ঘূর্ণিঝড়ে 'গুলাব'-র দাপটে কোথায় কোথায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা?

আজ থেকেই বৃষ্টি শুরু হওয়ার আশঙ্কা থাকলেও মঙ্গলবার বৃষ্টিপাত বাড়বে দুই মেদিনীপুর, দুই ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি, কলকাতা, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রামে।
ঘূর্ণিঝড়ে 'গুলাব'-র দাপটে কোথায় কোথায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা?
ছবি - প্রতীকী

গত সপ্তাহে টানা কয়েকদিন ভারী বৃষ্টিপাতের পর আবহাওয়া দফতর পূর্বাভাস দিয়েছিল যে, ঘূর্ণিঝড় গুলাব আসছে। তবে বাংলায় তা আছড়ে পড়বে না। কিন্তু ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে ভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে। রবিবার সন্ধ্যাবেলা অন্ধপ্রদেশের সান্থাগুড়ায় প্রবল বেগে ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়ে। দেড় ঘণ্টা ধরে ল্যান্ডফল হয়। শ্রীকাকুলামে দু'জন মৎস্যজীবীর মৃত্যু হয়েছে বলে খবর মিলেছে।

মূলত অন্ধ্র ও ওড়িশা উপকূলে তাণ্ডব চালায় গুলাব। ইন্ডিয়ান মেটেরোলজিক্যাল ডিপার্টমেন্ট জানিয়েছে, গুলাব আরও পশ্চিম দিকে সরে গিয়েছে। শক্তিক্ষয় হতেই অন্ধ্র ও ওড়িশা উপকূলে ঝড়-বৃষ্টি শুরু হয়েছে।

এদিকে দক্ষিণবঙ্গে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা কথা জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং পূর্ব মেদিনীপুরে সবচেয়ে বেশি বৃষ্টিপাত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। আজ থেকেই বৃষ্টি শুরু হওয়ার আশঙ্কা থাকলেও মঙ্গলবার বৃষ্টিপাত বাড়বে দুই মেদিনীপুর, দুই ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি, কলকাতা, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রামে।

বুধবার ভারী বৃষ্টিপাত হবে পশ্চিম বর্ধমান, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া ও ঝাড়গ্রামে। রবিবার থেকে দিঘা পর্যটকশূন্য করার নির্দেশ দিয়েছিল প্রশাসন। তাজপুর, শঙ্করপুর, মন্দারমনি, ফ্রেজারগঞ্জ, মৌসুনি দ্বীপ, সাগর, নামখানায় সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। মৎস্যজীবীদের বুধবার পর্যন্ত সমুদ্র যেতে নিষেধ করা হয়েছে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.