WB: এফসিআই সরবরাহ নেই, রাজ্যের রেশনে বন্ধ অতিরিক্ত চাল গম

বছরের প্রথম দিন থেকেই রাজ্যে বন্ধ হয়ে গেল রেশনে প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ অন্ন যোজনা প্রকল্পের চাল, গম বিলি। এফসিআই খাদ্যশস্য সরবরাহ করছে না। তাই অতিরিক্ত রেশন বন্ধ রাখতে হচ্ছে। এমনই দাবি রাজ্যের।
WB: এফসিআই সরবরাহ নেই, রাজ্যের রেশনে বন্ধ অতিরিক্ত চাল গম
ছবি প্রতীকী ফাইল ছবি সৌজন্যে ডব্লু বি পি ডি এস

বছরের প্রথম দিন থেকেই রাজ্যে বন্ধ হয়ে গেল রেশনে প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ অন্ন যোজনা প্রকল্পের চাল, গম বিলি। এফসিআই খাদ্যশস্য সরবরাহ করছে না। তাই অতিরিক্ত রেশন বন্ধ রাখতে হচ্ছে। এমনই দাবি রাজ্যের। এই বিষয়টি তৃণমূল সরকার গত নভেম্বরের শেষ দিকেই বুঝেছিল, কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় এই ব্যাপারে কোনও পদক্ষেপ করেননি। ৩১ ডিসেম্বর রাজ্য সরকার শুধু একটি নির্দেশিকা জারি করে এই ব্যাপারে দায়িত্ব শেষ করেছে।

কোভিড মহামারিতে ২০২০-র ২৬ মার্চ কেন্দ্রীয় সরকার প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ অন্ন যোজনা (পিএমজিকেএওয়াই) প্রকল্প ঘোষণা করেছিল। জাতীয় খাদ্য সুরক্ষা যোজনার আওতায় থাকা গ্রাহকদের রেশনে অতিরিক্ত চাল, গম দেওয়াই ছিল এই প্রকল্প। কার্ড পিছু ৫ কেজি করে চাল ও পরিবার পিছু ১ কেজি করে ডাল বিনামূল্যে দেওয়া শুরু হয়। রাজ্যে এই ধরনের কার্ডের সংখ্যা এখন ৫কোটি ৬০ লক্ষ ৯০ হাজার ৯৯৪। এর মাধ্যমে রেশন পান ৫ কোটি ৯৮ লক্ষ ৫৯ হাজার ৮৮৫ জন রাজ্যবাসী। যদিও গত জুলাই-আগস্ট থেকে ৫ কেজি চালকে ২ কেজি করে দেওয়া হয়েছে। বাড়ানো হয়েছে গম। রাজ্যও চাল, গম দেওয়া শুরু করে। সেখানেও বরাদ্দ ছাঁটাই হয়েছে।

২০২০-র ২৬ মার্চই সিপিআই(এম) সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি বলেছিলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী চাল, গম দেওয়ার কথা বলেছেন। কিন্তু এটা প্রয়োজনের তুলনায় খুবই কম।' গত ৩১ ডিসেম্বর এক ট্যুইট বার্তায় এই প্রসঙ্গে ইয়েচুরি বলেন, "এটা অপরাধ।মহামারী চলাকালীন ক্ষুধার্ত মানুষের সংখ্যা অস্বাভাবিক ভাবে বেড়েছে। যখন মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত তখন খাদ্য ভর্তুকি ৩০% হ্রাস করা হয়েছে। মোদির পিআর বিনামূল্যে খাবার বিতরণের দাবি করলেও আসলে ক্ষুধার্ত মানুষের সংখ্যা বাড়ছে। কেন্দ্রীয় গোডাউনে ৬০ মিলিয়ন টনের বেশি খাদ্যশস্য পচে যাচ্ছে। এঁদের বিনামূল্যে খাবারের কিট দিন।"

প্রসঙ্গত, কেন্দ্র গত ২৪ নভেম্বর জানিয়েছিল এই প্রকল্পের মেয়াদ ২০২২-র এপ্রিল পর্যন্ত বাড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে। ৩০ নভেম্বর শেষ হওয়ার কথা থাকলেও তা বাড়ানো হচ্ছে। তাহলে রাজ্যে কেন পর্যাপ্ত খাদশস্য এল না, উঠছে প্রশ্ন।

রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষ বলেন, ‘এর পুরো দায় এফসিআই'র। ওরা দিতে পারল না। আমরা চেষ্টা করব জানুয়ারির প্রাপ্য ফেব্রুয়ারিতে দেওয়ার।’

কেন রাজ্যে বন্ধ হচ্ছে এই প্রকল্প? গ্রাহকদের ক্ষোভের মুখে পড়ার আশঙ্কা করছে রেশন ডিলারদের সংগঠন অল ইন্ডিয়া ফেয়ার প্রাইস শপ ডিলারস ফেডারেশন। সংগঠনের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক বিশ্বম্ভর বসু বলেছেন, ‘এফসিআই ডিসেম্বর, ২০২১ থেকে বরাদ্দ অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ অন্ন যোজনা প্রকল্পে চাল, গম সরবরাহ করতে পারেনি। তাই চলতি জানুয়ারি থেকে পশ্চিমবঙ্গের রেশন দোকানগুলি থেকে এই প্রকল্পের কোনও রেশন সরবরাহ করা যাবে না।’ গ্রাহক যাতে ভুল না বোঝেন, তার জন্য দ্রুত এই অবস্থা মানুষকে জানানো দরকার বলে মনে করেন তিনি।

ছবি প্রতীকী
বিনামূল্যে রেশন প্রকল্প বন্ধ করছে কেন্দ্র - ক্ষুধা সূচকে পিছিয়ে পড়া দেশের 'এই সিদ্ধান্ত অপরাধ'

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in