সরকার নির্ধারিত অ্যাকাউন্টগুলো বন্ধ করতে চলেছে টুইটার কর্তৃপক্ষ

সরকার নির্ধারিত অ্যাকাউন্টগুলো বন্ধ করতে চলেছে টুইটার কর্তৃপক্ষ

তবে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তি, রাজনীতিক, সমাজকর্মীদের বিরুদ্ধে তারা কোনও পদক্ষেপ করবে না বলে জানিয়েছে টুইটার।

অবশেষে কেন্দ্রের নির্দেশিত টুইটার অ্যাকাউন্টগুলো বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিল টুইটার। তবে একই সঙ্গে তারা জানিয়ে দিয়েছে, শুধুমাত্র ভারতেই এই অ্যাকাউন্টগুলো বন্ধ হবে। ভারতের বাইরে নয়। টুইটারের তরফে আরও জানানো হয়েছে, সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তি, রাজনীতিক, সমাজকর্মীদের বিরুদ্ধে তারা কোনও পদক্ষেপ করবে না। তাতে ভারতের আইন অনুযায়ী বাকস্বাধীনতা লঙ্ঘন হবে বলেই মনে করছে তারা।

টুইটারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, গত ১০ দিনে ভারত সরকারের ইলেকট্রনিকস অ্যান্ড ইনফরমেশন টেকনলজি মন্ত্রকের তরফে বেশ কিছু টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার জন্য আবেদন করা হয়েছে। যা ৬৯এ তথ্যপ্রযুক্তি আইনের আওতায় পড়ে। উল্লেখ্য, কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে যখন একের পর এক টুইট হচ্ছিল, বিভ্রান্তিকর তথ্য এবং উস্কানির অভিযোগ তুলে টুইটারকে সেই অ্যাকাউন্টগুলো বন্ধ করতে নির্দেশ দিয়েছিল সরকার। সরকারের বক্তব্য ছিল, পাকিস্তান এবং খালিস্থানপন্থীরা দেশে উস্কানিমূলক তথ্য ছড়িয়ে পরিস্থিতি বিগড়ানোর চেষ্টা করছে। অতএব, এ ধরনের অ্যাকাউন্টের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে টুইটারকে। এমনকী, এই মর্মে টুইটারকে কেন্দ্রের তরফে একটি নোটিসও দেওয়া হয়েছিল।

সূত্রের খবর, ‘ফার্মার জিনোসাইড’ হ্যাশট্যাগ দিয়ে ২৫৭টি অ্যাকাউন্ট থেকে টুইট করা হয়েছে। তার মধ্যে ১২৬টি অ্যাকাউন্ট নিষ্ক্রিয় করে টুইটার। কয়েক দিন আগেই সেগুলো বন্ধ করে দেয় তারা। তবে বন্ধ করার আগে তারা ‘বাকস্বাধীনতা’ এবং টুইটগুলো ‘খবরের যোগ্য’ এই উদাহরণও তুলে ধরে। এরপর সরকার ফের ১,১৭৮টি অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার নির্দেশ দেয়। কেন্দ্রের সেই আবেদনের প্রেক্ষিতেই টুইটার কর্তৃপক্ষ এই অ্যাকাউন্টগুলো বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানিয়ে দিয়েছে।

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in