপ সংস্থাগুলিকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দেবে।
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

একই কর্মী ইনফোসিসে কাজ করছেন। তিনিই আবার অন্য কোম্পানিতে কাজ করছেন। এমন ঘটনা সামনে এলে, তা বরদাস্ত করা হবে না। মঙ্গলবার, কর্মীদের ই-মেল মারফত এমনই সতর্কতা জারি করেছে ভারতের অন্যতম প্রযুক্তি সংস্থা ইনফোসিস (Infosys)।

প্রযুক্তিবিদদরা জানিয়েছেন, মার্কিন মুলুকে প্রযুক্তি সংস্থায় (IT Sector) মন্দা চলছে ঠিকই। তবে, বেঙ্গালুরুতে চাকরির বাজার এখনও উত্তপ্ত। তারপরেও, আইটি জায়ান্ট ইনফোসিসের নির্দেশ তার কর্মীদের দ্বৈত কাজের (moonlighting) উপর প্রভাব (diktat) ফেলবে না।

ইনফোসিসে কর্মরত প্রযুক্তিবিদরা জানান, যতক্ষণ না বাড়ি থেকে কাজ (Work from Home) করার বিকল্পটি না আসে, ততক্ষণ ইনফোসিসের নির্দেশ কাজ করবে না। তাঁরা বলেন, প্রযুক্তি সংস্থাগুলি দক্ষ কর্মীদের মাথায় চড়ে বসেছে। যেন, প্রতিভাবান কর্মীরা সংস্থার জন্য মাথা ব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

তাঁরা জানান, 'শুধু ইনফোসিস নয়, অন্যান্য বড় আইটি সংস্থাগুলি তাঁদের কর্মীদের উপর নজরদারি করতে সক্ষম হবে না। যারা নমনীয়, তাঁরা এক অ্যাসাইনমেন্টে থেকে অন্যত্র চলে যাবে। আসলে এরা প্রতিভা ছিনতাই করতে চাই, লোভনীয় অফার দেওয়ার মাধ্যমে।'

এক সফ্টওয়্যার কর্মী বলেন, 'আমরা একসঙ্গে দুটি কাজই পরিচালনা করতে পারি। যখন এটি কাজের উপর প্রভাব ফেলছে না, তখন সংশ্লিষ্ট কোম্পানির সমস্যা হওয়া উচিত নয়।'

ইনফোসিসের কর্মীরা সংস্থার পক্ষ থেকে পাওয়া মেলের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তাঁরা জানিয়েছেন, কোম্পানির কাজের সময় অন্য কোনও চাকরি না করার জন্য তাদের সতর্ক করা হয়েছে।

এর আগে উইপ্রোর চেয়ারম্যান রিশাদ প্রেমজি এক টুইট বার্তায় জানান, 'সাধারণভাবে দ্বৈত কর্মনীতি একটি সহজ প্রতারণা।'

সম্প্রতি, ইনফোসিস কর্মীদের যেভাবে লোভনীয় অফার দিচ্ছে, প্রতিযোগিতার বাজারে টিকে থাকার জন্য স্টার্ট-আপ সংস্থাগুলি চিন্তিত। অনেকেই মনে করছেন, এই পরিস্থিতি স্টার্ট-আপ সংস্থাগুলিকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দেবে।

অন্য এক স্টার্ট-আপ সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা জানান, 'এই প্রবণতা (moonlighting) মহামারী করোনা কালে শুরু হয়েছে। এখন, বেশিরভাগ সংস্থাগুলি কর্মীদের সপ্তাহে দুবার অফিসে আসতে বলছে। সম্প্রতি, প্রবল বৃষ্টির জেরে বেঙ্গালুরুতে কর্মীদের বাড়ি থেকে কাজ করতে বাধ্য হচ্ছেন। দ্বৈত কর্ম পদ্ধতি (moonlighting) নৈতিকতার প্রশ্ন নয়। এর সঙ্গে একজন পেশাদারের দক্ষতার সম্পর্ক।'

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in