WB BJP: অনুশাসনের অভাবেই বিজেপিতে ঢুকছে তৃণমূলের চর! সাংবাদিক বৈঠকে দাবি জগন্নাথ সরকারের

'দলের কোনও বরিষ্ঠ কার্যকর্তা হোক, জনপ্রতিনিধি হোক, কেউ যদি ফেসবুক বা সোশ্যাল মিডিয়ায় ছাড়ে, নিশ্চিত ভাবে সে বিজেপির হিতাকাঙ্ক্ষী নয়। সে তৃণমূলের দলাল।'
WB BJP: অনুশাসনের অভাবেই বিজেপিতে ঢুকছে তৃণমূলের চর! সাংবাদিক বৈঠকে দাবি জগন্নাথ সরকারের
জগন্নাথ সরকারগ্রাফিক্স - সুমিত্রা নন্দন

অনুশাসনের ঘাটতির জন্যই বিজেপি (BJP)তে ঢুকছে তৃণমূলের চর, এমনটাই দাবি করছেন বিজেপি সাংসদ জগন্নাথ সরকার। দলীয় কর্মীরা মাঝে মধ্যেই সরব হচ্ছেন জগন্নাথের বিরুদ্ধে। সেই প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে সাংবাদিককদের সামনে বিস্ফোরক এই মন্তব্য করলেন রানাঘাটের সাংসদ।

সাংবাদিক বৈঠকে যেসব দলীয় কর্মীরা তাঁর বিপক্ষে গিয়ে প্রকাশ্যে বা সোশ্যাল মিডিয়াতে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন তাঁদেরকে তৃণমূলের চর বলে উল্লেখ করলেন জগন্নাথ সরকার। তিনি আরও বলেন, দলে অনুশাসন প্রয়োজন। অনুশাসনের অভাবের জন্যই এমনটা হচ্ছে বলে মনে করেন তিনি।

তাঁকে বলতে শোনা যায়, প্রতিটি রাজনৈতিক দলে এমন কেউ কেউ থাকেন যাঁরা কথা আদান-প্রদান করেন। তেমনি বিজেপি-তৃণমূলেও আছে। এরা হল খোচর বা দালাল। এরপর নাম না করেই এইসব 'দালাল'দের হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন, “দলের কোনও বরিষ্ঠ কার্যকর্তা হোক বা জনপ্রতিনিধি হোক অথবা কোনো দলীয় কর্মী, কেউ যদি ফেসবুক বা সোশ্যাল মিডিয়ায় দলীয় নেতা-মন্ত্রীদের বিরুদ্ধে মন্তব্য করে, তাহলে নিশ্চিত ভাবে সে বিজেপির হিতাকাঙ্ক্ষী নয়। সে তৃণমূলের দলাল। সেই শ্রেণির লোককে দল থেকে বহিষ্কার করা বা শাস্তি দেওয়ার ব্যবস্থা করা উচিত। না হলে দলের উন্নতি হয় না।”

সম্প্রতি তাঁর বিরুদ্ধে কল্যাণী এমসে অবৈধ নিয়োগের অভিযোগ উঠেছে। কল্যাণী এমসে (AIIMS) বেআইনিভাবে ঠিকাদার কর্মী নিয়োগের জন্য তাঁর বিরুদ্ধে সিআইডি (CID) তদন্তে নেমছে। এই প্রসঙ্গে বিজেপি সাংসদ বলেন, এসএসসি (SSC) দুর্নীতি থেকে জনগণকে বিভ্রান্ত করতেই 'মুর্শিদাবাদের এক দুধেলা গাইকে' দিয়ে মামলা করিয়েছে রাজ্যের শাসক দল।

জগন্নাথ সরকার
এবার কল্যাণী এইমসে নিয়োগে দুর্নীতি - অভিযোগ বিজেপি নেতা-মন্ত্রীর বিরুদ্ধে, তদন্তে CID

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in