West Bengal: মমতা ব্যানার্জির জয়ে ফের দল ভাঙার আশংকায় রাজ্য বিজেপি

ভবানীপুর উপনির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জয়ের পর রাজ্য বিজেপি থেকে আরও কিছু বিধায়ক, নেতা দলবদল করে তৃণমূলে যোগ দিতে পারেন বলে আশংকা রাজ্য বিজেপি শিবিরে।
West Bengal: মমতা ব্যানার্জির জয়ে ফের দল ভাঙার আশংকায় রাজ্য বিজেপি
ছবি প্রতীকী গ্রাফিক্স সুমিত্রা নন্দন

ভবানীপুর উপনির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জয়ের পর রাজ্য বিজেপি থেকে আরও কিছু বিধায়ক, নেতা দলবদল করে তৃণমূলে যোগ দিতে পারেন বলে আশংকা রাজ্য বিজেপি শিবিরে। এর আগে গত ২ মে রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশিত হবার পর বেশ কয়েকজন বিজেপি বিধায়ক, বিজেপির জাতীয় সহ সভাপতি মুকুল রায় তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন।

বিজেপির এক বিশিষ্ট নেতা এই প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, গত পাঁচ মাসে পাঁচজন বিজেপি বিধায়ক দল ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। রবিবারে তৃণমূলের মমতা ব্যানার্জির কাছে বিজেপির প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়ালের পরাজয়ের পর দল ছেড়ে আরও বেশ কয়েকজন শাসকদলে যোগ দিতে পারেন। এর আগে গত মাসে বিজেপি সাংসদ এবং প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় দল ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেন।

ওই বিজেপি নেতা আরও জানিয়েছেন – মুকুল রায় আমাদের ছেড়ে যাবার পর আমরা বুঝেছিলাম আরও কয়েকজন দল ছাড়বেন। মমতা ব্যানার্জির জয়ের পর আমরা আশংকা করছি আরও কয়েকজন বিজেপি ছাড়বেন। বিশেষ করে তাঁরা, যারা বিধানসভা নির্বাচনের আগে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। আগামী কিছুদিনের মধ্যেই তাঁদের তৃণমূলে যোগ দেবার সম্ভাবনা প্রবল।

রাজনৈতিক মহলের অনুমান, বেশ কিছু বিজেপি নেতা তৃণমূল নেতৃত্বের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলছেন। অন্য এক বিজেপি নেতা জানিয়েছেন, বিজেপি বিধায়করা যাতে দল না ছেড়ে যান তারজন্য উচ্চ নেতৃত্ব যথেষ্টই চেষ্টা চালাচ্ছেন।

যদিও যেভাবে বিজেপি বিধায়করা তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন তাতে মনে হয়না রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব এই স্রোত আটকাতে পারবেন। যদিও আমরা দলবদলের জন্য পা বাড়িয়ে থাকা বিধায়কদের যতটা সম্ভব আটকানোর চেষ্টা করছি।

নির্বাচনী ফলাফল প্রকাশের পর গত জুন মাসে প্রথম বিজেপি ছাড়েন কৃষ্ণনগর উত্তর কেন্দ্রের বিধায়ক মুকুল রায়। এর পরেই সেপ্টেম্বরে দল ছাড়েন বিষ্ণুপুরের তন্ময় ঘোষ, বাগদার বিশ্বজিৎ দাস এবং কালিয়াগঞ্জ-এর সৌমেন রায়। দলের সঙ্গে বিবাদে বিজেপি ছাড়ার ঘোষণা করেছেন রায়গঞ্জের বিধায়ক কৃষ্ণ কল্যাণী।

(Except for the headline, this story has not been edited by People's Reporter and is translated and published from a syndicated feed.)

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in